১০ ডিসেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

সন্ত্রাসীদের বিরুদ্ধে সাক্ষ্য দেয়ায় মাদ্রাসা ছাত্রীকে হত্যা চেষ্টা

নিজস্ব সংবাদদাতা, নারায়ণগঞ্জ, ২৫ মার্চ ॥ সন্ত্রাসীদের বিরুদ্ধে সাক্ষ্য দেয়ায় সিদ্ধিরগঞ্জে শ্রাবন্তী খাতুন (১১) নামে ৫ম শ্রেণীর এক মাদ্রাসা ছাত্রীকে হত্যার চেষ্টা করেছে। এ সময় সন্ত্রাসীরা ধারালো অস্ত্র দিয়ে শ্রাবন্তীকে এলোপাথাড়িভাবে পেট, হাত, পা ও শরীরের বিভিন্ন স্থানে আঘাত করে পালিয়ে যায়। গুরুতর আহত অবস্থায় তাকে উদ্ধার করে ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। বর্তমানে শ্রাবন্তীর অবস্থা আশঙ্কাজনক বলে জানা গেছে। ঘটনাটি ঘটেছে শুক্রবার ভোরে শিমরাইল রিনালয় সিএনজি পাম্পের পেছনের রাস্তায়। এ ঘটনায় শুক্রবার রাত দশটায় শ্রাবন্তীর ভাই রাব্বি বাদী হয়ে সিদ্ধিরগঞ্জ থানায় মামলা দায়ের করেছেন বলে সিদ্ধিরগঞ্জ থানার ডিউটি অফিসার এএসআই নুরুল ইসলাম জানান।

আহত শ্রাবন্তীর ভাই রাব্বি সাংবাদিকদের জানান, ২০/২৫ দিন আগে মোহাম্মদ আলী (৩৫) ও বাড়িওয়ালা আলী মুদ্দিনের নাতি আবু বক্কর সিদ্দিক দু’গ্রুপে বিভক্ত হয়ে এলাকায় মারামারি করে। এ ঘটনার প্রত্যক্ষদর্শী ছিল শ্রাবন্তী। পরে স্থানীয়ভাবে মীমাংসার কথা থাকলেও এর কোন মীমাংসা হয়নি। তবে আহত শ্রাবন্তী প্রত্যক্ষদর্শী হয়ে মুরুব্বিদের কাছে মোহাম্মদ আলী গংয়ের বিরুদ্ধে সাক্ষ্য দেয়। এতে ক্ষিপ্ত হয়ে মোহাম্মদ আলী গং শ্রাবন্তীকে হত্যার চেষ্টা চালায়। বর্তমানে শ্রাবন্তীর অবস্থা আশঙ্কাজনক।