১০ ডিসেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

বৃহস্পতিবার দ্বিতীয় দফা ইউপি নির্বাচন

বৃহস্পতিবার দ্বিতীয় দফা ইউপি নির্বাচন

স্টাফ রিপোর্টার ॥ নির্বাচন আসন্ন হওয়ায় জনগণের দৃষ্টি এখন দ্বিতীয় দফায় ইউপি নির্বাচনের দিকে। আগামী বৃহস্পতিবার সারাদেশে প্রায় সাড়ে ৬শ’ ইউপিতে ভোটগ্রহণ করা হবে। কমিশন বলছে দ্বিতীয় দফায় যাতে কোন প্রকার সহিংসতার ঘটনা না ঘটে সে বিষয়ে ব্যবস্থা নিতে আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীকে কঠোর নির্দেশ দেয়া হয়েছে। দ্বিতীয় দফায় কেউ সহিংসতা চালালে বা নির্বাচনে অনিয়মের সঙ্গে জড়িত থাকলে শক্ত পদক্ষেপ নেয়া হবে। এদিকে দ্বিতীয় দফায় সুষ্ঠু ও শান্তিপূর্ণ পরিবেশে ভোটগ্রহণের জন্য কমিশন থেকে সার্বিক প্রস্তুতিও সম্পন্ন করা হয়েছে। আজ মধ্যরাত থেকে প্রার্থীদের সব ধরনের প্রচার, মিছিল সমাবেশ নিষিদ্ধ হয়ে যাচ্ছে। ভোর থেকেই আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী নির্বাচনী এলাকায় টহল শুরু করছে। এছাড়া যান্ত্রিক যান চলাচলের ওপর নিষেধাজ্ঞা দেয়া হয়েছে। নির্বাচনের ব্যালট পেপারসহ নির্বাচনী সরঞ্জাম সংশ্লিষ্ট নির্বাচনী এলাকায় পৌঁছানো হয়েছে। ভোটের আগের রাতে সংশ্লিষ্ট ভোট কেন্দ্রে এগুলো পৌঁছানো হবে।

নির্বাচন কমিশনের বাজেট ও মুদ্রণ শাখার উপসচিব মোঃ রকিব উদ্দীন ম-ল জানিয়েছেন, রবিবার ৪৭ জেলায় দ্বিতীয় ধাপের ইউপি নির্বাচনের উপকরণ পাঠানো হয়েছে। সংশ্লিষ্ট নির্বাচন কর্মকর্তারা সরকারী প্রিন্টিং প্রেস, সিকিউরিটি প্রিন্টিং প্রেস, বাংলাদেশ মেশিন টুলস ফ্যাক্টরি লিমিটেড ও আর্মি প্রিন্টিং প্রেস থেকে ব্যালট পেপার বুঝে নিয়েছেন। এছাড়া পশ্চিম আগারগাঁওয়ে ইসির গোডাউন থেকে সরবরাহ করা হয়েছেÑ বিভিন্ন প্রকারের সিল, স্ট্যাম্প, গালা, দড়ি, বস্তা ইত্যাদি উপকরণ।

কমিশন জানিয়েছে, দ্বিতীয় দফায় ভোটার রয়েছে ৯৪ লাখ ৭৮ হাজার ৮১ জন। এসব ভোটারের তিনগুণ ব্যালট ছাপানো হয়েছে। তবে ৩১ ইউপিতে আওয়ামী লীগের প্রার্থীরা বিনাপ্রতিদ্বন্দ্বিতায় নির্বাচিত হওয়ায় সংশ্লিষ্ট ইউপিতে চেয়ারম্যান পদে নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে না। তবে বাকি পদে নির্বাচনের জন্য ব্যালট পেপারসহ নির্বাচনী সরঞ্জাম পাঠানো হয়েছে। ইউপি নির্বাচনে চেয়ারম্যান পদের জন্য সাদা রঙের ব্যালট, সংরক্ষিত সদস্য পদের জন্য গোলাপি ও সাধারণ সদস্য পদের জন্য সবুজ রঙের ব্যালট পেপার ছাপানো হয়েছে।

ইসি মোঃ শাহনেওয়াজ সাংবাদিকদের জানিয়েছেন, পুলিশসহ আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীকে নির্দেশনা দেয়া হয়েছে নির্বাচনে কেউ অনিয়ম করার চেষ্টা করলে কঠোর ব্যবস্থা নিতে। কেউ যেন বাড়াবাড়ি করতে না পারে। কেউ বাড়াবাড়ি করলে তাদের বিরুদ্ধে মামলা করাসহ যা ব্যবস্থা নেয়ার তা সবাই নিতে বলা হয়েছে। এ ব্যাপারে আমরা কারও গাফিলতি বরদাস্ত করব না। তিনি জানান, ইউনিয়ন পরিষদ (ইউপি) নির্বাচনের প্রত্যেক দফায় প্রায় সমানসংখ্যক ইউপিতে নির্বাচন হচ্ছে। এ কারণে প্রথম দফাসহ অন্য সব দফায় আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর সংখ্যা প্রায় একই থাকছে। নির্বাচনে যারা আইনশৃঙ্খলা রক্ষার দায়িত্ব পালন করবেন তাদের আরও শক্ত হওয়ার নির্দেশ দেয়া হয়েছে। প্রথম পর্যায়ে শক্ত পদক্ষেপ নেয়া হয়েছে। দ্বিতীয় পর্যায়েও কেউ সন্ত্রাসী কার্যক্রম চালালে শক্ত পদক্ষেপ নেয়া হবে।

কমিশন জানিয়েছে, নির্বাচনে সংশ্লিষ্ট এলাকায় সোমবার থেকে মোটরসাইকেল চলাচলে নিষেধাজ্ঞা আরোপ করা হয়েছে। ভোটের দিন বৃহস্পতিবার রাত ১২টা পর্যন্ত এ নিষেধাজ্ঞা বলবত থাকবে। নির্বাচন উপলক্ষে অতীতে যেভাবে যান চলাচলের ওপর নিষেধাজ্ঞা আরোপ করা হয়েছিল এবারও সেভাবেই করা হয়েছে। এক্ষেত্রে ভোটগ্রহণের পূর্ববর্তী তিন দিন আগে থেকে ভোটের দিন মধ্যরাত ১২টা পর্যন্ত মোটরসাইকেল চালানোর ওপর নিষেধাজ্ঞা রাখতে সড়ক পরিবহন ও সেতু মন্ত্রণালয়কে বলা হয়েছে।

ইসির উপসচিব মোঃ সামসুল আলম স্বাক্ষরিত নির্দেশনায় বলা হয়েছেÑ ভোটের আগের দিন বুধবার মধ্যরাত থেকে বৃহস্পতিবার মধ্যরাত পর্যন্ত বেবিট্যাক্সি, অটোরিক্সা, ইজিবাইক, ট্যাক্সিক্যাব, মাইক্রোবাস, জিপ, পিকআপ, কার, বাস, ট্রাক, টেম্পো প্রভৃতি যানবাহন চলাচলে নিষেধাজ্ঞা আরোপ করা হয়েছে। সেই সঙ্গে ভোটগ্রহণের পূর্ববর্তী তিন দিন থেকে ভোটগ্রহণের দিন মধ্যরাত পর্যন্ত মোটরসাইকেল চলাচলের ওপর নিষেধাজ্ঞা বলবত থাকবে। তবে জরুরী সেবায় নিয়োজিত যানবাহনের ক্ষেত্রে নিষেধাজ্ঞা প্রযোজ্য নয়।

এছাড়া নিষেধাজ্ঞায় আরও বলা হয়েছে, ভোটের দিনের পূর্ববর্তী রাত অর্থাৎ বুধবার দিবাগত মধ্যরাত ১২টা থেকে ভোটগ্রহণের দিন বৃহস্পতিবার মধ্যরাত ১২টা পর্যন্ত লঞ্চ, ইঞ্জিনচালিত সকল ধরনের নৌযান ও স্পিডবোট চলাচল করতে পারবে না। তবে জনগণ বা ভোটারদের চলাচলের জন্য ক্ষুদ্র নৌযান চলাচল নিষেধাজ্ঞার বাইরে রাখতে বলা হয়েছে।

তৃতীয় দফায় মনোনয়নপত্র বাছাই আজ ॥ এদিকে তৃতীয় দফার প্রার্থীদের মনোনয়নপত্র আজ থেকে বাছাই করা হবে। আগামীকাল বাছাই শেষ হবে। কমিশন জানিয়েছে, বাচাইয়ে যাদের মনোনয়নপত্র বাতিল করা হবে তারা তিন দিনের মধ্যে আপীল কর্তৃপক্ষের কাছে আপীল করতে পারবেন। আগামী ২৩ এপ্রিল তৃতীয় দফায় নির্বাচনের দিন ধার্য করা হয়েছে। গত ২৭ মার্চ এ দফায় নির্বাচনের জন্য মনোনয়নপত্র জমার শেষ দিন ছিল। ছয় দফায় সারাদেশে চার হাজারের বেশি ইউপিতে ভোটগ্রহণের জন্য তফসিল ঘোষণা করা হয়েছে। এর মধ্যে প্রথম দফায় ভোটগ্রহণ সম্পন্ন হয়েছে। দ্বিতীয় দফায় আগামী বৃহস্পতিবার ভোটগ্রহণ করা হবে। এছাড়া বাকি দুই দফায় নির্বাচনের জন্য মনোনয়নপত্র জমা-বাছাই প্রক্রিয়া চলছে। বাকি আরও দুই দফায় এখনও সময়সূচী ঘোষণা করা হয়নি।