১৮ ডিসেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

তনুর লাশ তোলা হবে আজ ॥ মামলা যাচ্ছে সিআইডিতে

তনুর লাশ তোলা হবে আজ ॥ মামলা যাচ্ছে সিআইডিতে

মীর শাহ আলম, কুমিল্লা থেকে ॥ ডিএনএ পরীক্ষা, সুরতহাল প্রস্তুতসহ পুনঃময়নাতদন্তের জন্য কুমিল্লার মুরাদনগরের পারিবারিক কবরস্থান থেকে কলেজছাত্রী ও নাট্যকর্মী সোহাগী জাহান তনুর লাশ উত্তোলন করা হবে বুধবার। মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা জেলা গোয়েন্দা শাখার (ডিবি) ওসি একেএম মনজুর আলমের আবেদনের প্রেক্ষিতে তনুর লাশের পুনঃময়নাতদন্তের জন্য সোমবার কুমিল্লার অতিরিক্ত চীফ জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট জয়নাব বেগম এ আদেশ দেন। মামলা তদন্ত কাজে সহায়তার জন্য অপরাধ তদন্ত বিভাগ (সিআইডি) কুমিল্লার বিশেষ পুলিশ সুপার ড. নাজমুল করিম খানের নেতৃত্বে একটি দল মঙ্গলবার তনু হত্যার ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন। মঙ্গলবার বিকেলে জানা গেছে, মামলাটির তদন্তভার সিআইডির কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে। এদিকে তনু হত্যার বিচারের দাবিতে কুমিল্লা মহানগরসহ জেলার বিভিন্ন স্থানে নবম দিনেও শিক্ষার্থী-জনতার প্রতিবাদ, বিক্ষোভ ও মানববন্ধন কর্মসূচী পালিত হয়।

জানা যায়, কলেজছাত্রী ও নাট্যকর্মী সোহাগী জাহান তনু হত্যার পর তার পিতা কুমিল্লা ক্যান্টনমেন্ট বোর্ডের অফিস সহায়ক ইয়ার হোসেন বাদী হয়ে গত ২১ মার্চ অজ্ঞাতনামা আসামিদের বিরুদ্ধে কুমিল্লা কোতয়ালি মডেল থানায় হত্যা মামলা দায়ের করেন। প্রথমে মামলাটি তদন্ত করেন কোতয়ালি মডেল থানাধীন ক্যান্টনমেন্ট পুলিশ ফাঁড়ির এসআই সাইফুল ইসলাম। পরে মামলাটি গত ২৫ মার্চ রাতে জেলা গোয়েন্দা শাখায় (ডিবি) হস্তান্তর করা হয়। মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা ডিবি’র ওসি একেএম মনজুর আলম গত সোমবার (২৮ মার্চ) কুমিল্লার অতিরিক্ত চীফ জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেটের আদালতে ভিকটিম সোহাগী জাহান তনুর মৃতদেহে জখম শনাক্ত, মৃতদেহ থেকে ডিএনএ নমুনা-আলামত সংগ্রহ করে বিশেষজ্ঞ দ্বারা পরীক্ষা ও সুরতহাল রিপোর্ট প্রস্তুতসহ মামলার সুষ্ঠু তদন্তের স্বার্থে কবর থেকে পুনরায় তনুর লাশ উত্তোলনের জন্য আদালতে আবেদন করেন। এ আবেদনের প্রেক্ষিতে আদালত কবর থেকে তনুর লাশ উত্তোলনের আদেশ দেয়। এর প্রেক্ষিতে কুমিল্লার জেলা প্রশাসক মোঃ হাসানুজ্জামান কল্লোল লাশ উত্তোলনের জন্য প্রথম শ্রেণীর নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট হিসেবে সদর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা লুৎফুন নাহারকে নিয়োগ করেন। সূত্র জানায়, নিয়োগপ্রাপ্ত নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট, পুলিশ, ফরেনসিক বিভাগের লোকজনসহ সংশ্লিষ্টরা বুধবার সকালে জেলার মুরাদনগর উপজেলার বাঙ্গরা পশ্চিম ইউনিয়নের মীর্জাপুর গ্রামে যাবেন। সেখানে পারিবারিক কবরস্থানে সমাহিত তনুর লাশ পুনরায় উত্তোলন করবেন। এদিকে লাশ উত্তোলনের আগে থেকেই কবরস্থান এলাকায় পুলিশী পাহারা বসানো হয়। ঘটনার ৯ দিন অতিবাহিত হলেও তনু হত্যার কোন রহস্য উদঘাটন, আসামি শনাক্তকরণ কিংবা গ্রেফতার না হওয়ায় অন্যান্য দিনের ন্যায় মঙ্গলবারও কুমিল্লা মহানগরীর কান্দিরপাড় পুবালী চত্বর, কুমিল্লা ভিক্টোরিয়া সরকারী কলেজের ডিগ্রী শাখাসহ বিভিন্ন স্থানে বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানের শিক্ষার্থীরা ক্লাস বর্জন করে বিক্ষোভ ও মানববন্ধন করে। তবে তনু হত্যার রহস্য উদঘাটনে পুলিশ, র‌্যাবের পাশাপাশি একাধিক গোয়েন্দা সংস্থা মাঠে কাজ করছে। এ লক্ষ্যে মঙ্গলবার সিআইডি-কুমিল্লার বিশেষ পুলিশ সুপার ড. নাজমুল করিম খানের নেতৃত্বে পুলিশের একটি দল ঘটনাস্থল পরিদর্শন করে। এ সময় কুমিল্লার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (উত্তর) মোঃ আলী আশরাফ ভূইয়া, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (দক্ষিণ) মোঃ আবদুল্লাহ আল-মামুন ও মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা জেলা ডিবি’র ওসি একেএম মনজুর আলমসহ অন্যরা উপস্থিত ছিলেন। এ বিষয়ে সিআইডি-কুমিল্লার বিশেষ পুলিশ সুপার ড. নাজমুল করিম খান সাংবাদিকদের জানান, তনু হত্যার রহস্য উদঘাটনে আমরা সহযোগিতা করে যাচ্ছি। এ লক্ষ্যে ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছি। সন্ধ্যায় ডিবির ওসি জানান, মামলাটি স্থানান্তরের জন্য আদেশ দেয়া হয়েছে।

উল্লেখ্য, গত ২০ মার্চ রাতে কুমিল্লা ক্যান্টনমেন্ট উচ্চ বালিকা বিদ্যালয়ের অদূরে পাওয়ার হাউস এলাকার কালা ট্যাংকি সংলগ্ন জঙ্গল থেকে কলেজছাত্রী তনুর লাশ উদ্ধার করা হয়।

এই মাত্রা পাওয়া