১৪ ডিসেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

মিয়ামি ওপেন থেকে সেরেনার বিদায়

মিয়ামি ওপেন থেকে সেরেনার বিদায়
  • দুর্বার কারবার-আজারেঙ্কা-হ্যালেপ শেষ আটে

স্পোর্টস রিপোর্টার ॥ বছরটা ভাল যাচ্ছে না বিশ্বসেরা টেনিস তারকার। এক নম্বর টেনিস সেনসেশন সেরেনা উইলিয়ামস বছরের প্রথম গ্র্যান্ডসøাম আসর অস্ট্রেলিয়ান ওপেন এবং এরপর ইন্ডিয়ান ওয়েলসে ব্যর্থ হয়েছেন তিনি। এবার মিয়ামি ওপেন থেকেও আগে ভাগে বিদায় নিলেন ৩৪ বছর বয়সী এ কৃষ্ণ তারকা। অবশ্য পরাজয়ের পর সেরেনা তার প্রতিক্রিয়ায় দাবি করেছেন প্রতি ম্যাচ জেতা সম্ভব নয় কারও পক্ষে। তিনি মনে করেন নিজের সামর্থ্যরে ৩০০ ভাগ দিয়ে লড়তে হবে সব ম্যাচ জেতার জন্য। সেরেনা ছাড়াও চতুর্থ রাউন্ড থেকে বিদায় নিয়েছেন তিন নম্বর বাছাই পোল্যান্ডের এ্যাগ্নিয়েস্কা রাদওয়ানস্কা ও চার নম্বর বাছাই স্পেনের গারবিন মুগুরুজা। কিন্তু দুর্বার বেগে এগিয়ে চলেছেন দুই নম্বর বাছাই এ্যাঞ্জেলিক কারবার, ১৩ নম্বর বাছাই বেলারুশের ভিক্টোরিয়া আজারেঙ্কা ও ৫ নম্বর বাছাই রোমানিয়ার সিমোনা হ্যালেপ। এরা উঠেছেন কোয়ার্টার ফাইনালে।

মিয়ামি ওপেনে টানা ২০ ম্যাচ জয়ের একটি রেকর্ড ছিল সেরেনার। গত তিনবারের চ্যাম্পিয়ন তিনি এ টুর্নামেন্টের। তবে চলতি বছরের শুরু থেকেই যেন নিজেকে হারিয়ে ফেলেছেন সেরেনা। সেটার শুরু হয়েছিল গত বছরের শেষদিকে ইউএস ওপেন দিয়েই। শিরোপা হাতছাড়া হওয়ার পর নতুন বছরের শুরুতে অসি ওপেনে চ্যাম্পিয়ন হয়ে ফিরতে চেয়েছিলেন। কিন্তু সেটাও হয়নি। চার গ্র্যান্ডসøামের বাইরে অন্যতম সেরা টুর্নামেন্ট হিসেবে বিবেচিত ইন্ডিয়ান ওয়েলসেও ব্যর্থ হয়েছেন ফাইনালে আজারেঙ্কার কাছে হেরে। এবার মিয়ামি ওপেনেরও চতুর্থ রাউন্ড থেকেই বিদায় নিতে হলো। হেরে গেছেন ১৫ নম্বর বাছাই রাশিয়ার সভেতলনা কুজনেতসোভার কাছে। ২ ঘণ্টা ২ মিনিটের দীর্ঘ লড়াইয়ে সেরেনার ভুলের সংখ্যা এতটাই বেশি ছিল যে পরাজয়টাই স্বাভাবিক। সবমিলিয়ে ৫৫ আনফোর্সড এরর, ৯ ডাবল ফল্ট তার জন্য কাল হয়ে গেছে। শেষ পর্যন্ত সেরেনা পরাজয় স্বীকার করেন ৬-৭ (৩-৭), ৬-১, ৬-২ সেটে। হারের পর সেরেনা বলেন, ‘আমি আমার সেরাটা দেয়ার চেষ্টা করেছি। আমি সব ম্যাচ জিততে পারি না। খেলোয়াড়রা বেরিয়ে আসছে এবং এমনভাবে খেলছে যেন এর আগে তাদের জীবনে আর কোন ম্যাচ খেলেনি। সে কারণে প্রতিদিন আমাকে ৩০০ ভাগ দিয়ে খেলতে হয়। সেটাই বড় হতাশার বিষয়। তবে আমি এখানে অনেক জিতেছি, সুতরাং এটা বিষয় না।’ বয়সটা কি তবে এবার প্রভাব ফেলতে শুরু করেছে সেরেনার ওপর? শারীরিক শক্তি-সামর্থ্যও বুঝি কমে গেল। কিন্তু সেরেনা বললেন, ‘আমি মনে করি না এই মুহূর্তে আমার শারীরিক গতিপ্রকৃতি নিয়ে কথা বলাটা সমীচীন হবে। শারীরিকভাবে আমি এখনও দারুণ অবস্থায় আছি।’ বিদায় নিয়েছেন তিন নম্বর বাছাই রাদওয়ানস্কাও। পোলিশ সুন্দরী হেরে গেছেন সুইজারল্যান্ডের টিমিয়া ব্যাকসিনস্কির কাছে ২-৬, ৬-৪, ৬-২ সেটে। ১২ নম্বর বাছাই ইউক্রেনের এলিনা ভিতোলিনাও হেরে গেছেন। তাকে ৬-১, ৬-৪ সেটে হারিয়ে কোয়ার্টার ফাইনালে উঠেছেন রাশিয়ান তারকা একাতেরিনা মাকারোভা। তবে দুর্বার গতিতে এগিয়ে চলেছেন দুই নম্বর বাছাই কারবার। তিনি হাঙ্গেরির টিমিয়া বাবোসকে ৬-২, ৩-৬ ও ৬-৪ সেটে হারিয়ে শেষ আটে পা রেখেছেন। রোমান তারকা হ্যালেপের কাছেও পাত্তা পাননি ব্রিটেনের প্রতিদ্বন্দ্বী হিদার ওয়াটসন। ৫ নম্বর বাছাই হ্যালেপ জিতেছেন ৬-৩, ৬-৪ সেটে। চতুর্থ রাউন্ডে সবচেয়ে আকর্ষণীয় ম্যাচটি হয়েছে ফর্মের তুঙ্গে থাকা ১৩ নম্বর বাছাই আজারেঙ্কা ও স্প্যানিশ তারকা মুগুরুজার মধ্যে।