২০ অক্টোবর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

এ্যাপলের সহায়তা ছাড়াই ফারুকের আইফোন খুলল এফবিআই

  • ব্যক্তিগত গোপনীয়তার ওপর ব্যাপক প্রভাব পড়তে পারে

প্রযুক্তি পণ্য নির্মাতা প্রতিষ্ঠান এ্যাপলের সহায়তা ছাড়াই যুক্তরাষ্ট্রের ক্যালিফোর্নিয়া অঙ্গরাজ্যের সান বারনারডিনো বন্দুকধারী সৈয়দ রিজওয়ান ফারুকের আইফোন খুলেছে দেশটির গোয়েন্দা সংস্থা এফবিআই। মার্কিন বিচার দফতর জানিয়েছে এ্যাপলের দায়ের করা মামলাও খারিজ করে দেয়া হয়েছে। খবর এএফপি ও বিবিসির।

রিজওয়ানের আইফোনের তথ্য যাতে এফবিআই হাতে পায় সেজন্য নতুন সফটওয়্যার চালু করতে গত মাসে একটি আদেশ দিয়েছিল আদালত। ওই আদেশের বিরুদ্ধে আইনি লড়াইয়ে ছিল টেক জায়ান্ট এ্যাপল। ডিজিটাল নিরাপত্তা ও ব্যক্তিগত গোপনীয়তার ওপর ব্যাপক প্রভাব পড়তে পারে, এমন যুক্তি দেখিয়ে ফারুকের আইফোন খুলতে মার্কিন সরকারকে সহায়তার প্রবল বিরোধিতা করেছিল এ্যাপল। এই স্পর্শকাতর মামলায় উভয় পক্ষের যুক্তি শুনতে চলতি মাসের প্রথম দিকে আদালতে শুনানির তারিখ ছিল। কিন্তু এফবিআই বলেছে, ফোনটি খুলতে এ্যাপলের আর সহায়তার প্রয়োজন নেই এবং একটি তৃতীয় পক্ষ পাওয়া গেছে, তখন ওই শুনানি বাতিল করে দেয়া হয়। এফবিআই কর্মকর্তারা সোমবার বলেছেন, তারা নিজেরাই ফোন খুলতে পেরেছেন এবং ওই আদেশ প্রত্যাহারের আবেদন জানান। ফারুক ও তার স্ত্রী তাশফিন মালিক গত বছরের ডিসেম্বরে সান বারনারডিনোতে এক হামলা চালিয়ে ১৪ জনকে হত্যা করেন। পরে তারা পুলিশের গুলিতে নিহত হন। হামলার পরে তাদের ফোনগুলো ভাঙ্গা অবস্থায় পাওয়া যায়। গত সপ্তাহে প্রসিকিউটররা বলেছিলেন, বাইরের একটি পক্ষ এ্যাপলের সহায়তা ছাড়াই আইফোনটি খোলার একটি সম্ভাব্য উপায় খুঁজে পেয়েছে। এ্যাপল বলেছিল, তারা জানে না কিভাবে ফোনটি খোলা হবে। আইফোনের নিরাপত্তার কোন ঘাটতি পাওয়া গেলে সরকার বিষয়টি তাদের নজরে আনবে। ক্যালিফোর্নিয়ার শীর্ষ ফেডারেল প্রসিকিউটর এলিন ডেকার সোমবার এক বিবৃতিতে বলেছেন, তদন্তকারীরা তৃতীয় পক্ষের সহায়তায় আইফোনটি খুলেছে। তবে এই তৃতীয় পক্ষ কারা সে বিষয়ে বিস্তারিত কিছু জানাননি তিনি। সংবাদ প্রতিবেদনে জানা গেছে, এফবিআই হয়ত ইসরাইলী ফরেনসিক কোম্পানির সহায়তা চেয়েছে। গত সপ্তাহে ইসরাইলী এক সংবাদপত্র জানিয়েছিল, সাইবার সিকিউরিটি প্রতিষ্ঠান ‘সেলিব্রেইট’-এর ডেটা ফরেনসিক বিশেষজ্ঞরা এফবিআইয়ের সঙ্গে কাজ করছে।