২৪ সেপ্টেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

ভোলার রাজাপুর ও ইলিশায় সংর্ঘষ ॥ আহত ৩৫

নিজস্ব সংবাদদাতা, ভোলা ॥ দ্বিতীয় দফা ইউনিয়ন পরিষদের নির্বাচন নিয়ে ভোলা সদরের রাজাপুর ইউনিয়নে প্রার্থীদের মধ্যে চরম উত্তেজনা বিরাজ করছে। বুধবার সকালে রাজাপুরের জনতা বাজারে আওয়ামী লীগের বিদ্রোহী চেয়ারম্যান প্রার্থী রেজাউল হক মিঠু চৌধুরী এবং মেম্বার প্রার্থী ইমাম হাসান চৌকিদার ও আবদুস সালাম গ্রুপের সর্মথকরা এক হয়ে আওয়ামী লীগের চেয়ারম্যান প্রার্থী মিজানুর রহমান খানের কর্মী সর্মথকদের উপর অর্তকিত হামলা চালিয়েছে। এসময় উভয় পক্ষের মধ্যে ব্যাপক সংর্ঘষ ধাওয়া পাল্টা ধাওয়া ইটপাটকেল নিক্ষেপের ঘটনা ঘটেছে। এছাড়াও পূর্ব ইলিশা ইউনিয়নের মাদ্রাসার হাট এলাকায় মেম্বার প্রার্থী কামাল ও তোফাজ্জল হোসেন পাটোয়ারির মধ্যে মঙ্গলবার রাতে ব্যাপক সংর্ঘষ হয়। পৃথক দুটি সংর্ঘষের ঘটনায় অন্তত ৩৫ জন আহত হয়েছে।

স্থানীয়রা জানিয়েছে, মঙ্গলবার সন্ধ্যায় রাজাপুর ইউনিয়নের আওয়ামী লীগের বিদ্রোহী চেয়ারম্যান প্রার্থী জনতা বাজারে শেষ নির্বাচনী প্রচারনা চালায়। আওয়ামী লীগের চেয়ারম্যান প্রার্থী মিজানুর রহমানের কর্মীরা অভিযোগ করে বলেন, বিদ্রোহী প্রার্থীর কর্মীরা তাদের একটি নির্বাচনী অফিস ও একটি বাড়ির বেড়ায় অগ্নি সংযোগ করা হয়। এ সময় ওই বাজারের একটি ঔষদের দোকানে হামলা চালিয়ে ভাংচুর করা হয় । এ ঘটনাকে কেন্দ্র করে রাতে ওই বাজারে আওয়ামী লীগের কর্মীদের মধ্যে উত্তেজনা সৃষ্টি হয় এবং তারা বিক্ষোভ করে। এদিকে বুধবার সকালে জনতা বাজারে আওয়ামী লীগের চেয়ারম্যান প্রার্থী মিজানুর রহমানের লোকজন হোটেলে নাস্তা করতে বসলে তাদের উপর অর্তকিত ভাবে আওয়ামী লীগের বিদ্রোহী চেয়ারম্যান প্রার্থী রেজাউল হক মিঠু চৌধুরী এবং মেম্বার প্রার্থী ইমাম হাসান চৌকিদার ও আবদুস সালাম গ্রুপের সর্মথকরা এক হয়ে হামলা চালিয়ে কুপিয়ে ও পিটিয়ে তান্ডব চালায়। ওই সময় আওয়ামী লীগ প্রার্থীর কর্মীদের ২টি মটরসাইকেল নিয়ে যাওয়া হয় বলে অভিযোগ করা হয়। অপর দিকে বিদ্রোহী প্রার্থী রেজাউল হক মিঠু তার বিরুদ্ধে অভিযোগ অস্বীকার করে বলেন, তারা আওয়ামী লীগের নির্বাচনী অফিস ভাংচুর করেনি বলে দাবী করেন।

ভোলা থানার ওসি খায়রুল কবির জানান, মঙ্গলবার সন্ধ্যায় জনতা বাজারে আওয়ামী লীগের নির্বাচনী অফিস ভাংচুরের ঘটনায় একটি মামলা দায়ের করা হয়েছে। সন্দেহ ভাজন ২ জনকে আটক করা হয়েছে। এছাড়া বর্তমানে রাজাপুরে পরিস্থিতি শান্ত রয়েছে। হামলা সংর্ঘষের ঘটনায় কোন মামলা করা হয়নি।

নির্বাচিত সংবাদ