২৪ সেপ্টেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

প্রধানমন্ত্রীর অধীনেই ২০১৯ সালের জাতীয় নির্বাচন ॥ স্বাস্থ্যমন্ত্রী

স্টাফ রিপোর্টার ॥ স্বাস্থ্যমন্ত্রী মোহাম্মদ নাসিম বলেছেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বিহীন নির্বাচন বিএনপি চেয়ারপার্সন বেগম খালেদা জিয়ার আকাশ কুসুম কল্পনা। ‘আমরা আগামীতে শেখ হাসিনা বিহীন নির্বাচন করব’ বেগম খালেদা জিয়ার এমন বক্তব্যের জবাবে তিনি বলেন, সংবিধানে কি লেখা আছে, তা পড়ে দেখেন। সমগ্র উন্নত বিশ্বে যে ভাবে নির্বাচন হয় বাংলাদেশেও ঠিক একই ভাবে নির্বাচন হবে। আগামী জাতীয় সংসদ নির্বাচন ২০১৯ সালে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার অধিনেই অনুষ্ঠিত হবে।

বুধবার সরকারী হোমিওপ্যাথিক মেডিকেল কলেজ ও হাসপাতাল এর ২৫তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী (সিলভার জুবলী) ও ২য় পূণর্মিলনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে স্বাস্থ্যমন্ত্রী এ কথা বলেন। পূর্ণমিলনী কমিটির আহবায়ক ডা. ইমরুল কায়েসের সভাপতিত্বে সভায় স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের মহাপরিচালক অধ্যাপক ডা. দীন মো. নুরুল হক, হোমিওপ্যাথিক বোর্ডের চেয়ারম্যান ডা. দিলীপ কুমার রায়, স্বাধীনতা চিকিৎসক পরিষদের(স্বাচিপ) মহাসচিব অধ্যাপক ডা. এম এ আজিজ প্রমুখ বক্তব্য রাখেন।

গণতন্ত্র ও উন্নয়নের ধারাবাহিকতা বজায় রাখার উপর গুরুত্বারোপ করে আওয়ামীলীগের উপদেষ্টা মন্ডলীর সদস্য মোহাম্মদ নাসিম বলেন, বঙ্গবন্ধু কন্যা শেখ হাসিনা টানা দ্বিতীয় মেয়াদে ক্ষমতায় আছেন বলেই দেশের সব খাতে পরিবর্তন হচ্ছে। দেশ ও জাতির উন্নয়নের স্বার্থে শেখ হাসিনার কোন বিকল্প নেই। এটা দেশবাসীর কাছে এখন স্পষ্ট হয়ে গেছে। এ কারণে শুধু ২০১৯ সালের নির্বাচন নয়, ২০২৪ সালের নির্বাচনেও জনগণের ম্যান্ডেট নিয়ে আওয়ামী লীগ ক্ষমতায় আসবে বলে তিনি আশাবাদ ব্যক্ত করেন।

দলীয় নেতাকর্মীসহ দেশের মানুষকে ঐক্যবদ্ধ হবার আহবান জানিয়ে মোহাম্মদ নাসিম বলেন, এখনও দেশ, গণতন্ত্র ও রাষ্ট্র বিরোধী ষড়যন্ত্র অব্যহত রয়েছে। সবাইকে মনে রাখতে হবে জাতির পিতা যখন স্বাধীনতার পর দেশ পুনর্গঠনে সফল হচ্ছিলেন, তখন স্বাধীনতা বিরোধীরা চক্রান্ত করে তাকে স্বপরিবারে হত্যা করে। আজ শেখ হাসিনার নেতৃত্বে দেশ যখন এগিয়ে যাচ্ছে তখন আবারও দেশের উন্নয়কে নস্যাৎ করার চক্রান্ত চলছে।

মোহাম্মদ নাসিম বলেন, ‘শেখ হাসিনা হেলথ কেয়ার’ কর্মসূচির সফল বাস্তবায়নের মধ্যদিয়ে চিকিৎসার জন্য গরীবদের সর্বশান্ত হওয়া প্রতিরোধে সরকার অঙ্গীকার বদ্ধ। এই কর্মসূচির মাধ্যমে প্রাথমিক ভাবে স্বাস্থ্য কার্ড বিতরনের পাইলট প্রকল্পের সাফল্যের পর পর্যায় ক্রমে তা সারা দেশের গ্রাম-গঞ্জে ছড়িয়ে দেওয়া হবে বলেও জানান স্বাস্থ্যমন্ত্রী।

নির্বাচিত সংবাদ