২৩ সেপ্টেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

মিয়ামি থেকে সিমোনার বিদায়

  • শেষ ষোলোতে জোকোভিচ-নিশিকোরি

স্পোর্টস রিপোর্টার ॥ মিয়ামি ওপেনের কোয়ার্টার ফাইনাল থেকেই ছিটকে পড়েছেন সিমোনা হ্যালেপ। মঙ্গলবার শেষ আটের লড়াইয়ে তিমিয়া বাসিনস্কির কাছে ৪-৬, ৬-৩ এবং ৬-২ সেটে হার মানেন রোমানিয়ার পঞ্চম বাছাই হ্যালেপ। পুরুষ এককে জয়ের ধারাবাহিকতা ধরে রেখেছেন টুর্নামেন্টের শীর্ষ বাছাই নোভাক জোকোভিচ, কেই নিশিকোরি, টমাস বার্দিচ এবং ডেভিড গফিনের মতো তারকারা। তবে শেষ ষোলো থেকেই ছিটকে পড়েছেন বুলগেরিয়ার গ্রিগর দিমিত্রোভ।

মিয়ামি ওপেনে শীর্ষ পঞ্চম বাছাই হিসেবে খেলতে নেমেছিলেন সিমোনা হ্যালেপ। যে কারণে স্বাভাবিকভাবেই ফেবারিট ছিলেন তিনি। আর টিমিয়া বাসিনস্কির বিপক্ষে শুরুটাও করেছিলেন দারুণভাবে। প্রথম সেটে হ্যালেপ ৬-৪ গেমে পরাজিত করেন প্রতিপক্ষকে। কিন্তু প্রথম সেট হেরেও হতাশ হননি টিমিয়া বাসিনস্কি। বরং হারের পর যেন অপ্রতিরোধ্য হয়ে উঠেন সুইস টেনিস তারকা। টেনিস কোর্টে শীর্ষ পাঁচে থাকা দ্বিতীয় খেলোয়াড়কে হারালেন বাসিনস্কি। সেই সঙ্গে প্রথমবারের মতো মিয়ামি ওপেনের শেষ চারের টিকেট নিশ্চিত করলেন।

তাই স্বাভাবিকভাবেই রোমাঞ্চিত টিমিয়া বাসিনস্কি। এ বিষয়ে ম্যাচ শেষে সুইজারল্যান্ডের এই টেনিস তারকা বলেন, ‘দীর্ঘ পথ পাড়ি দিয়েই আমি ফিরে এসেছি। তাছাড়া প্রথম সেটটা বেশ কষ্টের ছিল। খেলোয়াড় হিসেবে সে অসাধারণ। এমনকি একজন যোদ্ধা হিসেবেও দুর্দান্ত সে। গত বছর তিনি আমার কাছে অনুপ্রেরণা ছিলেন। আমি কঠোর পরিশ্রমে বিশ্বাস করি আর আমার কাছে মনে হয় তিনি খুবই পরিশ্রমী একজন খেলোয়াড়। তার বিপক্ষে খেলা এবং জয় ছিনিয়ে আনার অনুভূতিটা সত্যিই বিস্ময়কর। এই জয়ে আমি খুবই আনন্দিত।’

পুরুষ এককের বর্তমান চ্যাম্পিয়ন নোভাক জোকোভিচ কঠিন লড়াইয়ে হারিয়েছেন অস্ট্রেলিয়ার অখ্যাত খেলোয়াড় ডমিনিক থিয়েমকে। টুর্নামেন্টের শীর্ষ বাছাই জোকোভিচ এদিন ৬-৩ এবং ৬-৪ সেটে পরাজিত করেছেন প্রতিপক্ষকে। ম্যাচটা যে কঠিন ছিল তা নিজের মুখেই স্বীকার করেছেন সার্বিয়ান এই টেনিস তারকা। এ বিষয়ে তিনি বলেন, ‘সরাসরি সেটে জেতাটা খুব সহজ ছিল না। কারণ এটা ছিল বেশ কঠিন একটা ম্যাচ।’ শুধু তাই নয় এই ম্যাচ জিততে নিজের ভাগ্যও কাজ করেছে বলে মনে করেন তিনি। এ বিষয়ে বিশ্ব টেনিস র‌্যাঙ্কিংয়ের নাম্বার ওয়ান তারকা বলেন, ‘দ্বিতীয় সেটে তো আমার ভাগ্যই সহায় ছিল। যখন প্রয়োজন ছিল তখনই আমি কঠিন হয়ে দাঁড়িয়েছিলাম। গুরুত্বপূর্ণ মুহূর্তে আমি প্রতিপক্ষকে খেলানোর চেষ্টা করেছি এবং তাকে যথেষ্ট দৌড়ানোর চেষ্টাও করেছি।’

টেনিস কোর্টে জোকোভিচের সময়টা এখন দারুণ কাটছে। চলতি বছরের প্রথম গ্র্যান্ডসøাম টুর্নামেন্ট অস্ট্রেলিয়ান ওপেনে জিতেছেন ক্যারিয়ারের ১১তম মেজর শিরোপা। শুধু তাই নয়, দুই মাস আগে অস্ট্রেলিয়ান ওপেন জয়ের পর দোহা ও ইন্ডিয়ান ওয়েলসেও চ্যাম্পিয়ন হয়েছেন তিনি। গত দুই বছর ধরেই মিয়ামি ওপেন ও ইন্ডিয়ান ওয়েলসের চ্যাম্পিয়ন হয়েছেন জোকোভিচ। যে কারণে অতীত পরিসংখ্যান বলে এবারও শিরোপা উঠবে জোকোভিচের হাতে। আর এবার মিয়ামি ওপেনে চ্যাম্পিয়ন হতে পারলে নতুন এক রেকর্ডও গড়তে পারবেন তিনি। টেনিসের কিংবদন্তি আন্দ্রে আগাসির রেকর্ড ষষ্ঠ মিয়ামি ওপেন জয়ের রেকর্ডে ভাগ বসাবেন টেনিস র‌্যাঙ্কিংয়ের নাম্বার ওয়ান তারকা। মিয়ামি ওপেনের কোয়ার্টার ফাইনালে জোকোভিচ খেলবেন টমাস বার্ডিচের বিপক্ষে। চেকপ্রজাতন্ত্রের সপ্তম বাছাই বার্ডিচ শেষ ষোলোতে ৬-৪, ৩-৬ এবং ৭-৫ সেটে হারিয়েছেন ফ্রান্সের রিচার্ড গ্যাসকুয়েটকে। জোকোভিচের বিপক্ষে ২৪ বার মোকাবেলায় মাত্র দুটিতে জয় পেয়েছেন বার্দিচ। শুধু তাই নয়, শেষ নয়বারের মুখোমুখি লড়াইয়ে সবকটিতেই হেরেছেন তিনি। যে কারণে এবারও মিয়ামি ওপেনে ফেবারিট জোকোভিচ। এছাড়া দারুণ জয়ে টুর্নামেন্টের শেষ ষোলোতে জায়গা করে নিয়েছেন বেলজিয়ামের ডেভিড গফিন এবং জাপানের কেই নিশিকোরি।