২১ নভেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

কাজে অনুপস্থিত থেকে বেতন নেয়ার অভিযোগ এক কর্মকর্তার বিরুদ্ধে

  • আইসিডিডিআরবি

স্টাফ রিপোর্টার ॥ ছুটি নেয়া হয়নি, কিন্তু কর্মস্থলে নেই। নিয়মিত বেতন, ভাতা ও অন্যান্য সুবিধাসমূহ ভোগ করছেন। অবস্থান করছেন আয়ার‌্যান্ডে। কর্মস্থলে অনুপস্থিত তিন মাস ধরে। প্রতিমাসে তুলে নিচ্ছেন ২১ হাজার মার্কিন ডলারের বেশি বেতন। প্রতিষ্ঠানের স্টাফ রুলে বাড়িতে বসে কাজ করার কোন নীতিমালা নেই।

আইসিডিডিআরবির মানবসম্পদ পরিচালক ক্রিস্টিন ডেনহির বিরুদ্ধে এমন অভিযোগ তুলেছেন ওই প্রতিষ্ঠানের বিজ্ঞানী, কর্মকর্তা ও কর্মচারীরা। তবে পরিচালক ক্রিস্টিন ডেনহি কর্তৃপক্ষের অনুমোদিত ছুটিতে আছেন বলে দাবি করেছে আইসিডিডিআরবি কর্তৃপক্ষ। মানবসম্পদ পরিচালকের ছুটি ও পুরো বেতন ভোগের বিষয়ে আইসিডিডিআরবির বিজ্ঞানী, কর্মকর্তা ও কর্মচারীরা অভিযোগ করেছেন, প্রতিষ্ঠান থেকে যাওয়ার আগে ক্রিস্টিন ডেনহি ছুটির জন্য আবেদন করে যানটি। আর নিজ দেশ আয়ারল্যান্ড থেকেও অনলাইনেও ছুটির আবেদন ফরম পূরণ করেননি। তার চিকিৎসকের দেয়া প্রেসক্রিপশনে শুধুমাত্র অবসাদজনিত মানসিক অশান্তির কথা উল্লেখ রয়েছে। সেখানে ‘ বেড রেস্ট’ এর কথা বলা হয়নি। এমন অবস্থায় তিনি অসুস্থতার কথা বলে ছুটিও নিতে পারেন না। আয়ারল্যান্ডে যাওয়ার সময় তিনি মানবসম্পদ বিভাগের প্রধান মোঃ মোশারফ হোসেনকে দায়িত্ব বুঝিয়ে দিয়ে গিয়েছিলেন। কিন্তু পরক্ষণেই ওই দায়িত্ব চীফ অপারেটিং অফিসার কেড়ে নিয়েছেন বলে দাবি করেছেন আইসিডিডিআরবির বিজ্ঞানী, কর্মকর্তা ও কর্মচারীরা। এদিকে, আইসিডিডিআরবির মানবসম্পদ পরিচালক পদে ক্রিস্টিন ডেনহি কোন ক্ষমতা বলে বহালে আছেন এবং একইসঙ্গে তাকে উক্ত পদ ছেড়ে দিতে কেন নির্দেশ দেয়া হবে না তাও জানতে চেয়ে ইতোমধ্যে গত ২০১৫ সালের ১৩ ডিসেম্বর হাইকোর্টের বিচারপতি মঈনুল ইসলাম চৌধুরী ও বিচারপতি আশরাফুল কামালের সমন্বয়ে গঠিত বেঞ্চ রুল জারি করেন। আইসিডিডিআরবির কর্মী ও মঙ্গল সংস্থার সভাপতি ডাঃ আজহারুল ইসলাম খান ও সাধারণ সম্পাদক ডাঃ ফিরোজ আহমেদ বাদী হয়ে গত ৬ ডিসেম্বর হাইকোর্টে একটি রিট পিটিশন দায়ের করেন। আর রিটের শুনানি করে হাইকোর্ট রুল জারি করে। কর্মী ও মঙ্গল সংস্থার পক্ষে মামলাটি পরিচালনা করেন ডাঃ শাহদীন মালিক ও এ্যাডভোকেট মনজুর আলম। রুল জারির পর ২০১৫ সালের ১৬ ডিসেম্বর ক্রিস্টিন ডেনহি বাংলাদেশ ত্যাগ করে আয়ারল্যান্ড চলে যান। তিনি এখন পর্যন্ত বাংলাদেশে ফিরে আসেননি। কর্মী মঙ্গল সংস্থার ব্যানারে তারা চীফ অপারেটিং অফিসার (সিওও) পদের বিলুপ্তিসহ নয় দফা দাবি পূরণের দাবিতে আন্দোলন চালিয়ে আসছেন ওই প্রতিষ্ঠানের বিজ্ঞানী, কর্মকর্তা ও কর্মচারীরা। প্রতিষ্ঠানের জনবল, মান ও সম্মান উপেক্ষা করে নিজেদের স্বার্থ হাসিলে একটি স্বার্থবাদী চক্র তৎপর হয়ে পড়েছে ।

আন্দোলনের ৯ দফা দাবি তুলে ধরে আইসিডিডিআরবির বিজ্ঞানী, কর্মকর্তা ও কর্মচারীরা জানান, আইসিডিডিআরবির বিজ্ঞানী, কর্মকর্তা ও কর্মচারীদের স্বার্থে নয়, জাতীয় ও আন্তর্জাতিক মানের এই প্রতিষ্ঠানকে রক্ষা করাটাই আন্দোলনের মূল উদ্দেশ্য।

আইসিডিডিআরবি কর্তৃপক্ষের বক্তব্য ॥ এদিকে প্রাতিষ্ঠানিক নিয়ম অনুযায়ী যোগাযোগ করার প্রেক্ষিতে মানবসম্পদ পরিচালকের বিষয়ে দৈনিক জনকণ্ঠের প্রশ্নসমূহের জবাব দেয় আইসিডিডিআরবি কর্তৃপক্ষ। প্রতিষ্ঠানের মিডিয়া ম্যানেজার এ কে এম তারিফুল ইসলাম খানের মাধ্যমে পাঠানো বক্তব্যে আইসিডিডিআরবি কর্তৃপক্ষ জানায়, ‘এটা নিশ্চিত যে, আইসিডিডিআরবির মানবসম্পদ পরিচালক ক্রিস্টিন ডেনহি কর্তৃপক্ষের অনুমোদিত ছুটিতে আছেন। তিনি ছুটিতে যাওয়ার আগে তার দায়িত্ব প্রতিষ্ঠানের লাইন ম্যানেজারকে বুঝিয়ে দিয়ে গেছেন। প্রতিষ্ঠানের স্টাফ রুলে ছয় মাস পর্যন্ত অসুস্থতার কারণে ছুটি নিয়ে পুরো বেতন ভোগ করার সুবিধা রয়েছে।