১৬ অক্টোবর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

ভোট শেষ, চলছে গণণা ॥ সহিংসতার নিহত পাঁচ

ভোট শেষ, চলছে গণণা ॥ সহিংসতার নিহত পাঁচ

অনলাইন ডেস্ক ॥ সকাল থেকে শুরু হয়ে আজ বৃহস্পতিবার বিকেল চারটায় শেষ হয়েছে দ্বিতীয় ধাপের ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনের ভোট গ্রহণ। এই দ্বিতীয় ধাপে ৬৩৯টি ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচন অনুষ্ঠিত হচ্ছে। নির্বাচন শেষে এখন চলছে ভোট গণনা। রাতের বাড়ার সাথে সাথে পাওয়া যাবে ফলাফলও। তবে এই দ্বিতীয় ধাপেও নির্বচনী সহিংসতার খবর পাওয়া গেছে। বিভিন্ন স্থানে ঘটেছে সংঘর্ষের ঘটনা। আর এই সংঘর্ষে এই রিপোর্ট লেখার সময় এক শিশুসহ পাঁচ জন নিহত হওয়ার খবর পাওয়া গেছে। আহত হয়েছেন অনেকে। এ ছাড়া জালভোট, প্রার্থীদের ভোট বর্জনের মতো ঘটনাও ছিলো কিছু ইউনিয়নে।

যশোর সদর উপজেলার চাঁচরা ইউনিয়নের ৬৫ নম্বর চাঁচড়া ভাতুরিয়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় কেন্দ্রে হামলা ও সংঘর্ষে আবদুস সাত্তার নামের এক ফেরিওয়ালা নিহত হয়েছেন।

ঢাকার অদূরে কেরানীগঞ্জের হযরতপুর ইউনিয়নের একটি কেন্দ্রে ইউপি নির্বাচনে ভোট চলাকালে গুলিতে এক শিশু নিহত হয়েছে। সকাল ১০টার দিকে মধুরচর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় কেন্দ্রে এ ঘটনা ঘটে। নিহত শিশুটির নাম শুভ কাজী (৯)। সে মধুরচর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের চতুর্থ শ্রেণির ছাত্র ছিল। প্রত্যক্ষদর্শী ও স্থানীয়দের ভাষ্য, আওয়ামীপ্রার্থী ও বিএনপি প্রার্থীর মধ্যে গুলাগুলি চলে। এ সময় আতঙ্কে ওই কেন্দ্রের লোকজন ছোটাছুটি করতে থাকেন। এতে গুলিতে বিদ্ধ হয়ে শুভ মারা যায়। মায়ের হাত ধরে ভোটকেন্দ্রে গিয়েছিল শুভ। এই ইউনিয়নে ভোট বর্জনের ঘোষণা দিয়েছেন বিএনপির চেয়ারম্যান প্রার্থী নুরুল হক রিপন। চট্টগ্রামের দ্বীপ উপজেলা সদ্বীপে বৃহস্পতিবার বিকেল সংঘর্ষে দুইজন নিহত হয়েছে। এ ঘটনায় এক পুলিশ কনস্টেবলসহ ৭ জন আহত হয়েছেন। তাদের স্থানীয় হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

এর বাইরে আরো এক জনের মারা যাওয়ার খবর পাওয়া গেছে নির্বাচনের কেন্দ্রের বাইরে সহিংসতা দেখে। জামালপুরের মেলান্দহে কেন্দ্রের বাইরে ধাওয়া পাল্টা ধাওয়ার সময় ‘হৃদরোগে আক্রান্ত হয়ে’ ঐ যুবকের মৃত্যুর খবর দিয়েছে পুলিশ।

মাদারীপুরে বিভিন্ন ইউনিয়নের ভোট কেন্দ্র ও কেন্দ্রের বাইরে সংঘর্ষে অন্তত ৩৫ জন আহত হয়েছেন বলে জানিয়েছেন মাধারিপুর সংবাদদাতা। এছাড়াও লালমনিরহাটের হাতিবান্ধা উপজেলার স্বতন্ত্র চেয়ারম্যান প্রার্থীর লোকজনের ওপর প্রতিপক্ষের হামলা করে। এতে আহত হন অন্তত ১০ জন। কুষ্টিয়ার দৌলতপুর উপজেলায় বিক্ষিপ্ত সংঘর্ষ, হামলা, গুলিবর্ষণসহ নানা ঘটনাই ঘটেছে। এসব ঘটনায় অন্তত ১৩ জন আহত হয়েছে বলে খবর পাওয়া গেছে।