২৪ সেপ্টেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

যশোরে বোমা বানাতে গিয়ে বিস্ফোরণে নিহত দুই

স্টাফ রিপোর্টার, যশোর অফিস ॥ যশোর সদরের লেবুতলা ইউনিয়নে নির্বাচনের আগের রাতে বোমা বানাতে গিয়ে বিস্ফোরণে ২ জন নিহত ও ৩ জন আহত হয়েছেন। নিহতরা হলো ইবাদুল ইসলাম (৩৮), সবুজ (২৯)। স্থানীয় সূত্র জানায়, বুধবার রাত ৯টার দিকে যশোর সদর উপজেলার লেবুতলা ইউনিয়নের আন্দোলপোতা মাঠে বোমা তৈরি করতে গিয়ে বিস্ফোরণে ৫ জন আহত হন। এরা হলেন যশোর সদর উপজেলার লেবুতলা ইউনিয়নের কাঠামারা গ্রামের রমজান আলীর ছেলে ইবাদুল ইসলাম, একই গ্রামের আনার উদ্দিনের ছেলে সবুজ, আন্দোলপোতা গ্রামের বাদশা মোল্যার ছেলে গোলাম মোস্তাফা, একই গ্রামের আলাউদ্দিনের ছেলে রুবেল হোসেন এবং অপরজন রাকিব হোসেন। তাদের উদ্ধার করে যশোর মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। বৃহস্পতিবার ভোরে চিকিৎসাধীন অবস্থায় ইবাদুল ও সবুজের মৃত্যু হয়। আহত অপর তিনজন যশোর মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি ছিল। এর মধ্যে রাতে গোলাম মোস্তফা এবং আলাউদ্দিন হাসপাতাল থেকে পালিয়ে যায়।

বেগমগঞ্জে দুর্বৃত্তের গুলিতে যুবক

নিজস্ব সংবাদদাতা, নোয়াখালী থেকে জানান, বেগমগঞ্জ উপজেলার শরীফপুর ইউনিয়নে দুর্বৃত্তদের গুলিতে ফারুক হোসেন (২৭) নামে এক যুবক নিহত হয়েছে। বুধবার রাত ১১টায় শরীফপুর গ্রামের স্থানীয় কামাল চেয়ারম্যানের পুলের কাছে এ ঘটনা ঘটে।

নিহত ফারুক শরীফপুর ইউনিয়নের ব্যাপারি বাড়ির নুরুল আমিনের ছেলে। তিনি চৌমুহনী পূর্ব বাজার এলাকায় একটি মোটরসাইকেল ওয়ার্কশপের মালিক ছিলেন। জানা গেছে, ফারুক নিজ ব্যবসা প্রতিষ্ঠান থেকে বুধবার রাতে তার ভাই মিলনকে সঙ্গে নিয়ে মোটরসাইকেল যোগে বাড়ি ফিরছিলেন। পথিমধ্যে কামাল চেয়ারম্যানের বাড়ি সংলগ্ন পুলের কাছে পৌঁছামাত্র কয়েকজন অজ্ঞাত দুর্বৃত্ত তাদের মোটরসাইকেলের গতিরোধ করে ব্যবহৃত মুঠোফোন ও নগদ টাকা ছিনিয়ে নেয়।

ফারুক বাধা দিলে দুর্বৃত্তরা তার মাথায় অস্ত্র ঠেকিয়ে গুলি করে পালিয়ে যায়। এতে ঘটনাস্থলেই ফারুক মারা যায়।

সহকর্মীর অনৈতিক কর্ম দেখে ফেলায় ছুরিকাঘাত

নিজস্ব সংবাদদাতা, হবিগঞ্জ, ৩১ মার্চ ॥ এক যুবতী স্টাফের সঙ্গে অনৈতিক কার্যকলাপে আরেক স্টাফ লিপ্ত থাকা ও দেখা নিয়ে বুধবার রাতে হবিগঞ্জ শহরের পিটিটিআই সড়কের মা-মণি হেলথ সিস্টেমস ট্রেনিং প্রকল্প জেলা কার্যালয়ে ছুরিকাঘাতে রাজু আহমেদ নামে আরেক স্টাফ গুরুতর আহত হয়েছে। সংশ্লিষ্ট কার্যালয়ের একটি কক্ষে শিমুল দাশ ওই যুবতীর সঙ্গে অনৈতিক কাজে লিপ্ত হলে দেখে ফেলেন রাজু। এ ঘটনা রাজু প্রকাশ করার হুমকি দিলে প্রথমে শিমুলের সঙ্গে তার হাতাহাতি এবং পরবর্তীতে রাজুর গলায় ছুরি দিয়ে শিমুল টান দিলে রক্তাক্ত অবস্থায় সে তাৎক্ষণিক মাটিয়ে লুটিয়ে পড়ে। অবস্থা বেগতিক দেখে শিমুল পালিয়ে যাবার চেষ্টা করলে অন্য স্টাফরা তাকে আটক করে। এদিকে গুরুতর আহত রাজুকে তাৎক্ষণিক সদর আধুনিক হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হলে অবস্থার অবনতি ঘটায় কর্তব্যরত ডাক্তার তাকে দ্রুত সিলেট এমএজি ওসমানী মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে প্রেরণ করে। জানা গেছে, তার অবস্থা আশঙ্কাজনক।