২২ অক্টোবর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

কুষ্টিয়ায় পত্রিকা অফিসে হামলা ভাংচুর

  • নির্বাচনী সংবাদ প্রকাশের জের

নিজস্ব সংবাদদাতা, কুষ্টিয়া, ৩১ মার্চ ॥ কুষ্টিয়ায় ইউপি নির্বাচনের মনোনয়ন নিয়ে সংবাদ প্রকাশ করায় স্থানীয় দৈনিক আন্দোলনের বাজার পত্রিকা অফিসে হামলা-ভাংচুর চালানো হয়েছে। বৃহস্পতিবার দুপুরে দুই ছাত্রলীগ নেতার নেতৃত্বে ১৫ থেকে ২০ জনের একটি সন্ত্রাসী দল এ হামলা চালায় বলে পত্রিকা কর্তৃপক্ষ জানিয়েছে। এ সময় পত্রিকার প্রকাশক ও সম্পাদক আনিসুজ্জামান ডাবুলর কক্ষে থাকা কম্পিউটার ও আসবাবপত্র ভাংচুর ছাড়াও পত্রিকার স্টাফ রিপোর্টার সাকিব পারভেজকে মারধর করা হয়। পত্রিকা অফিসে এ হামলার ঘটনায় তীব্র নিন্দা জানিয়েছেন স্থানীয় পত্রিকার সম্পাদক ও সাংবাদিকরা। ঘটনার পর পত্রিকাটির কার্যালয় পরিদর্শন করেছেন কুষ্টিয়া মডেল থানার অফিসার ইনচার্জ (তদন্ত) রবিউল ইসলাম, উপ-পরিদর্শক ওবাইদুল ও প্রেসক্লাবের সাধারণ সম্পাদক আল মামুন সাগর। পত্রিকাটির সার্কুলেশন ম্যানেজার শফিকুর রহমান শফি জানান, বৃহস্পতিবার দুপুর সাড়ে ১২টার দিকে কয়া ইউনিয়নের প্রয়াত চেয়ারম্যান জামিল হোসেন বাচ্চুর ছেলে ছাত্রলীগ নেতা তুষারের নেতৃত্বে একদল সন্ত্রাসী আন্দোলনবাজার পত্রিকা কার্যালয়ে এসে প্রকাশক ও সম্পাদক আনিসুজ্জামান ডাবলুকে খুঁজতে থাকে। এ সময় তারা গালিগালাজের এক পর্যায়ে সম্পাদক আনিসুজ্জামান ডাবলুর রুমের দরজা ভেঙ্গে ভেতরে প্রবেশ করে এবং সেখানে থাকা কম্পিউটার, টেবিলসহ অন্য আসবাবপত্র ভাংচুর করে। উল্লেখ্য, বৃহস্পতিবার আন্দোলনের বাজার পত্রিকায় ইউপি নির্বাচনের মনোনয়ন নিয়ে একটি সংবাদ প্রকাশ হয়। এ সংবাদে ক্ষুব্ধ হন জেলা আওয়ামী লীগের কয়েক নেতা। পত্রিকা কার্যালয়ে হামলার এ ঘটনায় বিভিন্ন রাজনৈতিক দলের নেতারাও ক্ষোভ ও নিন্দা জানিয়েছে।

রায়পুরে অপহৃত চালক উদ্ধার ॥ দু’জনকে গণপিটুনি

সংবাদদাতা, রায়পুর, লক্ষ্মীপুর, ৩১ মার্চ ॥ রায়পুরে অপহরণের দুইদিন পর অটোরিক্সা চালক ও তার সহযোগীকে উদ্ধার এবং ঘটনার সঙ্গে জড়িত কানামনি নামে এক নারীকে গণপিটুনি দিয়ে পুলিশে সোপর্দ করেছে এলাকাবাসী। বৃহস্পতিবার বিকেলে উপজেলার চর আবাবিল ইউনিয়নের চরপাঙ্গাসিয়া গ্রামের একটি পরিত্যক্ত বাড়িতে এ ঘটনা ঘটে। গণপিটুনির শিকার ওই নারীসহ উদ্ধার হওয়া দুইজন রায়পুর সরকারী হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছেন। অপহৃত চালক আমির হোসেন ফরিদগঞ্জ উপজেলার পশ্চিম আলোনীয়া গ্রামের মৃত লেদু মিয়ার ছেলে ও তার সহযোগী রুবেল হোসেন একই গ্রামের আব্দুর রশিদের ছেলে। এলাকাবাসী ও পুলিশ জানান, আমির হোসেনকে বুধবার সন্ধ্যায় হাসপাতালে একজন মুমূর্ষু রোগী নেয়ার কথা বলে কানামনি হায়দরগঞ্জ বাজারে নিয়ে একটি বাড়িতে আটকে রাখে।

তারা তিন লাখ টাকা মুক্তিপণ না দিলে প্রাণে মেরে ফেলার কথা জানায় তার স্বজনদের। মুক্তিপণের টাকা দিতে দেরি করায় ওই জায়গা থেকে আমিরকে চরপাঙ্গাসিয়া গ্রামের একটি পরিত্যক্ত বাড়িতে নিয়ে যাওয়া হয়। সেখানে কয়েক সহযোগী কানামনির সঙ্গে আমিরের অবৈধ সম্পর্ক রয়েছে অপবাদ দিয়ে নিয়ে হাত-পা বেঁধে রাতভর নির্যাতন চালায়। এ ঘটনা এলাকাবাসী বুঝতে পেরে বৃহস্পতিবার বিকেলে অপহৃত আমিরকে উদ্ধার করে।