১০ ডিসেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

সুচির জন্য প্রধানমন্ত্রীর মতো বিশেষ পদের প্রস্তাব

  • শীঘ্রই পার্লামেন্টে উত্থাপন

মিয়ানমারের গণতন্ত্রপন্থী নেত্রী আউং সান সুচিকে রাষ্ট্রের উপদেষ্টার পদ দিতে বৃহস্পতিবার পার্লামেন্টে প্রস্তাব পেশ করেছে তার দল ন্যাশনাল লীগ ফর ডেমোক্রেসি (এনএলডি)। দেশটির পার্লামেন্টের সদস্যরা বলেছেন, সুচি প্রেসিডেন্ট ও পার্লামেন্টের মধ্যে যোগসূত্রকারীর ভূমিকা পালন করতে পারেন। তাকে ‘রাষ্ট্রের উপদেষ্টা, বা ‘স্টেট কাউন্সিলরের’ মতো পদ দেয়া হতে পারে, যা প্রধানমন্ত্রীর ভূমিকার মতো। খবর বিবিসি ও ওয়ান ইন্ডিয়ার।

মিয়ানমারে বুধবার নতুন যুগের সূচনা হয়েছে। পাঁচ দশকেরও বেশি সময় ধরে চলা সামরিক শাসনের পর একজন বেসামরিক প্রেসিডেন্ট ক্ষমতায় বসেছেন।

তিনি সুচির ঘনিষ্ঠ সহযোগী থিন কিয়াও। গত বছর মিয়ানমারের ঐতিহাসিক সাধারণ নির্বাচনে এনএলডি ব্যাপক সংখ্যাগরিষ্ঠতা পেলেও সাংবিধানিক বাধার কারণে সুচি দেশটির প্রেসিডেন্ট হতে পারেননি। অতিরিক্ত পদ সৃষ্টির প্রস্তাব সম্বলিত খসড়া প্রস্তাবটি অনুমোদন নিয়ে আগামী দিনগুলোতে পার্লামেন্টে আলোচনা হবে। খসড়া প্রস্তাবে রাষ্ট্রের উপদেষ্টার পদটি তৈরি করে এর জন্য প্রয়োজনীয় তহবিল যোগান দেয়ার কথা বলা হয়েছে এবং পদটি আউং সান সুচি পূরণ করবেন বলে প্রস্তাব করা হয়েছে। এই পদ সৃষ্টি হলে সুচিকে সরকারের সব ধরনের প্রধান ইস্যুগুলো নিয়ে কাজ করার সুযোগ করে দেবে। স্পীকার উ মান ওয়েন খাইং থান বুধবারই পররাষ্ট্রমন্ত্রী হিসেবে সুচিকে নিয়োগ করার ঘোষণা দেন। এছাড়া তিনি প্রেসিডেন্টের কার্যালয়, শিক্ষা এবং বিদ্যুত ও জ্বালানি মন্ত্রণালয়ের দায়িত্বে থাকবেন। তবে সুচির দল চায়, এর পাশাপাশি তিনি রাষ্ট্রীয় উপদেষ্টার দায়িত্বও পালন করুন। এতে তিনি পার্লামেন্টের বৈঠক, আলোচনা ও সিদ্ধান্তে ভূমিকা রাখতে পারবেন।

প্রভূত ক্ষমতা হস্তগত করে সুচি অসাংবিধানিকভাবে দেশ পরিচালনা করেছেনÑ এমন অভিযোগ এড়ানোর জন্যই তার জন্য অতিরিক্ত নতুন পদ তৈরির উদ্যোগ নেয়া হয়েছে। সুচি আগেই ঘোষণা দিয়েছিলেন ‘প্রক্সি’ হিসেবে তিনিই মিয়ানমার শাসন করবেন।