১১ ডিসেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই ঘন্টায়    
ADS

নারীদের নিয়ে ফের বিতর্কিত মন্তব্য ট্রাম্পের ॥ সমালোচনার ঝড়

যুক্তরাষ্ট্রের আসন্ন প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে রিপাবলিকান দলের মনোনয়ন প্রত্যাশী ডোনাল্ড ট্রাম্প বলেছেন, গর্ভপাত করালে নারীদের শাস্তি দেয়া উচিত। তার সাম্প্রতিক এই মন্তব্যে তীব্র সমালোচনার ঝড় উঠেছে। এমএসএনবিসি টেলিভিশনকে বুধবার দেয়া এক সাক্ষাতকারে ট্রাম্পের এমন মন্তব্যের পর রিপাবলিকানদের ভেতরেই বিরূপ প্রতিক্রিয়া দেখা যায়। খবর এএফপি ও বিবিসির।

সামলোচনার মুখে নিজের বক্তব্য থেকে সরে এসে ট্রাম্প বলেন, গর্ভপাত করাতে সাহায্য করেন যেসব চিকিৎসক তাদের শাস্তি দেয়া উচিত এবং যদি তারা সেটি অবৈধভাবে করেন। অনুষ্ঠানের উপস্থাপক ট্রাম্পকে এক পর্যায়ে জিজ্ঞেস করেন, গর্ভপাতের জন্য শাস্তি দেয়ার বিষয়টি কি আপনি বিশ্বাস করেন? জবাবে ট্রাম্প বলেন, এজন্য অবশ্যই নারীদের শাস্তি দেয়া উচিত। তবে গর্ভপাত ইস্যুতে নিজের অবস্থান থেকে সরে আসবেন না বলে স্পষ্ট জানিয়ে দেন ট্রাম্প। তিনি বলেন, এ বিষয়ে আমার অবস্থানের পরিবর্তন হয়নি। যুক্তরাষ্ট্রের সুপ্রীমকোর্ট ১৯৭৩ সালে এক আদেশে গর্ভপাত বৈধ বলে ঘোষণা করেন। তবে ট্রাম্প কিছু ব্যতিক্রমী ঘটনা ছাড়া গর্ভপাত নিষিদ্ধ করার পক্ষে। ট্রাম্পের মতে, গর্ভপাত করা খুন করার মতোই একধরনের অপরাধ। যেকোন অপরাধে নারী-পুরুষ উভয়েরই শাস্তি হতে পারে। তাহলে গর্ভপাত করালে কেন নারীদের শাস্তি হবে না। এ ক্ষেত্রে গর্ভপাতকারী চিকিৎসকের ওপরেও দায় বর্তায়।

ট্রাম্পের মন্তব্যের সমালোচনা করে তার প্রতিদ্বন্দ্বী সিনেটর টেড ক্রুজ বলেছেন, ট্রাম্প মনোযোগ পাওয়ার জন্য যেকোন কিছু বলতে পারেন। রিপাবলিকান দলের আরেক মনোনয়ন প্রত্যাশী গবর্নর জন ক্যাসিক বলেছেন, ধর্ষণ, পরিবারের সদস্যদের দ্বারা নিপীড়নের শিকার বা অন্য কোন অপরাধে নারী-পুরুষ যে কার শাস্তি হতে পারে। কিন্তু গর্ভপাতের জন্য কোন নারীকে শাস্তি দেবার কথা ভাবাও যায় না। ডেমোক্রেটিক দলের মনোনয়নপ্রত্যাশী হিলারি ক্লিনটন কঠোর সমালোচনা করে বলেছেন, ট্রাম্পের মন্তব্য ভয়ঙ্কর। ডেমোক্রেটিক দলের অপর মনোনয়ন প্রত্যাশী বার্নি স্যান্ডারস এই মন্তব্যকে লজ্জাজনক বলে অভিহিত করেছেন।