১৬ অক্টোবর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

আজ শুরু স্বাধীনতা কাপ ফুটবল

  • বঙ্গবন্ধু স্টেডিয়ামে উদ্বোধনী দিনে মুখোমুখি বিজেএমসি-রহমতগঞ্জ

স্পোর্টস রিপোর্টার ॥ নানা জল্পনা-কল্পনার পর অবশেষে পরাধীনতার শৃঙ্খল’ থেকে মুক্ত হলো ‘কেএফসি স্বাধীনতা কাপ ফুটবল টুর্নামেন্ট।’ নির্ধারিত তারিখের দু’দিন পর আজ শুক্রবার থেকে মাঠে গড়াচ্ছে বহুল আলোচিত এই ফুটবল আসরের খেলা। বঙ্গবন্ধু জাতীয় স্টেডিয়ামে বিকেল সাড়ে ৪টায় উদ্বোধনী ম্যাচে খেলবে টিম বিজেএমসি বনাম রহমতগঞ্জ মুসলিম ফ্রেন্ডস সোসাইটি। একই দিনে সন্ধ্যা ৭টায় দ্বিতীয় ম্যাচে মুখোমুখি হবে ব্রাদার্স ইউনিয়ন লিমিটেড বনাম উত্তর বারিধারা। সাধারণত ফেডারেশন কাপ দিয়েই নতুন মৌসুম শুরু হয়ে থাকে। কিন্তু এবার তার ব্যত্যয় ঘটছে। গত মৌসুমে স্বাধীনতা কাপ অনুষ্ঠিত হয়নি। এবার তাই এই টুর্নামেন্ট দিয়েই শুরু হচ্ছে নয়া মৌসুম। তবে বৃহস্পতিবারের মতো আজও যদি ভারি বর্ষণ হয় ও রোদ না ওঠে, তাহলে মাঠে স্বাভাবিক খেলার সৌন্দর্য্যহানির আশঙ্কা করছেন ফুটবলপ্রেমীরা। কেননা বঙ্গবন্ধু জাতীয় স্টেডিয়ামের পানি নিষ্কাষণ পদ্ধতি মোটেও উন্নতমানের নয়!

আট ফুটবলার নিয়ে আইনী জটিলতায় এবার স্বাধীনতা কাপ পড়েছিল অনিশ্চয়তার মুখে। তবে শেষ পর্যন্ত যে আট ফুটবলার নিয়ে জটিলতাÑ তাদের বাদ দিয়েই বাংলাদেশ ফুটবল ফেডারেশনের (বাফুফে) টুর্নামেন্টে খেলতে রাজি হয় তিন ক্লাব (চট্টগ্রাম আবাহনী, ঢাকা আবাহনী ও শেখ রাসেল)। তবে এর আগে শেখ রাসেল, ব্রাদার্স ইউনিয়ন, উত্তর বারিধারা ও ফেনী সকার জানিয়েছিলÑ স্বাধীনতার মাসে স্বাধীনতা কাপ ফুটবল না করতে পারলে তারা এই টুর্নামেন্ট না-ও খেলতে পারে! পরে অবশ্য বাফুফে ‘ম্যানেজ’ করে ফেলে ক্লাব চারটিকে।

বিভিন্ন ঝামেলার কারণে এবার স্বাধীনতার মাসে টুর্নামেন্টটি শুরু করতে পারেনি বাফুফে। মূলত শেখ জামালের দাবিকৃত আট ফুটবলারকে নিয়েই হয় সমস্যা। ওই আট ফুটবলার পেলেই টুর্নামেন্টে খেলতে রাজি বলে জানিয়েছিল শেখ জামাল। কিন্তু টুর্নামেন্টে অংশ নেয়ার আগ্রহ থাকলেও তারা বাফুফের কাছে কোন লিখিত আবেদন করেনি বলে তাদের বাদ দিয়েই আজ থেকে মাঠে গড়াচ্ছে টুর্নামেন্ট। যদিও বৃহস্পতিবার বাফুফের কাছে টুর্নামেন্টে ওই আট ফুটবলারকে নিয়ে খেলতে চেয়ে লিখিত আবেদন জানিয়েছে শেখ জামাল ক্লাব।

স্বাধীনতা কাপে এবার অংশ নিচ্ছে ১১ দল। টুর্নামেন্টের গ্রুপিং ড্র অনুষ্ঠিত হয় ২৪ মার্চ। যেখানে আবেদন না করায় শেখ জামাল এবং আরামবাগকে বাদ দিয়ে ১০ দলকে নিয়েই টুর্নামেন্টের ড্র করা হয়। পরবর্তীতে চাপের মুখে আরামবাগকেও খেলায় অংশগ্রহণ করতে দিতে বাধ্য হয় বাফুফে। ফলে দুই গ্রুপের একটিতে রয়েছে ৫ দল অন্যটিতে ৬ দল। ‘এ’ গ্রুপে আছে মোহামেডান স্পোর্টিং ক্লাব লিমিটেড, ব্রাদার্স ইউনিয়ন লিমিটেড, বাংলাদেশ মুক্তিযোদ্ধা সংসদ ক্রীড়া চক্র, চট্টগ্রাম আবাহনী লিমিটেড ও উত্তর বারিধারা ক্লাব। ‘বি’ গ্রুপে আছে শেখ রাসেল ক্রীড়া চক্র লিমিটেড, ঢাকা আবাহনী লিমিটেড, টিম বিজেএমসি, ফেনী সকার ক্লাব ও রহমতগঞ্জ মুসলিম ফ্রেন্ডস সোসাইটি এবং আরামবাগ ক্রীড়া সংঘ। ১৮ ও ১৯ এপ্রিল অনুষ্ঠিত হবে দুটি সেমিফাইনাল। ২২ এপ্রিল অনুষ্ঠিত হবে ফাইনাল ম্যাচ। টুর্নামেন্টে অংশ নেয়ার জন্য প্রতি দল পাবে এক লাখ টাকা করে। চ্যাম্পিয়ন দল পাবে পাঁচ লাখ টাকা ও ট্রফি। রানার্সআপ দল পাবে তিন লাখ টাকা ও ট্রফি। গত বছর অক্টোবরে অনুষ্ঠিত হওয়ার কথা ছিল ‘স্বাধীনতা কাপ’। কিন্তু ওই সময়েই চট্টগ্রামে ‘শেখ কামাল আন্তর্জাতিক কাপ চ্যাম্পিয়নশিপ’ অনুষ্ঠিত হওয়ার কারণে মাঠে গড়ায়নি টুর্নামেন্টটি। এখন দেখার বিষয়, আজকের উদ্বোধনী ম্যাচে সরকারী মালিকানার দল বিজেএমসি, না কি ‘জায়ান্ট কিলার’, ‘আইলো রে’ এবং ‘ডাইলপট্টি’ খ্যাত পুরনো ঢাকার ক্লাব রহমতগঞ্জÑ কোন দল কি ফল করে।