১৪ ডিসেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

কারিগরি শিক্ষা কর্মসংস্থানের সুযোগ সৃষ্টি করছে : শিক্ষামন্ত্রী

অনলাইন ডেস্ক ॥ কারিগরি শিক্ষা যুবসমাজের চাকরি ও আত্মকর্মসংস্থানের অপূর্ব সুযোগ সৃষ্টি করছে বলে জানান শিক্ষামন্ত্রী নুরুল ইসলাম নাহিদ।

শিক্ষামন্ত্রী আজ স্কিলস এ্যান্ড ট্রেনিং এনহ্যান্সমেন্ট প্রজেক্টের সহযোগিতায় ঢাকা মহিলা পলিটেকনিক ইন্সটিটিউটে দিনব্যাপী জবফেয়ারের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে বক্তৃতাকালে এ কথা বলেন। মন্ত্রী বলেন, অনেক ক্ষেত্রে উচ্চশিক্ষা লাভ করে হাজার হাজার যুবক-যুবতী বেকার থাকলেও কারিগরি শিক্ষা বা প্রশিক্ষণ গ্রহণ করে কেউ বেকার নেই। পাস করার সাথে সাথে চাকরি পায়। দক্ষতা অর্জন করতে পারলে তাদেরকে চাকরি খুঁজতে হবে না, চাকরিই তাদের খুঁজে বের করবে।

শিক্ষামন্ত্রী বলেন, বর্তমান সরকার কারিগরি শিক্ষায় যুগান্তকারী পরিবর্তন এনেছে। ২০০৮ সালে যেখানে কারিগরি শিক্ষায় শিক্ষার্থী ভর্তির হার ছিল ১.২%, বর্তমানে তা বেড়ে দাঁড়িয়েছে ১৩.১১%। ২০২০ সালের মধ্যে এ হার ২০%এ উন্নীত করা হবে, এমনকি তার চেয়ে বেশি হবে।

তিনি বলেন, সরকারের নানামুখী উদ্যোগের ফলে সরকারি-বেসরকারি কারিগরি শিক্ষা-প্রশিক্ষণ প্রতিষ্ঠানে ২০০৮ সালের ৭ লাখ থেকে বেড়ে বর্তমানে ১৫ লাখের অধিক হয়েছে। তিনি বলেন, ২৩টি আন্তর্জাতিকমানের পলিটেকনিক ইনস্টিটিউটসহ দেশের প্রতিটি উপজেলায় একটি করে নতুন কারিগরি শিক্ষা প্রতিষ্ঠান স্থাপন করা হচ্ছে। বিদ্যমান শিক্ষা প্রতিষ্ঠানসমূহের অবকাঠামোগত উন্নয়নের মাধ্যমে নতুন আরো এক লাখ শিক্ষার্থী ভর্তির উদ্যোগ নেয়া হয়েছে।

কারিগরি খাতে পূর্বে কোনো প্রকল্প ছিল না, এ কথা উল্লেখ করে শিক্ষামন্ত্রী বলেন, এ সরকারের সময়েই কারিগরি খাতে ৫টি বড় বড় প্রকল্প উন্নয়ন প্রকল্প গ্রহণ করা হয়েছে।

শিক্ষামন্ত্রী বলেন, কারিগরি শিক্ষায় মহিলাদের অংশগ্রহণ বাড়ানোর চেষ্টা সরকার অব্যাহত রেখেছে। দেশের ৪টি বিভাগীয় শহরে ৪টি মহিলা পলিটেকনিক ইনস্টিটিউট স্থাপন করা হয়েছে, বাকি ৩টিতে স্থাপনের কাজ এগিয়ে চলছে। পলিটেকনিকে ভর্তির ক্ষেত্রে মহিলাদের জন্য ২০% কোটা সংরক্ষিত রয়েছে। তিনি বলেন, একশত ভাগ মহিলা শিক্ষার্থীকে বৃত্তি প্রদান করা হয়। নারীবান্ধব পরিবেশ সৃষ্টির জন্য তাদের জন্য আলাদা টয়লেট, কমনরুম ও হোস্টেল করা হচ্ছে। সরকার কারিগরি খাতে নতুন বিপ্লব এনে দেশের বিপুল জনসংখ্যাকে জনসম্পদে পরিণত করার লক্ষ্যে নিরলসভাবে কাজ করে চলেছে।

শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের অতিরিক্ত সচিব ও কারিগরি শিক্ষা অধিদপ্তরের মহাপরিচালক অশোক কুমার বিশ্বাসের সভাপতিত্বে আয়োজিত অনুষ্ঠানে শিক্ষাসচিব মোঃ সোহরাব হোসাইন, স্কিলস এ্যান্ড ট্রেনিং এনহ্যান্সমেন্ট প্রজেক্টের প্রকল্প পরিচালক মোঃ ইমরান, বাংলাদেশ কারিগরি শিক্ষাবোর্ডের চেয়ারম্যান ড. মোঃ মোস্তাফিজুর রহমান, বিশ্বব্যাংকের সিনিয়র অপারেসন্স অফিসার ড. মোঃ মোখলেছুর রহমান এবং ঢাকা মহিলা পলিটেকনিক ইনস্টিটিউটের অধ্যক্ষ প্রকৌশলী মোঃ মোজাহার হোসেন বক্তৃতা করেন।