১৭ নভেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

চেয়ারম্যান হলেন যাঁরা

জনকণ্ঠ ডেস্ক ॥ বৃহস্পতিবার ইউপি নির্বাচনে যারা বেসরকারীভাবে নির্বাচিত হয়েছেন তাদের নাম প্রকাশ করা হলো। খবর স্টাফ রিপোর্টার ও নিজস্ব সংবাদদাতাদের।

মাদারীপুর

সদর উপজেলার কালিকাপুর ইউনিয়নে এজাজুর রহমান আকন (আ’লীগ), খোয়াজপুরে মোহাম্মদ আলী মুন্সি (আ’লীগ), মস্তফাপুরে কুদ্দুস মল্লিক (আ’লীগ), দুধখালীতে মিজানুর রহমান হিরু খান (আ’লীগ), পেয়ারপুরে মজিবুর রহমান খান (আ’লীগ), বাহাদুরপুরে সৈয়দ সাখাওয়াত হোসেন সেলিম (আ’লীগ) এবং ঝাউদি ইউনিয়নে সিরাজুল ইসলাম আবুল (আ’লীগ) ও শিরখাড়ায় মজিবুর রহমান হাওলাদার (আ’লীগ)। এছাড়া ছিলারচর ইউনিয়নে আওয়ামী লীগের বিদ্রোহী প্রার্থী সাইফুল ইসলাম বাবুল সরদার, ধুরাইলে আওয়ামী লীগের বিদ্রোহী প্রার্থী মজিবর রহমান মৃধা, কেন্দুয়ায় আওয়ামী লীগের বিদ্রোহী প্রার্থী মজিবর রহমান মাতুব্বর, পাঁচখোলায় আওয়ামী লীগের বিদ্রোহী প্রার্থী আক্তার হাওলাদার, কুনিয়ায় আওয়ামী লীগের বিদ্রোহী প্রার্থী অমিত কবির ও রাস্তি ইউনিয়নে আওয়ামী লীগের বিদ্রোহী প্রার্থী মনিরুজ্জামান হাওলাদার।

কিশোরগঞ্জ

বাজিতপুর উপজেলার আ’লীগের বিজয়ী প্রার্থীরা হলেনÑ দিঘীরপাড় ইউনিয়নে আমিন মোঃ ফারুক, কৈলাগ ইউনিয়নে গোলাম কিবরিয়া, পিরিজপুর ইউনিয়নে জাফর ইকবাল জুয়েল, দিলালপুর ইউনিয়নে গোলাম কিবরিয়া নোভেল, গাজীরচর ইউনিয়নে জুয়েল মিয়া, হিলচিয়া ইউনিয়নে মাজহারুল হক নাহিদ ও মাইজচর ইউনিয়নে তৈয়্যবুর রহমান। বিএনপি প্রার্থীরা হলেনÑ হালিমপুর ইউনিয়নে হাজী মোঃ কাজল ভূঁঁইয়া, হুমাইপুর ইউনিয়নে মানিক মিয়া ও সরারচর ইউনিয়নে মোঃ মহসিন মিয়া। কটিয়াদী উপজেলার আ’লীগের বিজয়ীরা হলেনÑ বনগ্রাম ইউনিয়নে কামাল হোসেন মিলন, সহশ্রাম-ধুলদিয়া ইউনিয়নে আবুল কাশেম আকন্দ, মুমুরদিয়া ইউনিয়নে সৈয়দুজ্জামান সৈয়দু, মসুয়া ইউনিয়নে ইদ্রিস আলী, লোহাজুরী ইউনিয়নে আতাহার উদ্দিন ভূঞা রতন ও জালালপুর ইউনিয়নে বিদ্রোহী প্রার্থী হাবিবুর রহমান রুস্তম। বিএনপির প্রার্থীরা হলেনÑ আচমিতা ইউনিয়নে মাহবুবুর রহমান বাচ্চু, করগাঁও ইউনিয়নে বিদ্রোহী প্রার্থী শরাফত লস্কর পারভেজ ও চাঁনপুর ইউনিয়নে বিদ্রোহী প্রার্থী বর্তমান চেয়ারম্যান মাহতাব উদ্দিন।

নাটোর

লালপুর উপজেলার আওয়ামী লীগের প্রার্থীরা হলেনÑ লালপুর ইউনিয়নে আবু বকর সিদ্দিক পলাশ, ঈশ্বরদী ইউনিয়নে আমিনুল ইসলাম, চংধুপইল ইউনিয়নে আবু আল বেলাল, আড়বাব ইউনিয়নে ইসাহাক আলী, বিলমাড়িয়া ইউনিয়নে মিজানুর রহমান মিন্টু, দুয়ারিয়া ইউনিয়নে নুরুল ইসলাম লাভলু, ওয়ালিয়া ইউনিয়নে আনিছুর রহমান মাস্টার, দুড়দুড়িয়া ইউনিয়নে আঃ হান্নান, কদিমচিলান ইউনিয়নে সেলিম রেজা মাস্টার। বাগাতিপাড়া উপজেলার পাকা ইউনিয়নে আ’লীগের বিদ্রোহী প্রার্থী আমজাদ হোসেন।

সিরাজগঞ্জ

সদর উপজেলার ১নং রতনকান্দি ইউনিয়নে আওয়ামী লীগের প্রার্থী গোলাম মোস্তফা খোকন, ২নং বাগবাটি ইউনিয়নে আওয়ামী লীগের জাহাঙ্গীর আলম, ৩নং বহুলী ইউনিয়নে বিএনপির আমিন সরকার, ৫নং খোকশাবাড়ী ইউনিয়নে আওয়ামী লীগের রাশিদুল হাসান রশিদ মোল্লা, ৬নং ছোনগাছা ইউনিয়নে আওয়ামী লীগের শহিদুল আলম, ৭নং মেছড়া ইউনিয়নে আওয়ামী লীগের আব্দুল মজিদ মাস্টার, ৯নং কালিয়া হরিপুর ইউনিয়নে আওয়ামী লীগের আব্দুস সবুর।

টাঙ্গাইল

গোপালপুরের মির্জাপুর ইউনিয়নে আওয়ামী লীগের হালিমুজ্জামান তালুকদার, আলমনগর ইউনিয়নে আওয়ামী লীগের অধ্যাপক আব্দুল মোমেন, ঝাওয়াইল ইউনিয়নে আওয়ামী লীগের রফিকুল ইসলাম তালুকদার, হেমনগর ইউনিয়নে আওয়ামী লীগের বিদ্রোহী প্রার্থী রওশন খান আইয়ুব, নগদাশিমলা ইউনিয়নে আওয়ামী লীগের এ্যাডভোকেট কেএম আবুল কালাম জুরাত, হাদিরা ইউনিয়নে আওয়ামী লীগের আবুল কাশেম, ধোপাকান্দি ইউনিয়নে আওয়ামী লীগের বিদ্রোহী প্রার্থী আব্দুল হাই। ভূঞাপুরের অর্জুনা ইউনিয়নে আওয়ামী লীগের আইয়ুব আলী মোল্লা, গাবসারা ইউনিয়নে আওয়ামী লীগের মনিরুজ্জামান মনির, ফলদা ইউনিয়নে আওয়ামী লীগের সাইদুল ইসলাম তালুকদার দুদু, গোবিন্দাসী ইউনিয়নে বিএনপির মোস্তাফিজুর রহমান বাবলু, অলোয়া ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের নুরুল ইসলাম, নিকরাইল ইউনিয়নে আওয়ামী লীগের মতিন সরকার।

নীলফামারী

সদর উপজেলার পঞ্চপুকুর ইউনিয়নে আওয়ামী লীগের হবিবর রহমান, পলাশবাড়ি ইউনিয়নে আওয়ামী লীগের মমতাজ আলী প্রামাণিক, গোড়গ্রাম ইউনিয়নে আওয়ামী লীগের রেয়াজুল ইসলাম, লক্ষ্মীচাপ ইউনিয়নে স্বতন্ত্র প্রার্থী আমিনুর রহমান।

সিলেট

গোয়াইনঘাটের বিজয়ীরা হচ্ছেন নন্দীরগাঁওয়ে আওয়ামী লীগ প্রার্থী এস কামরুল হাসান আমিরুল, পূর্ব জাফলং ইউনিয়নে আওয়ামী লীগের বিদ্রোহী প্রার্থী লুৎফুর রহমান লেবু, পশ্চিম জাফলং ইউনিয়নে আওয়ামী লীগের প্রার্থী আবদুস সালাম, তোয়াকুল ইউনিয়নে বিএনপি প্রার্থী খালেদ আহমদ, রুস্তমপুর ইউনিয়নে বিএনপি প্রার্থী মোহাম্মদ শাহাব উদ্দিন শিহাব, আলীরগাঁও ইউনিয়নে আওয়ামী লীগ প্রার্থী গোলাম কিবরিয়া হেলাল ও ফতেহপুর ইউনিয়নে আওয়ামী লীগ প্রার্থী আমিনুর রশীদ চৌধুরী। কোম্পানীগঞ্জে বিজয়ীরা হচ্ছেন পশ্চিম ইসলামপুর ইউনিয়নে আওয়ামী লীগের জামাল উদ্দিন, পূর্ব ইসলামপুরে বিএনপির বিদ্রোহী বাবুল মিয়া। এছাড়া বাকিগুলোতে বিজয়ী হয়েছেন আওয়ামী লীগের বিদ্রোহী প্রার্থীরা। তারা হলেন তেলিখালে বর্তমান চেয়ারম্যান কাজী আবদুল ওদুদ আলফু মিয়া, ইছাকলসে কুটি মিয়া, দক্ষিণ রণিখাইয়ে সিদ্দিকুর রহমান রোকন ও উত্তর রণিখাইয়ে ফরিদ উদ্দিন বিজয়ী। সুনামগঞ্জ জেলার ছাতক উপজেলায় বিজয়ীরা হচ্ছেন ইসলামপুর ইউনিয়নে আওয়ামী লীগের প্রার্থী আবদুল হেকিম, কালারুকা ইউনিয়নে আওয়ামী লীগ প্রার্থী অদুদ আলম, খুরমা (উত্তর) ইউনিয়নে আওয়ামী লীগ প্রার্থী বিল্লাল আহমদ, খুরমা (দক্ষিণ) ইউনিয়নে আওয়ামী লীগের আবদুল মছব্বির, ছাতক সদর ইউনিয়নে আওয়ামী লীগ প্রার্থী সাইফুল ইসলাম, ছৈলা আফজালাবাদ ইউনিয়নে আওয়ামী লীগ প্রার্থী গয়াছ আহমদ, দোলারবাজার ইউনিয়নে আওয়ামী লীগ প্রার্থী শায়েস্তা মিয়া, ভাতগাঁও ইউনিয়নে আওয়ামী লীগ প্রার্থী আওলাদ হোসেন মাস্টার, সিংচাপইড় ইউনিয়নে আওয়ামী লীগের সাহাব উদ্দিন সাহেল, জাউয়াবাজার ইউনিয়নে আ.লীগ (বিদ্রোহী) মুরাদ হোসেন, নোয়ারই ইউনিয়নে বিজয়ী হয়েছেন আ.লীগ (বিদ্রোহী) দেওয়ান আবদুল খালিক পীর ও সৈদেরগাঁও ইউনিয়নে আ.লীগ (বিদ্রোহী) আখলাকুর রহমান। ছাতকে বিএনপির বিদ্রোহী বিজয়ী হচ্ছেন চরমহল্লা ইউনিয়নের আবুল হাসনাত।

হবিগঞ্জ

আজমিরীগঞ্জ উপজেলার আজমিরীগঞ্জ সদরে বিজয়ীরা হচ্ছেন আজমিরীগঞ্জ সদরে আওয়ামী লীগ প্রার্থী আবদুস কুদ্দুছ সেন, কাকাইলছিওতে আওয়ামী লীগ প্রার্থী নুরুল হক ভুইয়া, জলসুখায় আওয়ামী লীগের বিদ্রোহী ফয়েজ আহমেদ খেলু, বদলপুরে আওয়ামী লীগ প্রার্থী সুশেনজিৎ চৌধুরী, শিবপাশায় আওয়ামী লীগ বিদ্রোহী আমজাদ তালুকদার। মৌলভীবাজার জেলার বড়লেখা উপজেলায় বিজয়ীরা হচ্ছেন বড়লেখা সদর ইউনিয়নে আওয়ামী লীগের সুয়েব আহমদ, উত্তর শাহবাজপুরে আওয়ামী লীগ প্রার্থী আহমদ জুবায়ের লিটন, তালিমপুর আওয়ামী লীগ প্রার্থী বিদ্যুৎ কান্তি দাস, দক্ষিণভাগে (উত্তর) আওয়ামী লীগ এনাম আহমদ, দক্ষিণভাগে (দক্ষিণ) আওয়ামী লীগ প্রার্থী আজির উদ্দিন, দক্ষিণ শাহবাজপুর আওয়ামী লীগ বিদ্রোহী শাহাব উদ্দিন, দাসেরবাজার বিএনপি কমর উদ্দিন, বর্ণিতে আওয়ামী লীগ এনাম আহমদ, নিজ বাহাদুরপুর আওয়ামী লীগ প্রার্থী ময়নুল হক ও সুজানগরে বিএনপি নছিব আলী।

মৌলভীবাজার

জুড়ী উপজেলায় বিজয়ীরা হচ্ছেন গোয়ালবাড়ী ইউনিয়নে আওয়ামী লীগের শাহাব উদ্দিন আহমদ লেমন, জায়ফরনগরে বিএনপি মাছুম রেজা, পশ্চিম জুড়ীতে আওয়ামী লীগের শ্রীকান্ত দাস, পূর্ব জুড়ীতে আওয়ামী লীগের সালেহ উদ্দিন আহমেদ ও সাগরনাল ইউনিয়নে বিএনপির ইমদাদুর ইসলাম চৌধুরী লিয়াকত।

নেত্রকোনা

আটপাড়া উপজেলার বানিয়াজান ইউনিয়নে ফেরদৌস রানা আঞ্জু (আ’লীগ), স্বরমুশিয়ায় আব্দুস সাত্তার (আ’লীগ), শুনইয়ে সানোয়ার হোসেন ছানু (আ’লীগ), লুনেশ্বরে মাহফুজুল ইসলাম শিরিন (আ’লীগ), তেলিগাতিতে জাহাঙ্গীর হাসান (আ’লীগ), দুওজে আব্দুস সেলিম মনি (আ’লীগ) ও সুখারীতে কফিল উদ্দিন খোকন (আ’লীগ)। মদন উপজেলার মদন সদর ইউনিয়নে বদরুজ্জামান খান মানিক (বিএনপির বিদ্রোহী), কাইটাইলে সাফায়েত উল্লাহ রয়েল (আ’লীগ), চানগাঁয়ে নূরুল আলম তালুকদার (বিএনপি), গোবিন্দশ্রীতে একেএম নূরুল ইসলাম ছদ্দু মিয়া (আ’লীগ), মাঘানে জিএম শামছুল আলম চৌধুরী (আ’লীগ), তিয়শ্রীতে ফকরউদ্দিন আহমেদ (বিএনপির বিদ্রোহী), নায়েকপুরে আতিকুর রহমান (বিএনপি) ও ফতেপুরে রফিকুল ইসলাম চৌধুরী (বিএনপি)।

কেরানীগঞ্জ

আ’লীগ বিজয়ী চেয়ারম্যান প্রার্থীরা হলেন হযরতপুর ইউনিয়নে আনোয়ার হোসেন আয়নাল, কলাতিয়া ইউনিয়নে তাহের আলী, তারানগর ইউনিয়নে মোশারফ হোসেন ফারুক, রুহিতপুর ইউনিয়নে আব্দুল আলী, বাস্তা ইউনিয়নে হাজী আশকর আলী, কালিন্দী ইউনিয়নে হাজী মোজাম্মেল হোসেন, শুভাঢ্যা ইউনিয়নে ইকবাল হোসেন, আগানগর ইউনিয়নে জাহাঙ্গীর শাহ খুশি, তেঘরিয়া ইউনিয়নে হাজী জজ মিয়া ও কোন্ডা ইউনিয়নে ফারুক চৌধুরী।

নওগাঁ

পতœীতলা উপজেলার পতœীতলা ইউনিয়নে মোস্তফা শাহ চৌধুরী (আঃ লীগ), নির্মইল ইউনিয়নে আবুল কালাম আজাদ (আঃ লীগ), শিহাড়া ইউনিয়নে মোস্তাক আহম্মেদ (আঃ লীগ), দিবর ইউনিয়নে আব্দুল হামিদ সরকার(আঃ লীগ), পাটিচরা ইউনিয়নে রাইহানুল আলম (আঃ লীগ), আমাইড় ইউনিয়নে ইসমাইল হোসেন (আঃ লীগ), ঘোষনগর ইউনিয়নে আবু বক্কর সিদ্দিক (আঃ লীগ), নজিপুর ইউনিয়নে সাদেক উদ্দিন (আঃ লীগ), মাটিন্দর ইউনিয়নে জাহাঙ্গীর হোসেন (আওয়ামী লীগ বিদ্রোহী), আকবরপুর ইউনিয়নে কামাল হোসেন (আওয়ামী লীগ বিদ্রোহী) এবং কৃষ্ণপুর ইউনিয়নে নজরুল ইসলাম (বিএনপি বিদ্রোহী)। ধামইরহাট উপজেলার ধামইরহাট ইউনিয়নে কামরুজ্জামান(আঃ লীগ), আগ্রাদ্বিগুণ ইউনিয়নে সালেহ উদ্দিন আহম্মেদ (আঃ লীগ), আলমপুর ইউনিয়নে ফজলুর রহমান (আঃ লীগ), আড়ানগর ইউনিয়নে শাহজাহান আলী (আঃ লীগ), ইসবপুর ইউনিয়নে আবু ওয়াদুদ (আঃ লীগ), খেলনা ইউনিয়নে আব্দুস সালাম (আঃ লীগ), উমার ইউনিয়নে নুরুজ্জামান (বিএনপি) এবং জাহানপুর ইউনিয়ন পরিষদে ওসমান আলী (আওয়ামী লীগের বিদ্রোহী)।

চাঁদপুর

সদর উপজেলার আওয়ামী লীগের বিজয়ী প্রার্থীরা হচ্ছেন ১নম্বর বিষ্ণপুরে নাছির উদ্দিন খান শামীম, ২নং আশিকাটিতে বিল্লাল হোসেন মাস্টার, ৩ নম্বর কল্যাণপুরে সাখাওয়াত হোসেন পাটোয়ারী রনি, ৫নম্বর রামপুরে আল মামুন পাটোয়ারী, ৭নম্বর তরপুরচ-ীতে ইমাম হাসান রাসেল গাজী, ৮নম্বর বাগাদীতে বেলায়েত হোসেন গাজী বিল্লাল, ১১নম্বর ইব্রাহিমপুরে আবুল কাশেম খান, ১২নম্বর চান্দ্রায় খান জাহান আলী কালু, ১৩ নম্বর হানারচরে আব্দুস সাত্তার রাড়ী, ১৪ নম্বর রাজরাজেশ্বরে হযরত আলী বেপারী। বিএনপির ৪ নম্বর শাহমাহমুদপুরে স্বপন মাহমুদ ও ৬নম্বর মৈশাদী ইউনিয়নে মনিরুজ্জামান মানিক। হাইমচর উপজেলায় আওয়ামী লীগের ১নম্বর গাজীপুর ইউনিয়নে হাবিবুর রহমান গাজী, ২নম্বর আলগী দুর্গাপুর উত্তরে মনির আহামেদ দুলাল, ৪নম্বর নীলকমলে সালাউদ্দিন আহামেদ সর্দার ও ৫নম্বর হাইমচরে শাহাদাত হোসেন সরকার। বিএনপির ৩নম্বর আলগী দুর্গাপুর দক্ষিণ ইউনিয়নে সর্দার আঃ জলিল মাস্টার।

বগুড়া

শিবগঞ্জের ময়দানহাটা ইউনিয়ন পরিষদে আওয়ামী লীগ প্রার্থী এ এস এম রূপম, কিচকে এবিএম নাজমুল কাদের চৌধুরী (আওয়ামী লীগ), আটমুলে মোজাফ্ফর হোসেন (স্বতন্ত্র), পিরবে শফিকুল ইসলাম (বিএনপি), মাঝিহট্টতে মীর্জা গোলাম হাফিজ সোহাগ (স্বতন্ত্র), বুড়িগঞ্জে আব্দুল গফুর ম-ল (আওয়ামী লীগ), বিহারে মহিদুল ইসলাম (আওয়ামী লীগ), দেউলিতে আব্দুল হাই (আওয়ামী লীগ বিদ্রোহী), সৈয়দপুরে মাহমুদ হোসেন তৈৗফিক (বিএনপি বিদ্রোহী), রায়নগরে ফিরোজ আহম্ম্দ রিজু (স্বতন্ত্র), মোকামতলায় মোখলেছুর রহমান (বিএনপি) ও শিবগঞ্জ সদরে তোফায়েল আহমেদ সাবু (বিএনপি)। সোনাতলার বিজয়ী সবাই আওয়ামী লীগের। তারা হলেন তেকানীচুকাইনগরে শামসুল হক, পাকুল্লায় জুলফিকার রহমান শান্ত, দিগদাইরে আবু তৈয়ব শামীম, জোরগোছায় রোস্তম আলী, মধুপুরে অসীম কুমার জৈন ও সোনাতলা সদর ইউনিয়নে মাহবুবুল আলম।

দিনাজপুর

বোচাগঞ্জ উপজেলার নাফানগর ইউনিয়নে বিএনপির শাহান পারভেজ, ঈশানিয়া ইউনিয়নে আ’লীগের উৎপল রায়, মুর্শিদহাট ইউনিয়নে আ’লীগের জাফর উল্লাহ, আটগাঁও ইউনিয়নে বিএনপি’র কফিল উদ্দিন, ছাতইল ইউনিয়নে আ’লীগের হাবিবুর রহমান, রনগাঁও ইউনিয়নে আ’লীগের আনিসুর রহমান। কাহারোল উপজেলার ডাবর ইউনিয়নে আ’লীগের সত্যজিৎ রায়, রসুলপুর ইউনিয়নে আ’লীগের নজরুল ইসলাম, মুকুন্দপুর ইউনিয়নে আ’লীগের একেএম ফারুক হোসেন, তারগাঁও ইউনিয়নে আ’লীগের বিদ্রোহী সাইফুল ইসলাম, সুন্দরপুর ইউনিয়নে আ’লীগের শরিফ উদ্দিন মাস্টার ও রামচন্দ্রপুর ইউনিয়নে আ’লীগের আতাউল ইসলাম বাবুল। ফুলবাড়ী উপজেলার এলুয়াড়ী ইউনিয়নে বিএনপি’র মাওলানা নবিউল ইসলাম, আলাদীপুর ইউনিয়নে আ’লীগের মোজাফফর হোসেন সরকার, কাজীহাট ইউনিয়নে আ’লীগের মানিক রতন, বেতদীঘি ইউনিয়নে আ’লীগের আব্দুল কুদ্দুস, খয়েরবাড়ী ইউনিয়নে আ’লীগের আবু তাহের ম-ল, দৌলতপুর ইউনিয়নে আ’লীগের আব্দুল আজিজ ম-ল, শিবনগর ইউনিয়নে আ’লীগের বিদ্রোহী মামুনুর রশিদ চৌধুরী। বিরামপুর উপজেলার মুকুন্দপুর ইউনিয়নে আ’লীগের বিদ্রোহী সাইফুল ইসলাম, কাটলা ইউনিয়নে বিএনপি’র নাজির হোসেন, খানপুর ইউনিয়নে আ’লীগের বিদ্রোহী ইয়াকুব আলী, দিওড় ইউনিয়নে আ’লীগের হাফিজুল ইসলাম, বিনাইল ইউনিয়নে আ’লীগের বিদ্রোহী শহীদুল ইসলাম, জোতবানী ইউনিয়নে বিএনপি’র আব্দুর রাজ্জাক ও পলিপ্রায়গপুর ইউনিয়নে আ’লীগের রহমত আলী। নবাবগঞ্জ উপজেলার বিনোদনগর আ’লীগের বিদ্রোহী মনোয়ার হোসেন, জয়পুর ইউনিয়নে আ’লীগের আইনুল হক চৌধুরী, গোলাপগঞ্জ ইউনিয়নে আ’লীগের বিদ্রোহী রাশেদুল কবীর, শালঘুরিয়া ইউনিয়নে বিএনপি এনামুল হক, পুটিমারা ইউনিয়নে আ’লীগের সরোয়ার হোসেন, ভাদুরিয়া ইউনিয়নে স্বতন্ত্র আসমান জামিল, দাউদপুর ইউনিয়নে আ’লীগের আব্দুল্লাহ হেল আজিম, মাহমুদপুর ইউনিয়নে আ’লীগের বিদ্রোহী রহিম বাদশা ও কুশদহ ইউনিয়নে আ’লীগের আবু শাহাদৎ মোহাম্মদ সায়েম আলী চেয়ারম্যান হিসাবে নির্বাচিত হয়েছেন।

গোপালগঞ্জ

সদর উপজেলায় ১৪টি ও কোটালীপাড়ায় ১টি ইউনিয়নে আওয়ামী লীগ প্রার্থী বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় চেয়ারম্যান নির্বাচিত হয়েছেন। এরা হলেন সদর উপজেলার গোবরা ইউনিয়নে সফিকুর রহমান চৌধুরী (টুটুল), বোড়াশী ইউনিয়নে এমএম মনির হোসেন (ননী), লতিফপুর ইউনিয়নে ফকরুল ইসলাম, রঘুনাথপুর ইউনিয়নে শ্রীবাস বণিক, হরিদাসপুর ইউনিয়নে মুকিতুজ্জামান মুন্সি, দুর্গাপুর ইউনিয়নে নাজিব আহম্মদ, উলপুর ইউনিয়নে কামরুল ইসলাম (বাবুল), কাজুলিয়া ইউনিয়নে মাখন দাস, সাতপাড় ইউনিয়নে সুজিৎ ম-ল, সাহাপুর ইউনিয়নে সুবোধ হীরা, করপাড়া ইউনিয়নে শাহ্ সুফিয়ান সিকদার, বৌলতলী ইউনিয়নে সুকান্ত বিশ্বাস, কাঠি ইউনিয়নে বাচ্চু শেখ ও শুকতাইল ইউনিয়নে সহিদুল ইসলাম মোল্লা এবং কোটালীপাড়া উপজেলার পিঞ্জুরী ইউনিয়নে আবু সাঈদ শিকদার। সদর উপজেলার বাকি ৭টি ইউনিয়নের উরফি ইউনিয়নে আওয়ামী লীগের বিদ্রোহী ইকবাল গাজী, জালালাবাদ ইউনিয়নে আওয়ামী লীগের সুপারুল আলম (টিকে), পাইককান্দি ইউনিয়নে আওয়ামী লীগের শাহজাহান সিকদার, চন্দ্রদীঘলিয়া ইউনিয়নে আওয়ামী লীগের বিএম ওবায়দুর রহমান, মাঝিগাতী ইউনিয়নে আওয়ামী লীগের কাজী মনোয়ার হোসেন মন্টু, নিজড়া ইউনিয়নে আওয়ামী লীগের আজিজুর রহমান এবং গোপীনাথপুর ইউনিয়নে আওয়ামী লীগের শরীফ আমিনুল হক (লাচ্ছু শরীফ)। অপরদিকে, কোটালীপাড়া উপজেলার বাকি ৯ ইউনিয়নেই চেয়ারম্যান পদে আওয়ামী লীগ প্রার্থীরা বিজয়ী হয়েছেন। এরা হলেন কলাবাড়ী ইউনিয়নে মাইকেল ওঝা, রাধাগঞ্জ ইউনিয়নে অমৃতলাল হালদার, সাদুল্যাপুর ইউনিয়নে ভীম চন্দ্র বাড়ৈ, রামশীল ইউনিয়নে খোকন বালা, বান্ধাবাড়ী ইউনিয়নে মহব্বত আলী গোলদার, আমতলী ইউনিয়নে হান্নান শেখ, কান্দি ইউনিয়নে উত্তম কুমার বাড়ৈ, কুশলা ইউনিয়নে কামরুল ইসলাম বাদল ও শুয়াগ্রাম ইউনিয়নে মনীন্দ্রনাথ হালদার।

মাগুরা

আওয়ামী লীগের আঠারখাদায় সঞ্জিবন বিশ্বাস, বেরইল পলিতায় খন্দকার মহব্বত আলী, বগিয়ায় মীর রওনক হোসেন, জগদলে সৈয়দ রফিকুল ইসলাম, কছুন্দীতে আবুল কাশেম মোল্যা, শত্রুজিতপুরে সঞ্জিত কুমার বিশ্বাস, চাউলিয়ায় হাফিজার রহমান মোল্যা, মঘিতে আব্দুল হাই সরদার, রাঘবদাইড়ে আশারাফুল আলম বাবুল ফকির, হাজরাপুরে কবির হোসেন, হাজিপুরে মোজাহারুল হক আখরট এবং গোপালগ্রাম ইউনিয়ন থেকে একমাত্র স্বতন্ত্র প্রার্থী নাজমুল হাসান রাজিব বিজয়ী হয়েছেন।

ঠাকুরগাঁও

হরিপুর উপজেলার ১নং গেদুরা ইউনিয়নে আব্দুল হামিদ (নৌকা), ২নং আমগাঁও ইউনিয়নে শামসুল হুদা (নৌকা), ৩নং বকুয়া ইউনিয়নে আবুল কাশেম বর্ষা (ধানের শীষ), ৪নং ডাঙ্গীপাড়া ইউনিয়নে মনিরুজ্জামান (নৌকা), ৫নং হরিপুর ইউনিয়নে আতাউর রহমান মংলা (স্বতন্ত্র) ৬নং ভাতুরিয়া ইউনিয়নে শাহজাহান সরকার ( নৌকা)। রাণীশংকৈল উপজেলার ১নং ধর্মগড় ইউনিয়নে শফিকুল ইসলাম মুকুল (নৌকা), ২নং নেকমরদ ইউনিয়নে এনামুল হক (স্বতন্ত্র), ৩নং কাশিপুর ইউনিয়নে আব্দুর রউফ নৌকা, ৪নং লেহেম্বা ইউনিয়নে আবুল কালাম (নৌকা), ৭নং রাতোর ইউনিয়নে আব্দুর রহিম (স্বতন্ত্র) ।

গাইবান্ধা

সুন্দরগঞ্জ উপজেলার সোনারায় ইউনিয়নে আওয়ামী লীগের বদিরুল আহ্সান সেলিম, দহবন্দ ইউনিয়নে আওয়ামী লীগের গোলাম কবির মুকুল, ধোপাডাঙ্গা ইউনিয়নে আওয়ামী লীগের মোখলেছুর রহমান রাজু, ছাপড়হাটী ইউনিয়নে আওয়ামী লীগের কনক কুমার গোস্বামী, শ্রীপুর ইউনিয়নে আওয়ামী লীগের শহিদুল ইসলাম, বামনডাঙ্গায় বিএনপির নজমুল হুদা, কঞ্চিবাড়িতে বিএনপির মনোয়ার আলম সরকার, তারাপুরে স্বতন্ত্র আমিনুল ইসলাম লেবু, সর্বানন্দ ইউনিয়নে স্বতন্ত্র মাহাবুর রহমান, রামজীবন ইউনিয়নে স্বতন্ত্র মিজানুর রহমান, বেলকা ইউনিয়নে স্বতন্ত্র ইব্রাহিম খলিলুল্লাহ্, শান্তিরাম ইউনিয়নে স্বতন্ত্র ছামিউল ইসলাম।

রংপুুুর

পীরগঞ্জ উপজেলায় আওয়ামী লীগের নির্বাচিত প্রার্থীরা হলেন চৈত্রকোল ইউনিয়নে জিয়াউর রহমান সবুজ, বড়দরগা ইউনিয়নে মোতাহারুল হক বাবলু, কুমেদপুর ইউনিয়নে মোশফাক হোসেন চৌধুরী ফুয়াদ, মদনখালী ইউনিয়নে শামছুল হক, টুকুরিয়া ইউনিয়নে আতোয়ার রহমান, শানেরহাট ইউনিয়নে মিজানুর রহমান মন্টু, পাঁচগাছী ইউনিয়নে আব্দুল লতিফ মিয়া, মিঠিপুর ইউনিয়নে এসএম ফারুক আহমেদ, চতরা ইউনিয়নে এনামুল হক শাহীন, কাবিলপুর ইউনিয়নে রবিউল ইসলাম রবি। ভে-াবাড়ি ইউনিয়নে বিএনপির বিদ্রোহী রবিউল ইসলাম।

পাবনা

ফরিদপুর উপজেলার ফরিদপুর ইউনিয়নে আওয়ামী লীগের সরোয়ার হোসেন, ডেমরা ইউনিয়নে আওয়ামী লীগের মাহফুজুর রহমান, হাদল ইউনিয়নে আওয়ামী লীগের সেলিম রেজা, পুংলী ইউনিয়নে আওয়ামী লীগের আমিনুর রহমান মুকুল সরকার, বিএলবাড়ি ইউনিয়নে বিএনপির জাহাঙ্গীর আলম, বনওয়ারীনগর ইউনিয়নে বিএনপির জিয়াউর রহমান জিয়া। ভাঙ্গুড়া উপজেলার অষ্টমনিষা ইউনিয়নের বিএনপির আয়নুল হক, দিলপাশা ইউনিয়নে আওয়ামী লীগের অশোক কুমার ঘোষ, খানমরিচ ইউনিয়নে আওয়ামী লীগের আসাদুর রহমান ও পারভাঙ্গুড়া ইউনিয়নে আওয়ামী লীগের হেদায়েতুল হক।

চট্টগ্রাম

মীরসরাইয়ের ৯ ইউনিয়ন পরিষদে জয়ী আওয়ামী লীগ প্রার্থীরা হলেন-হিঙ্গুলি ইউনিয়নে নাছির উদ্দিন হারুন, জোরারগঞ্জ মকসুদ আহমেদ চৌধুরী, ধূম জাহাঙ্গীর ভূইয়া, ওসমানপুর মফিজুল হক মাস্টার, ইছাখালী নুরুল মোস্তফা, কাটাছড়া রেজাউল করিম হুমায়ুন, দুর্গাপুর আবু সুফিয়ান বিপ্লব, মীরসরাই সদর এমরান উদ্দিন এবং সাহেরখালী ইউনিয়নে কামরুল ইসলাম চৌধুরী। সীতাকু- উপজেলায় ৯ ইউনিয়ন পরিষদে বিজয়ী আওয়ামী লীগ প্রার্থীরা হলেন-সৈয়দপুর ইউনিয়নে তাজুল ইসলাম নিজামী, বারৈয়াঢালা রেহান উদ্দিন রেহান, মুরাদপুর জাহেদ হোসেন নিজামি, বাড়বকুন্ড সাদেকাতুল্লা মিয়াজি, বাঁশবাড়িয়া শওকত আলী, কুমিরা মোরশেদ হোসাইন চৌধুরী, সোনাইছড়ি মনির আহমেদ, ভাটিয়ারি মোহাম্মদ নাজিম উদ্দিন এবং সলিমপুর সালাউদ্দিন আজিজ। সন্দ্বীপ উপজেলায় ১২ ইউনিয়ন পরিষদের মধ্যে ১১টিতে জয়লাভ করেন আওয়ামী লীগ চেয়ারম্যান প্রার্থীরা। একটি ইউনিয়নে বিজয়ী হন জাতীয় পার্টির প্রার্থী। আওয়ামী লীগের বিজয়ী প্রার্থীরা হলেন-সন্তোষপুর মাকসুদুর রহমান ফুল মিয়া, আমানউল্লায় শাহাদাত হোসেন চৌধুরী, গাছুয়া শামসুদ্দিন রাজধন, বাউরিয়া মোঃ জামাল উদ্দিন, হারামিয়া মোহাম্মদ আলী খসরু, রহমতপুর মাস্টার ইলিয়াস খান, আজিমপুর আবদুল আজিজ, মুসাপুর আবুল খায়ের নাদিম, মগধরা এসএম আনোয়ার হোসেন, সারিকাইত ফখরুল ইসলাম পনির এবং মাইটভাঙ্গা মিজানুর রহমান মিজান। চেয়ারম্যান জাতীয় পার্টির একমাত্র প্রার্থী এমএ সালাম বিজয়ী হন হরিশপুর ইউনিয়ন পরিষদে।