১৫ নভেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

মাদারীপুরে পুলিশের গুলিতে ঢাবি ছাত্র নিহত

নিজস্ব সংবাদদাতা, মাদারীপুর, ১ এপ্রিল ॥ বৃহস্পতিবার রাতে সদর উপজেলার ধুরাইল ইউনিয়নে নির্বাচনী সহিংসতায় পুলিশের গুলিতে নিহত ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্র সুজন মৃধার লাশ ময়নাতদন্ত শেষে শুক্রবার দুপুরে তার পরিবারের কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে। সুজনের লাশ দক্ষিণ বীরাঙ্গল গ্রামের বাড়িতে পৌঁছলে আত্মীয়-স্বজন, পাড়া-প্রতিবেশীরা কান্নায় ভেঙ্গে পড়েন। তাদের চিৎকারে পরিবেশ ভারি হয়ে ওঠে। এমন মৃত্যু কেউ মেনে নিতে পারছেন না। তিন ভাইবোনের মধ্যে সুজন ছিল সবার বড়। সংসারের বড় ভাইকে হারিয়ে ছোট ভাই ও বোন এখন দিশাহারা। বাবা-মা বার বার গগনভেদী চিৎকার করে ছেলেকে ডাকছেন। এরই মধ্যে ঢাকা থেকে এসেছে সুজনের ৮/১০ সহপাঠী। তাদেরও চোখে-মুখে বিষাদের ছায়া। নিহত সুজনের সহপাঠী এমারত হোসেন কান্নাজড়িত কণ্ঠে বললেন, সুজন আমাদের ছেড়ে এমনভাবে চলে যাবে ভাবতেও পারিনি। ও ছিল আমাদের প্রিয় বন্ধু। খুব কষ্ট করে ঢাকায় লেখাপড়া করত। কি দিয়ে কি হয়ে গেল সব চিন্তার বাইরে।

নিহত সুজনের পিতা বাচ্চু মৃধা বলেন, এএসআই এনামুল গুলির হুকুম দিলে কনস্টেবল মাসুদ আমার ছেলেকে গুলি করে হত্যা করে। আমি এর বিচার চাই। উল্লেখ্য, নির্বাচনী সহিংসতায় বৃহস্পতিবার রাতে ধুরাইল ইউনিয়নে দক্ষিণ বীরাঙ্গল গ্রামে পুলিশের গুলিতে সুজন মৃধা (২৫) নিহত হয়। সে ছিল ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের মার্কেটিং (অনার্স) তৃতীয় বর্ষের ছাত্র। শুক্রবার বিকেলে সুজনের নিজ বাড়িতে পারিবারিক দাফন সম্পন্ন হয়।