২০ অক্টোবর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

শেষ রোমাঞ্চের অপেক্ষায় ইডেন

মিথুন আশরাফ, মুম্বাই থেকে ॥ আর মাত্র মাঝখানে একদিন বাকি। এরপরই রবিবার কলকাতার ইডেন গার্ডেনে ফাইনাল ম্যাচে মুখোমুখি হবে ওয়েস্ট ইন্ডিজ ও ইংল্যান্ড। যে জিতবে, শিরোপা তাদের হাতেই শোভা পাবে। শেষও হয়ে যাবে টি২০ বিশ্বকাপের ষষ্ঠ আসর।

বিশ্বকাপ মূলত শুরু হয়েছিল ৮ মার্চ। প্রথম পর্ব বা বাছাইপর্বের ম্যাচ দিয়ে বিশ্বকাপ শুরু হয়েছে। ১৬ দল এবার টি২০ বিশ্বকাপের ষষ্ঠ আসরে অংশ নিয়েছে। ভারতে আর দুইদিন পরই শেষ হতে যাওয়া এ বিশ্বকাপে স্বাগতিক ভারতসহ টেস্ট খেলুড়ে অস্ট্রেলিয়া, ইংল্যান্ড, নিউজিল্যান্ড, পাকিস্তান, দক্ষিণ আফ্রিকা, শ্রীলঙ্কা, ওয়েস্ট ইন্ডিজ, বাংলাদেশ ও জিম্বাবুইয়ে অংশ নিয়েছে। আইসিসির সহযোগী দেশগুলোর মধ্যে আফগানিস্তান, স্কটল্যান্ড, হল্যান্ড, আয়ারল্যান্ড, হংকং ও ওমান খেলেছে। এদের মধ্যে ওমান প্রথমবারের মতো টি২০ বিশ্বকাপে খেলেছে। শুরুতেই ‘সুপার টেনে’ ওঠার আশা জাগিয়েছে।

বাছাইপর্বে ছয় দল খেলেছে। টেস্ট খেলুড়ে দলগুলোর মধ্যে টি২০ র‌্যাঙ্কিংয়ের সেরা আটে থাকা দলগুলো সরাসরি ‘সুপার টেনে’ খেলেছে। বাকি দুই দল বাংলাদেশ ও জিম্বাবুইয়েকে বাছাইপর্ব খেলতে হয়েছে। বাছাইপর্বে বাংলাদেশ উতরে গেলেও জিম্বাবুইয়ে পারেনি। আফগানিস্তান বাছাইপর্বে উতরেছে। মোট ১০ দল নিয়ে ‘সুপার টেনে’র খেলা শুরু হয়েছে ১৫ মার্চ। এক এক করে ‘সুপার টেন’ থেকে ছিটকে পড়েছে ৬ দল। এর মধ্যে ‘গ্রুপ-১’ থেকে দক্ষিণ আফ্রিকা, শ্রীলঙ্কা ও আফগানিস্তান এবং ‘গ্রুপ-২’ থেকে বাংলাদেশ, পাকিস্তান ও অস্ট্রেলিয়া শুরুতেই বিদায় নিয়েছে। চার দল উঠেছে সেমিফাইনালে। ‘গ্রুপ-১’ থেকে ওয়েস্ট ইন্ডিজ ও ইংল্যান্ড এবং ‘গ্রুপ-২’ থেকে নিউজিল্যান্ড ও ভারত সেমিফাইনালে খেলা নিশ্চিত করেছে। সেমিফাইনালে নয়াদিল্লীতে ইংল্যান্ড ও নিউজিল্যান্ড মুখোমুখি হয়েছে। মুম্বাইয়ে ওয়েস্ট ইন্ডিজ ও ভারত লড়াই করেছে। নিউজিল্যান্ডকে ৭ উইকেটে হারিয়ে দিল্লী জয় করেছে ইংল্যান্ড। আর ভারতকে একই ব্যবধানে হারিয়ে মুম্বাই জয় করেছে ওয়েস্ট ইন্ডিজ। দুই দলই সেমিফাইনালে ৭ উইকেটে জিতেছে। ফাইনালে খেলার টিকেট নিশ্চিত করেছে। এখন দুই দল বাকি আছে। আর বাকি আছে বিশ্বকাপে একটি মাত্র ম্যাচ। ওয়েস্ট ইন্ডিজ ও ইংল্যান্ড, দুই দলই কলকাতা জয় করার অপেক্ষায় আছে। ২৭ দিনের টুর্নামেন্ট জিতে নেয়ার আশায় আছে। কে জিতবে টুর্নামেন্টের ৩৫তম ম্যাচ, ফাইনাল ম্যাচ? শিরোপা কার ঘরে উঠবে? সেই তর্ক এখনই শুরু হয়ে গেছে। যে দলই জিতুক, দ্বিতীয়বারের মতো টি২০ বিশ্বকাপ জয় করবে। এবং সেটি সবচেয়ে বেশি দ্বিতীয়বার চ্যাম্পিয়ন হওয়ার গৌরবও অর্জন করবে। এখন পর্যন্ত যে কোন দলই একবারের বেশি স্বল্পওভারের বিশ্বকাপ জিততে পারেনি। ২০০৭ সালে ভারত, ২০০৯ সালে পাকিস্তান, ২০১০ সালে ইংল্যান্ড, ২০১২ সালে ওয়েস্ট ইন্ডিজ ও ২০১৪ সালে শ্রীলঙ্কা বিশ্বকাপ জিতেছে। এবার তাহলে সেই গৌরব নিজেদের করে নেবে কোন দল? ওয়েস্ট ইন্ডিজ অধিনায়ক ড্যারেন সামি বলে দিয়েছেন, ‘আমরা যুবাদের কাছ থেকে প্রেরণা পেয়েছি। যারা এ বছরই অনুর্ধ ১৯ বিশ্বকাপ জিতেছে। মহিলা দল থেকেও প্রেরণা খুঁজেছি। যারা আমাদের ম্যাচ শুরু হওয়ার আগেই ফাইনালে খেলা নিশ্চিত করেছে। এখন আমরা দুই দলই ফাইনালে খেলব। আমাদের দলের সামনে যে প্রতিপক্ষই আসুক, হারানো সম্ভব।’ ওয়েস্ট ইন্ডিজ অধিনায়ক যখন এমন কথা বলছেন, তার আগেই ইংল্যান্ড অধিনায়ক ইয়ন মর্গান আগেই বলে রেখেছেন, ‘আমরা এ মুহূর্তে যে কোন দলকেই হারাতে প্রস্তুত আছি। আমরা এখন দল হিসেবে অনেক ভাল একটি পজিশনে আছি। দলটিকে তিনি স্বপ্ন দেখতে পারা যায়। দলের ক্রিকেটাররা অনেক ছাড় দিয়েছে। এমন পর্যায়ে আসার জন্য অনেক পরিশ্রমও করেছে।’

ইংল্যান্ড ক্রিকেটাররা যেমন পরিশ্রম করেছে, তেমন করে ওয়েস্ট ইন্ডিজ ক্রিকেটাররাও করেছে। এত দূর আসাটা খুব সহজ নয়। তবে গ্রুপ পর্বে কিন্তু ওয়েস্ট ইন্ডিজের কাছে হেরেছে ইংল্যান্ড। সেটিও মনে রাখতে হবে। আর ওয়েস্ট ইন্ডিজ দলটিতে তো এখন ম্যাচ উইনারের অভাব নেই। সেটি ভারতের বিপক্ষে সেমিফাইনালে প্রমাণ হয়ে গেছে। আর যদি গেইল তার বিধ্বংসী রূপ ফিরিয়ে আনেন, তাহলে তো কথাই নেই। সেই দিকটি নিয়ে কী ভাবছে ইংল্যান্ড? টি২০ ক্রিকেট এমন এক খেলা, দিনটিতে আসলে যারা ভাল করে, তারাই জিতে। এখানে শক্তি ও দুর্বলতা নিয়ে বেশি মাথা ঘামানোর সুযোগ নেই। তাই ইংল্যান্ড দলের ফর্মুলা একেবারে সহজ, ‘মাঠে নামো। নিজের জন্য ভাল খেল। দল এমনিতেই জিতবে।’ এখন দেখা যাক কোন ফর্মুলাতে কাজ হয়। দুটি দল আর একটি ম্যাচইতো বাকি আছে। সেটিও রবিবার ওয়েস্ট ইন্ডিজ-ইংল্যান্ড ফাইনাল ম্যাচের মধ্য দিয়ে শেষ হয়ে যাবে। পর্দা নেমে যাবে টি২০ বিশ্বকাপের ষষ্ঠ আসরেরও।