১৬ অক্টোবর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

চট্টগ্রামে হকার পুনর্বাসনে ব্যতিক্রমী উদ্যোগ

স্টাফ রিপোর্টার, চট্টগ্রাম অফিস ॥ চট্টগ্রাম নগরীর সৌন্দর্য ও শৃঙ্খলার স্বার্থে হকারদের পরিকল্পিত বেষ্টনীর মধ্যে আনার উদ্যোগ নেয়া হয়েছে। রাস্তা দখল, ফুটপাথ দখল এবং ব্যবসা ও দোকান প্রতিষ্ঠানের সৌন্দর্যহানি করে এমন দৃষ্টিকটু স্থাপনা নির্মাণ সমর্থনযোগ্য নয়। দখলের কারণে নগরজীবনে দুর্ভোগ সৃষ্টি এবং নগরীর সৌন্দর্যহানি ঘটছে। বিশৃঙ্খল পরিস্থিতি থেকে সুশৃঙ্খল পরিবেশ ফিরিয়ে আনার লক্ষ্যে পদক্ষেপ গ্রহণ করা হয়েছে।

চট্টগ্রাম সিটি মেয়র আ জ ম নাছির উদ্দিন গত বুধবার রাতে হকারদের এক সমাবেশে উপরোক্ত পরিকল্পনার কথা জানান। তিনি বলেন, রেজিস্টার্ড সংগঠনের সদস্যদের তালিকা শ্রম দফতর বা সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের কাছে জমা আছে। সে তালিকার সঙ্গে হকার সংগঠনের প্রদত্ত তালিকা এবং সরেজমিনে ভিডিও ফুটেজ জরিপে যে প্রকৃত তালিকা পাওয়া যাবে তাদের যাচাই-বাছাই করে প্রকৃত হকার নিরূপণ করা হবে। এর পরই পরই পরিচয়পত্রের ভিত্তিতে প্রতিদিন বিকেল ৫টা অথবা ৬টা থেকে রাত ১১টা পর্যন্ত সুনির্দিষ্ট স্থানে নির্দিষ্ট ভেহিকেলে শৃঙ্খলা বজায় রেখে হকারদের ব্যবসা করার সুযোগ দেয়া হবে। মেয়র বলেন, হকার সংখ্যা নিরূপণের পর পরিচয় পত্রবিহীন কাউকে হকার পরিচয় দেয়ার সুযোগ দেয়া হবে না। প্রকৃত সংখ্যার ভিত্তিতে হকার পুনর্বাসনে কার্যকর উদ্যোগ বাস্তবায়ন করা হবে।

চসিক মেয়র বলেন, স্বাধীন দেশের নাগরিক হিসেবে প্রত্যেকটি মানুষের মৌলিক ও মানবিক অধিকার সুরক্ষার বিষয়টি সংবিধানে উল্লেখ রয়েছে। কারও মৌলিক অধিকার খর্ব করার কোন সুযোগ নেই। তিনি বর্তমান গরিববান্ধব সরকারের সকল কর্মকা-ে হকারদের সমর্থন ও সহযোগিতা প্রত্যাশা করেন। নগরীর রিয়াজউদ্দিন বাজার নুপুর মার্কেট চত্বরে চট্টগ্রাম হকার্স ঐক্য পরিষদের আয়োজনে মহান স্বাধীনতা উপলক্ষে অনুষ্ঠিত হকার সমাবেশে সভাপতিত্ব করেন ঋষি বিশ্বাস। চট্টগ্রাম হকার ঐক্য পরিষদের সাধারণ সম্পাদক নুরুল আলম লেদুর পরিচালনায় অনুষ্ঠিত হকার সমাবেশে বিশেষ অতিথি ছিলেন জাতীয় শ্রমিক লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক সফর আলী ও মহানগর শাখার সভাপতি বখতিয়ার উদ্দিন খান। বক্তব্য রাখেন লবণ শ্রমিক লীগের সভাপতি আবদুল মতিন মাস্টার, নিউমার্কেট বিপণিবিতান দোকান কর্মচারী সমিতির সাধারণ সম্পাদক মোহাম্মদ আলমগীর, চট্টগ্রাম হকার লীগের সাধারণ সম্পাদক হারুনুর রশিদ রনি, হকার ঐক্য পরিষদভুক্ত হকার সংগঠনের সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদকদের মধ্যে আলী আজগর, সফিকুর রহমান, ফরিদ আহমদ, ইমরান, ইয়াকুব ও হারুন প্রমুখ। মেয়র বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা দারিদ্র্য বিমোচন ও কর্মসংস্থান সৃষ্টির লক্ষ্যে নানামুখী কর্মপরিকল্পনা বাস্তবায়ন করছেন। আনোয়ারা ও মীরসরাইয়ে অর্থনৈতিক অঞ্চল গড়ে তোলা হচ্ছে। সে সকল জোনে লাখ লাখ মানুষের কর্মসংস্থান হবে। রাস্তা ও ফুটপাথ দখল করে কাউকে কষ্ট করতে হবে না। এদেশে কোন মানুষ বেকার থাকবে না। একাগ্রতা, সাধনা ও ইচ্ছাশক্তি থাকলে এবং সঠিক সিদ্ধান্ত গ্রহণ ও বাস্তবায়ন করা গেলে ভাগ্যের পরিবর্তন করা কোন কঠিন কাজ নয়।