২০ অক্টোবর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

রায়পুরে গৃহবধুকে হত্যার অভিযোগ ॥ ঝুলন্ত লাশ উদ্ধার

সংবাদদদাতা, রায়পুর, লক্ষ্মীপুর ॥ লক্ষ্মীপুরের রায়পুরে সুমনা আক্তার ইতি (২০) নামে এক গৃহবধুকে পিটিয়ে শ্বাসরোধ করে হত্যার অভিযোগ উঠেছে। শনিবার বিকেলে তার ঝুলন্ত লাশ চরমোহনা গ্রামের স্বামীর বাড়ী থেকে উদ্ধার করেছে পুলিশ। সে উপজেলার দক্ষিন চর মোহনা গ্রামের ইব্রাহিম খলিলের স্ত্রী ও সোনাপুর ইউনিয়নের চরবগা গ্রামের বাবুল পাটোয়ারীরর মেয়ে। ঘটনার পর থেকে নিহতের স্বামী গা ঢাকা দিয়েছে। এঘটনা নিয়ে এলকায় চলছে নানা গুঞ্জন । ইতির মা অভিযোগ করে বলেন, ইতিকে রাতভর নির্যাতন করে পরিকল্পিত ভাবে লাশ ঝুলিয়ে রেখে আত্নহত্যার নাটক সাজানো হয়েছে। বিয়ের পর থেকে শশুর বাড়ীর লোকজন বিভিন্ন সময় মেয়েকে যৌতুকের টাকার জন্য চাপ দিয়ে আসছিল। স্বামী তুচ্ছু ঘটনায় প্রায়ই ইতিকে মারধর করত। নিজের ইচ্ছায় প্রেম করে ঘর থেকে বেড়িয়ে যাওয়ায় মেয়ে সব নির্যতন মুখ বুজে সয়ে যেত। মা-বাবাতেও কিছু বলতে চাইত না। দুলাভাই কামাল হোসেন অভিযোগ করে বলেন, ইতিকে হত্যা করা হয়েছে। বিয়ের পর থেকে শাশুড়িসহ পরিবারের লোকজন প্রায়ই সময় তুচ্ছ ঘটনা নিয়ে তাকে মারধর করতো। এনিয়ে পারিবারিক শালিসও হয়েছে।

পুলিশ ও স্থানীয়রা জানান, বিগত চার বছর আগে উপজেলার সোনাপুর ইউনিয়নের চরবগা গ্রামের মৃত বাবুল পাটোয়ারীর মেয়ে ইতির সাথে প্রেমের সূত্র ধরে একই উপজেলার চর মোহনা গ্রামের মো: ইব্রাহিমের বিয়ে হয়। বিয়ের পর থেকে ইতির পরিবার এ বিয়ে মেনে না নেওয়ায় স্বামীর বাড়ীতে অশান্তির মধ্য দিয়ে বাড়িতে সংসার জীবন চলছিল। শনিবার সকালে বাড়ির লোকজন ইতির ঘরের দরজা বন্ধ দেখতে পায়। বহু ডাকাডাকির পরও ইতির কোন সাড়া শব্দ না পেয়ে পুলিশ ও তার স্বজনদের খবর দেয়। পরে তার স্বজন ও পুলিশ গিয়ে ঘরের দরজা ভেঙ্গে আড়ার সাথে পেচানো ঝুলন্ত লাশ উদ্ধার করে সদর হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়।

রায়পুর থানার এস আই মোঃ ফারুক হোসেন জানান, গৃহবধু ইতির মৃতদেহ উদ্ধার করে ময়না তদন্তের জন্য লাশ সদর হাসপাতাল মর্গে পাঠিয়েছি। রিপোর্ট পেলে প্রকৃত ঘটনা জানা যাবে।