১৬ অক্টোবর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

মাদারীপুরে গুলিবিদ্ধ একজনের মৃত্যু

  • নির্বাচন পরবর্তী সহিংসতা

নিজস্ব সংবাদদাতা, মাদারীপুর, ২ এপ্রিল ॥ সদর উপজেলার কুনিয়া ইউনিয়নে ইউপি নির্বাচনকে কেন্দ্র করে আওয়ামী লীগের দু‘গ্রুপের সংঘর্ষে গুলিবিদ্ধ হাসান বেপারি মারা গেছে। তিনি সদর উপজেলা হুমলী গ্রামের বাহাদুর বেপারির ছেলে। উল্লেখ্য, মাদারীপুর সদর উপজেলার কুনিয়া ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে আওয়ামী লীগের প্রার্থী সানোয়ার হোসেন এবং আওয়ামী লীগের বিদ্রোহী প্রার্থী সাহেব আলী নির্বাচনে অংশগ্রহণ করে দু’জনই পরাজিত হয়। এ নিয়ে দুই পক্ষের সমর্থকদের মধ্যে ক্ষোভ ও উত্তেজনা দেখা দেয় । এই ঘটনার জের ধরেই শুক্রবারের সংঘর্ষে গুলিবিদ্ধ হয় সাহে আলী গ্রুপের ৭জন। এর মধ্যে হাসান বেপারি ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ হাসাপাতালে চিকিৎসাধীন শনিবার সকালে মারা যায় ।

মুন্সীগঞ্জে সমর্থককে কুপিয়ে জখম

স্টাফ রিপোর্টার, মুন্সীগঞ্জ থেকে জানান, সিরাজদিখান উপজেলার চিত্রকোট ইউনিয়নের বিজয়ী প্রার্থী নৌকা প্রতীকের সামছুল হুদা বাবুলের সন্ত্রাসী বাহিনীর হাতে পরাজিত প্রার্থী শামসুজ্জামান মিরাজের এক সমর্থককে চাপাতি দিয়ে কুপিয়ে জখম করার অভিযোগ পাওয়া গেছে। তার অবস্থা এখন আশঙ্কাজনক।

জানা যায়, চিত্রকোট ইউনিয়নের পরাজিত প্রার্থীর সমর্থক গোয়ালখালী গ্রামের আবুল কাশেমর পুত্র জাহিদুল ইসলাম শুক্রবার রাত ৯টার সময় তার বাড়ি থেকে ব্যবসা প্রতিষ্ঠানে যাওয়ার পথে ঢাকা-নবাবগঞ্জ রোডের তুলশীখালী ব্রিজের ঢালে আসামাত্র বিজয়ী প্রার্থী সামছুল হুদা বাবুলের সমর্থক স্থানীয় সন্ত্রাসী সফিউদ্দিন, শহিদুল, ইকবাল, ইমরান, আলাল, নাসিরসহ একটি ক্যাডার বাহিনী তার গতিরোধ করে। এ সময় সন্ত্রাসীরা তাকে চাপাতি দিয়ে এলোপাতাড়ি কোপাতে থাকে। এক সময় মৃত ভেবে জাহিদুলকে রাস্তায় ফেলে সন্ত্রাসীরা পালিয়ে যায়।

বাউফলে জখম ৫

নিজস্ব সংবাদদাতা, বাউফল থেকে জানান, সূর্য্যমণি ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচন পরবর্তী সহিংসতায় ঘোড়া মার্কার চেয়ারম্যান প্রার্থী জসিম উদ্দিন ফরাজীর ৫ সমর্থককে কুপিয়ে ও পিটিয়ে জখম করেছে নৌকা মার্কার চেয়ারম্যান প্রার্থী আনোয়ার হোসেন বাচ্চুর সমর্থকরা। শনিবার বেলা ১১ টার দিকে ওই ইউনিয়নের রামনগর গ্রামে এ ঘটনা ঘটে।

পুতুল অটিজম সচেতনতায় আলোড়ন সৃষ্টি করেছেন ॥ পূর্তমন্ত্রী

স্টাফ রিপোর্টার, চট্টগ্রাম অফিস ॥ গৃহায়ন ও গণপূর্তমন্ত্রী ইঞ্জিনিয়ার মোশারফ হোসেন বলেন, স্বাধীনতার পর অনেক সরকার ক্ষমতায় এসেছে। কিন্তু কেউ অটিজম নিয়ে সচেতনতা তৈরি করতে পারেনি। বর্তমান সরকার ক্ষমতায় আসার পর প্রধানমন্ত্রী কন্যা অটিজম সচেতনতায় আলোড়ন সৃষ্টি করেছেন। শনিবার দুপুরে নগরীর ষোলশহরে এলজিইডি ভবনের সম্মেলন কক্ষে অনুষ্ঠিত নবম ‘বিশ্ব অটিজম সচেতনতা দিবস’ উপলক্ষে আয়োজিত আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন। জেলা সমাজসেবা অধিদফতরের উদ্যোগে আয়োজিত এ আলোচনা সভায় সভাপতিত্ব করেন জেলা প্রশাসন মেজবাহ উদ্দিন। বিশেষ অতিথি ছিলেন ভূমি প্রতিমন্ত্রী সাইফুজ্জামান চৌধুরী জাবেদ, চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশনের মেয়র আ জ ম নাছির উদ্দিন। আরও বক্তব্য রাখেন সংসদ সদস্য নজরুল ইসলাম চৌধুরী, আবু রেজা মোহাম্মদ নেজামউদ্দিন নদভী, ওয়াসিকা আয়শা খান, দিদারুল আলম, সাবিহা নাহার প্রমুখ।