২০ অক্টোবর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

জরিমানার অর্থ জমা দিয়েছেন দুই মন্ত্রী

স্টাফ রিপোর্টার ॥ আদালত অবমাননার দায়ে সরকারের খাদ্যমন্ত্রী কামরুল ইসলাম ও মুক্তিযুদ্ধ বিষয়কমন্ত্রী আ ক ম মোজাম্মেল হক জরিমানার অর্থ পরিশোধ করেছেন। তারা রাজধানীর ফার্মগেটে অবস্থিত ইসলামিয়া চক্ষু হাসপাতাল ও পান্থপথ-গ্রীন রোডে অবস্থিত লিভার ফাউন্ডেশন অব বাংলাদেশ কর্তৃপক্ষের কাছে ৫০ হাজার টাকা করে মোট এক লাখ টাকা জমা দিয়েছেন।

গত ২৭ মার্চ প্রধান বিচারপতি সুরেন্দ্র কুমার সিনহার নেতৃত্বাধীন সুপ্রীমকোর্টের আপীল বিভাগ ওই দুই মন্ত্রীকে অর্থদ- করেন। ওই দিন আদালত বলে, আদালত অবমাননার দায়ে খাদ্যমন্ত্রী কামরুল ইসলাম ও মুক্তিযুদ্ধ বিষয়কমন্ত্রী আ ক ম মোজাম্মেল হককে দোষী সাব্যস্ত করা হলো। এ জন্য তাদের প্রত্যেককে ৫০ হাজার টাকা করে জরিমানা করা হলো। এ টাকা ওই দুটি দাতব্য প্রতিষ্ঠানে জমা দেয়ার নির্দেশ দেয়া হলো। সাত দিনের মধ্যে এ অর্থ জমা দিতে হবে। জমা না দিলে তাদের সাত দিনের বিনাশ্রম কারাদ- ভোগ করতে হবে।

নির্দেশনা অনুসারে খাদ্যমন্ত্রী কামরুল ইসলাম ও মুক্তিযুদ্ধমন্ত্রী আ ক ম মোজাম্মেল হক দুই প্রতিষ্ঠানে অর্থ জমা দেন। এ বিষয়ে খাদ্যমন্ত্রীর কৌঁসুলি সৈয়দ মামুন মাহবুব বলেন, ইতোমধ্যে আমরা আপীল বিভাগের সংক্ষিপ্ত রায় পেয়েছি। এখনও পূর্ণাঙ্গ রায় পাইনি। সংক্ষিপ্ত রায় অনুসারে ২৫ হাজার করে মোট ৫০ হাজার টাকা জমা দিয়েছি। সুপ্রীমকোর্ট আইনজীবী সমিতির সাবেক সহ-সম্পাদক সৈয়দ মামুন মাহবুব আরও বলেন, সর্বোচ্চ আদালতের আদেশ অনুসারে আমরা আপাতত অর্থ জমা দিয়েছি। কিন্তু রায়ের বিরুদ্ধে রিভিউ আবেদন করার সিদ্ধান্ত থেকে সরে আসেনি। পূর্ণাঙ্গ রায় পেলেই রিভিউ আবেদন করা হবে বলে তিনি জানান। জানা যায়, মন্ত্রী মোজাম্মেল হকও দুই প্রতিষ্ঠানে ২৫ হাজার টাকা করে ৫০ টাকা জমা দিয়েছেন। তিনিও পূর্ণাঙ্গ রায় পেলে পুনর্বিবেচনার আবেদন (রিভিউ পিটিশন) করবেন বলে জানা গেছে।