১৯ জুলাই ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

১৬২৬৩ নম্বরে কল করলেই স্বাস্থ্যসেবা পরামর্শ

স্টাফ রিপোর্টার ॥ ‘১৬২৬৩’ নম্বরে কল করলেই চব্বিশ ঘণ্টা সরকারী স্বাস্থ্যসেবামূলক পরামর্শ পাওয়া যাবে। দেশের প্রত্যন্ত অঞ্চলে সর্বোচ্চ স্বাস্থ্যসেবা পৌঁছে দিতেই এই ব্যবস্থা গ্রহণ করা হয়েছে। এই সেবার নাম দেয়া হয়েছে ‘সরকারী হেলথ কল সেন্টার স্বাস্থ্য বাতায়ন।’ এটি হলো ল্যান্ড বা মোবাইল ফোনের মাধ্যমে সহজে মনে রাখা যায় এমন একটি নম্বরে ফোন করে দিনরাত ২৪ ঘণ্টা চিকিৎসকের পরামর্শসহ অন্যান্য স্বাস্থ্যসেবা পাওয়ার একটি পদ্ধতি। কল রেট মোটামুটি স্বাভাবিক কল রেটের মতো। স্বাস্থ্য বাতায়ন দেশের যে কোন স্থানের রোগীদের প্রয়োজনে নিকটবর্তী সরকারী-বেসরকারী এ্যাম্বুলেন্স ডাকতেও সহায়তা করবে। গ্রহণ করা হবে গ্রাহকদের অভিযোগ ও পরামর্শ। স্বাস্থ্য বাতায়ন কর্মসূচী উদ্বোধন উপলক্ষে রবিবার সচিবালয়ে স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ মন্ত্রণালয় আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে এ তথ্য জানানো হয়। স্বাস্থ্যসচিব সৈয়দ মনজুরুল ইসলামের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে স্বাস্থ্যমন্ত্রী মোহাম্মদ নাসিম প্রধান অতিথি ও বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন স্বাস্থ্য প্রতিমন্ত্রী জাহিদ মালেক। এ সময় উপস্থিত ছিলেন স্বাস্থ্য অধিদফতরের মহাপরিচালক অধ্যাপক ডাঃ দীন মোঃ নুরুল হক, পরিবার পরিকল্পনা অধিদফতরের মহাপরিচালক মোঃ ওয়াহিদ হোসেন। রবিবার স্বাস্থ্যমন্ত্রী মোহাম্মদ নাসিম এই সেবা কার্যক্রমের উদ্বোধন করেন।

সংবাদ সম্মেলনে স্বাস্থ্য বাতায়ন সম্পর্কে প্রবন্ধ উপস্থাপন করেন স্বাস্থ্য অধিদফতরের অতিরিক্ত মহাপরিচালক অধ্যাপক ডাঃ আবুল কালাম আজাদ। তিনি বলেন, স্বাস্থ্য বাতায়ন নম্বরে কল করলে স্বাস্থ্যবিষয়ক যে কোন তথ্য জানা যাবে। জানা যাবে সরকারী বেসরকারী স্বাস্থ্যসেবা অথবা হাসপাতাল/ ক্লিনিকসংক্রান্ত অভিযোগ ও পরামর্শ। প্রাপ্ত অভিযোগ বা পরামর্শগুলোর বিষয়ে মন্ত্রণালয় ব্যবস্থা নেবে। এছাড়া ওয়েবসাইট (16263.dghs.gov.bd),ফেসবুক, (Facebook.com/shasthobatayon), ই-মেইল () ও এসএমএস (+৮৮-০১৫১১৩-১৬২৬৩)-এর মাধ্যমেও সেবা গ্রহণ করা যাবে। যুক্তরাজ্যের ইউকেএইডের অর্থায়নে স্বাস্থ্য অধিদফতরের এমআইএস বিভাগ সেবাটি চালু করেছে। সেবাটি যেন নিজের আয়ে নিজেই চলতে পারে পরবর্তীতে সেই উদ্যোগ নেয়া হবে। ঢাকার একটি তথ্যপ্রযুক্তি প্রতিষ্ঠান সিনেসিস আইটি লিমিটেড সেবাটি পরিচালনার দায়িত্ব পেয়েছে। টোল ফ্রি করে বিনামূল্যে স্বাস্থ্য বাতায়নের সেবা দেয়ার চিন্তা বাদ দেয়া হয়েছে। কারণ বিটিআরসির অভিজ্ঞতা অনুযায়ী বিনামূল্যে কলের সুযোগ থাকলে অপ্রয়োজনীয় কল আসে প্রায় অর্ধেক। এতে ফোন লাইন ব্যস্ত থাকে এবং জরুরী স্বাস্থ্য সেবাদান বিলম্বিত ও ব্যাহত হতে পারে।

স্বাস্থ্য বাতায়ন সেবা কর্মসূচীর উদ্বোধনকালে স্বাস্থ্যমন্ত্রী মোহাম্মদ নাসিম বলেন, এই সরকারী কল সেন্টারটি স্বাস্থ্যসেবা মানুষের হাতের মুঠোয় পৌঁছে দেয়ার প্রচেষ্টায় প্রধানমন্ত্রীর আরও একটি যুগান্তকারী উদ্যোগ। এই হেলথ কলসেন্টারের মাধ্যমে মানুষ জরুরী বা যে কোন স্বাস্থ্য সমস্যায় পড়লে ঘরে বসেই সহজে ডাক্তারের পরামর্শ নিতে পারবেন।

ভুয়া ক্লিনিক ও ডায়াগনস্টিক সেন্টার নির্মূলে আরও কঠোর অভিযান পরিচালনা করা হবে : স্বাস্থ্যমন্ত্রী ॥ স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণমন্ত্রী মোহাম্মদ নাসিম বলেছেন, মানসম্মত স্বাস্থ্যসেবা নিশ্চিত করতে ভুয়া ক্লিনিক ও ডায়াগনস্টিক সেন্টার নির্মূলে আরও কঠোর অভিযান পরিচালনা করা হবে। রবিবার বিকেলে সেগুনবাগিচাস্থ ঢাকা রিপোর্টার্স ইউনিটিতে ‘প্রবীণ স্বাস্থ্য সুরক্ষা’ বিষয়ে দেশব্যাপী প্রচারাভিযানের সমাপনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এ কথা বলেন।

স্বাস্থ্য অধিদফতরের মহাপরিচালক অধ্যাপক ডাঃ দীন মোঃ নূরুল হকের সভাপতিত্বে সভায় বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিক্যাল বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ডাঃ কামরুল হাসান খান, ক্রিয়েটিভ মিডিয়া লিমিটেডের চেয়ারম্যান সৈয়দ বোরহান কবির, প্রবীণ সমাজের প্রতিনিধি সৈয়দা রাহেলা বেগম প্রমুখ বক্তব্য রাখেন।