১৭ অক্টোবর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

বাগেরহাটে কলেজ ছাত্র হত্যার দায়ে দু’জনের যাবজ্জীবন

স্টাফ রিপোর্টার, বাগেরহাট ॥ বাগেরহাটে আল আমিন সেখ বাপ্পা (১৮) নামের এক কলেজ ছাত্রকে হত্যায় দায়ে দুই জনকে যাবজ্জীবন কারাদন্ড দিয়েছেন আদালত। সোমবার দুপুরে বাগেরহাটের অতিরিক্ত জেলা ও দায়রা জজ-১ আদালতের বিচারক মো. জাকারিয়া হোসেন এই রায় ঘোষণা করেন। একই সাথে আদালত দন্ডপ্রাপ্ত প্রত্যেককে ২০ হাজার টাকা করে জরিমানা অনাদায়ে আরও দুই বছরের কারাদন্ড দেন। রায় ঘোষণার সময় দন্ডপ্রাপ্তরা উপস্থিত ছিলেন।

দন্ড প্রাপ্তরা হলো বাগেরহাট সদর উপজেলার রঘুনাথপুর গ্রামের ফজর গাজীর ছেলে হুমায়ুর করি ওরফে লিটন গাজী (২৪) ও তৌহিদ সরদারের ছেলে তরিকুল ইসলাম (২২)। নিহত কলেজ ছাত্র বাগেরহাট সদর উপজেলার রঘুনাথপুর গ্রামের আল আমিন সেখ বাপ্পা মৃত বেল্লাল সেখের ছেলে। সে বেলায়েত হোসেন ডিগ্রী কলেজের একাদশ শ্রেনীর ছাত্র ছিল। মামলার বরাত দিয়ে রাস্ট্রপক্ষের অতিরিক্ত কৌশুলী কাজী মনোয়ার হোসেন বলেন, ২০১৪ সালের ৬ মার্চ রাতের মোবাইল ফোনে আসামীরা কলেজ ছাত্র বাপ্পাকে বাড়ি থেকে ডেকে নিয়ে হত্যা করে পার্শবর্তী জাকির ইজারাদারের বাড়ির বাগানে ঝোপের মধ্যে লাশ লুকিয়ে রাখে। পরের দিন সে বাড়ি ফিরে না আসায় বাগেরহাট মডেল থানায় একটি সাধারন ডায়েরী করা হয়। পুলিশ এ ঘটনায় সন্দেহভাজন লিটনগাজীকে আটক করে জিজ্ঞাসাবাদ করলে সে পূর্ব সত্রুতার জের ধরে হত্যার ঘটনা স্বীকার করে পুলিশের কাছে জবানবন্দি দেয়। পরে স্বীকারোক্তি অনুযায়ী লাশ উদ্ধার করা হয়। এ ঘটনায় নিহতের মা ইয়াসমিন বেগম বাদী হয়ে ১০ মার্চ একটি মামলা দায়ের করে। পরে পুলিশ অপর আসামী তরিকুল ইসলাম আটকের পর দুজনে আদালতে ১৬৪ ধারায় জবানবন্দি দেয়। ওই বছরের ৮ জুলাই সেপ্টেম্বর মডেল থানার উপপরিদর্শক (এসআই) শহীদুল ইসলাম ২ জনের বিরুদ্ধে আদালতে অভিযোগপত্র দাখিল করেন। আদালতের বিচারক ৭ জন স্বাক্ষীর স্বাক্ষ্যগ্রহণ শেষে সোমবার দুপুরে যাবজ্জীবন কারাদন্ড ও অর্থদন্ডের আদেশ দেন।