২১ সেপ্টেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

বিশ্বের সবচেয়ে বয়স্ক মানুষের মৃত্যু

বিশ্বের সবচেয়ে বয়স্ক মানুষের মৃত্যু

অনলাইন ডেস্ক॥ ১১৬ বছর বয়সে এসে মারা গেলেন বিশ্বের সবচেয়ে বয়স্ক মানুষ সুসান্না মুশাত জোনস।

গত ১০ দিন ধরে অসুস্থতার একপর্যায়ে বৃহস্পতিবার রাতে যুক্তরাষ্ট্রের নিউ ইয়র্কে মারা যান তিনি।

আলাবামার মন্টগোমারির কাছেই একটি ছোট্ট শহরে ১৮৯৯ সালে জন্মগ্রহণ করেন এই নারী। ১১ ভাই-বোনের সঙ্গে বেড়ে ওঠেন তিনি। পড়াশুনা করেন কৃষ্ণাঙ্গ মেয়েদের জন্য প্রতিষ্ঠিত একটি বিশেষ স্কুলে।

১৯২২ সালে হই স্কুল থেকে গ্রাজুয়েশনের পর পরিবারের সহায়তার জন্য পুরোটা সময়ই কাজে ব্যয় করেছেন জোনস। পরবর্তীতে তিনি নিউ জার্সি হয়ে নিউ ইয়র্কে চলে যান।

ব্রুকলিনের একটি বৃদ্ধাশ্রমে থাকতেন জোনস। বৃহস্পতিবার সেখানেই তিনি মারা যান।

নিজের কোনো ছেলে-মেয়ে না থাকায় তিনি বাচ্চাদের অনেক আদর করতেন বলে জানান জোনসের আত্মীয় লুইস জাজ।

১৯৬৫ সালে কাজ থেকে অবসর নেওয়ার পর দীর্ঘজীবনের রহস্য ব্যাখ্যা করে জোনস বলেছিলেন, তিনি প্রচুর ঘুমিয়েছেন। আর কখনও ধূমপান করেননি কিংবা মদ স্পর্শ করেননি।

জোনসই ছিলেন ১৮০০’র দশক থেকে সবচেয়ে বয়স্ক আমেরিকান।

গত বছর ১১৭ বছর বয়সী জাপানি নাগরিক মিসাও ওকাওয়ার মৃত্যুর পর গিনেস ওয়ার্ল্ড রেকর্ডে জোনসকে বিশ্বের সবচেয়ে বয়স্ক মানুষ হিসেবে ঘোষণা করা হয়।

তার মৃত্যুতে এখন ইতালিতে বেঁচে থাকা ১১৬ বছর বয়সী এম্মা মোরানো-মারতিনুজ্জিই বিশ্বের সবচে বয়স্ক ব্যক্তি বলে জানিয়েছে জেরোন্টোলোজি রিসার্চ গ্রুপ।