১৭ ডিসেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

নাভ্রাতিলোভার বাজি জোকোভিচ-সেরেনা

  • ইনজুরিতে ফ্রেঞ্চ ওপেন খেলতে পারছেন না ক্যারোলিন ওজনিয়াকি

স্পোর্টস রিপোর্টার ॥ আগামী সপ্তাহ থেকেই শুরু হবে ফ্রেঞ্চ ওপেন। মৌসুমের দ্বিতীয় গ্র্যান্ডসøাম টুর্নামেন্ট শুরুর আগেই ফেবারিটদের নিয়ে আলোচনা শুরু হয়ে গেছে। কে জিতবেন মৌসুমের দ্বিতীয় মেজর টুর্নামেন্ট? তবে এবারও সেরেনা উইলিয়ামস এবং নোভাক জোকোভিচকে এগিয়ে রাখলেন টেনিসের জীবন্ত কিংবদন্তি মার্টিনা নাভ্রাতিলোভা। গত মৌসুমটা দুর্দান্ত কেটেছে জোকোভিচ-সেরেনার। দুজনই সমান তিনটি করে গ্র্যান্ডসøাম টুর্নামেন্ট জিতেছেন। চার টুর্নামেন্টের কেবল ফ্রেঞ্চ ওপেনেই ব্যর্থ হয়েছেন সার্বিয়ার জোকোভিচ। অন্যদিকে সেরেনা হোঁচট খান ইউএস ওপেনে।

শুধু তাই নয়, ইউএস ওপেনের পর থেকেই সেরেনাকে আঘাত করে ইনজুরি আর ফর্মহীনতা। যে কারণে দীর্ঘ নয় মাস কোন শিরোপা জিততে পারেননি। অবশেষে সম্প্রতি শিরোপা-খরা ঘুচাতে সক্ষম হন আমেরিকান টেনিসের জীবন্ত এই কিংবদন্তি। রোম মাস্টার্সে স্বদেশী মেডিসন কেইসকে হারিয়ে বছরের প্রথম শিরোপা নিজের শোকেসে তুলেন তিনি। তাই ৫৯ বছর বয়সী মার্টিনা নাভ্রাতিলোভা সতর্কবার্তা দিয়ে দিলেন সেইসব সমালোচকদের, যারা ভেবে নিয়েছিলেন সেরেনা উইলিয়ামস ফুরিয়ে গেছেন। এ প্রসঙ্গে নাভ্রাতিলোভা বলেন, ‘সেরেনা উইলিয়ামসকে যারা বাতিলের খাতায় ফেলে দিয়েছিলেন তাদের উদ্দেশে বলি, চ্যাম্পিয়নদের নিয়ে এরকম করবেন না। তার জন্য এটা শুধু খরা, তাছাড়া এই সময়ে সে খুব বেশি টুর্নামেন্টেও খেলেনি। তবে সে প্রতিহিংসা নিয়েই ফিরেছে। ক্লে কোর্টে অসাধারণ পারফর্ম করেই ফিরেছে। ফ্রেঞ্চ ওপেনে ফেবারিট হিসেবেই কোর্টে নামবে সে।’

আমেরিকান টেনিস কিংবদন্তিকে নিয়ে নাভ্রাতিলোভা এ সময় আরও বলেন, ‘গত চার মৌসুমে অন্য যে কোন খেলোয়াড়ের চেয়েই ধারাবাহিক সেরেনা। টেনিস কোর্টে সে হারলেই তা ব্যতিক্রম। অথবা অন্য কেউ জিতলেই সেটা ব্যতিক্রম। এই মুহূর্তে সেরেনা সুস্থ আছে। সেইসঙ্গে শিরোপা জিততেও ক্ষুধার্থ সে। টেনিস কোর্টে পারফর্ম করার জন্য সে অধীর অপেক্ষায়। রোমে দুর্দান্ত একটা টুর্নামেন্ট উপভোগ করার পর স্বাভাবিকভাবেই তার ক্লান্ত থাকার কথা। কিন্তু সে এখনও সতেজ। এ রকম পরিস্থিতিতে তাকে হারানোটা যে কোন খেলোয়াড়ের জন্যই কঠিন কাজ।’ অন্যদিকে গত সপ্তাহেই রোম মাস্টার্সে হেরেছেন নোভাক জোকোভিচ। চিরপ্রতিদ্বন্দ্বী এ্যান্ডি মারের কাছে শিরোপা হাতছাড়া করেন তিনি। তারপরও এই মৌসুমে পাঁচটি শিরোপা জিতেছেন জোকোভিচ। যার মধ্যে রয়েছে অস্ট্রেলিয়ান ওপেনের ট্রফিটাও! তাই সার্বিয়ার শীর্ষ বাছাইকেই এগিয়ে রাখছেন নাভ্রাতিলোভা। এ সময় স্প্যানিশ টেনিস তারকা রাফায়েল নাদালের প্রসঙ্গও তুলে আনেন ১৮টি গ্র্যান্ডসøাম জয়ী নাভ্রাতিলোভা। এ বিষয়ে তিনি বলেন, ‘ফ্রেঞ্চ ওপেনে ওয়াল্ডকার্ড নিয়ে খেলতে গেলেও বড় চমকের নাম নাদাল। কিন্তু এখন পর্যন্ত জোকোভিচই ফেবারিট। তার বিপক্ষে আমি বাজি ধরতে পারবো না।’ এদিকে ফ্রেঞ্চ ওপেনে খেলতে পারছেন না ড্যানিশ টেনিস তারকা ক্যারোলিন ওজনিয়াকি এবং সুইজারল্যান্ডের বেলিন্ডা বেনচিচ। চোটের কারণে সাম্প্রতিক সময়ে মাদ্রিদ ও রোম মাস্টার্সে খেলতে পারেননি ওজনিয়াকি। চোট থেকে পুরোপুরি সুস্থ না হওয়ায় রোঁলা গ্যাঁরোয় খেলতে পারছেন না তিনি। এক সময় বিশ্ব টেনিস র‌্যাঙ্কিংয়ের শীর্ষে ছিলেন ওজনিয়াকি। ২০০৯ ও ২০১৪ সালে ইউএস ওপেনের ফাইনালেও জায়গা করে নিয়েছিলেন তিনি। কিন্তু পারফর্মেন্সের সেই ধারাবাহিকতা আর ধরে রাখতে পারেননি এই ড্যানিশ তারকা। যে কারণে বর্তমানে বিশ্ব টেনিস র‌্যাঙ্কিংয়ের ৩৪তম স্থানে ছিটকে পড়েছেন ক্যারোলিন ওজনিয়াকি। দুর্ভাগ্য সুইস তারকা বেলিন্ডা বেনচিচেরও। সাম্প্রতিক সময়ে টেনিস কোর্টে অসাধারণ পারফর্ম করছিলেন তিনি।

নির্বাচিত সংবাদ