১৬ অক্টোবর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

তবু চিন্তিত নন গাম্ভীর

  • গুজরাট-কলকাতা ম্যাচ আজ, সাকিবের কণ্ঠে হতাশা, ইনজুরিতে আন্দ্রে রাসেল

স্পোর্টস রিপোর্টার ॥ ইন্ডিয়ান প্রিমিয়ার লীগের (আইপএল) এ পর্যায়ে জমে উঠেছে শেষ চারে ওঠার লড়াই। ৮ জয়ে অনেকটা নিরাপদ শীর্ষে থাকা সানরাইজার্স হায়দরাবাদ। পরের তিনটি স্থানের জন্য লড়ছে পাঁচটি দল। যেখানে দুইয়ে থাকা কলকাতা নাইট রাইডার্স যেমন আছে, তেমনি আছে ‘ছয়’ নম্বর দল দিল্লী ডেয়ারডেভিলসও। ঘরের মাঠ ইডেন গার্ডেন্সে ১৮৩ রানের বড় স্কোর গড়েও রয়্যাল চ্যালেঞ্জার্স ব্যাঙ্গালুরুর কাছে ৯ উইকেটের হারটা এখনও পোড়াচ্ছে নাইট তারকা সাকিব আল হাসানকে। এ জন্য ইডেনের পিচকে দায়ী করছেন টাইগার অলরাউন্ডার। তবে শেষচারের দৌড়ে লড়াইটা জমে উঠলেও খুব একটা চিন্তিত নন গৌতম গাম্ভীর। আজ গুজরাট লায়ন্সকে হারিয়ে অবস্থানটা শক্ত করতে চান কলকাতা অধিনায়ক। নিরপেক্ষ ভেন্যু কানপুরের গ্রীন পার্কে দিনের একমাত্র ম্যাচটি শুরু বাংলাদেশ সময় রাত সাড়ে আটটায়। ‘আমি খুব একটা চিন্তিত নই। কারণ আমাদের ড্রেসিং রুমে যথেষ্ট প্রতিভাবান ক্রিকেটার রয়েছে। ইডেনের পিচ নিয়ে বেশি কিছু বলতে চাই না। কারণ চ্যাম্পিয়ন টিমের যে কোন পরিবেশে জেতার ক্ষমতা থাকা উচিত। এবারের আইপিএলটা দারুণ ইন্টারেস্টিং। প্লে-অফে (শেষ চার) তিনটা জায়গার জন্য পাঁচটা দল লড়ছে, এ থেকেই পরিষ্কার কোন মানের খেলা হচ্ছে। কোন্ টিম শেষ ধাক্কা দিতে পারবে, সেটিই দেখার। দিল্লী ডেয়ারডেভিলস, ব্যাঙ্গালুরু, মুম্বাই ইন্ডিয়ান্স, গুজরাট সবাই একই পরিস্থিতিতে। পরের তিন-চারটা দিন সবার জন্য প্রচ- চাপের। এই চাপটা কে কতটা ভাল নিতে পারে, সেটাই আসল। তবে এটা বলব, প্রতিপক্ষকে গুঁড়িয়ে দেয়ার ক্ষেত্রে আমি নিষ্ঠুর। একরোখাভাবে জয়ের জন্য লড়াইয়ের ক্ষেত্রেও। তবু আশা করব, এতটুকু ভুল যেন না হয়, যেমনটা আমি নিজেই আগের ম্যাচে করেছিলাম!’ ব্যাঙ্গালুরুর ম্যাচে কোহলির তুলে দেয়া সহজ ক্যাচ ছেড়েছিলেন গাম্ভীর। সেটিই ম্যাচের ভাগ্য বদলে দেয়। শেষ পর্যন্ত ৭৫ রানে অপরাজিত থেকে বড় জয় এনে দেন চ্যালেঞ্জার্স অধিনায়ক। আর ইডেনের পিচ নিয়ে রুষ্ট সাকিব বলেন, ‘কলকাতার বোলিং স্পিন নির্ভর। সব দলই ঘরের মাঠে একটু সুবিধা পাওয়ার কথা ভাবে। কিন্তু ইডেনে আমরা এখন পর্যন্ত সেটি পাইনি। এটা হতাশার।’ বলেন ৪ ওভারে ৩৯ রান দেয়া সাকিব। ইডেনে ৬ ম্যাচের তিনটিতেই হার! গতবার (২০১৫ আইপিএল) ছিল কলকাতার শিরোপা ধরে রাখার মিশন। শেষের দিকে এমনই পরিস্থিতিতে ‘সুপার ফোরে’ খেলা হয়নি। এবারও কি দুইবারের চ্যাম্পিয়নদের একই অবস্থা হবে? সাকিব অবশ্য আশাবাদী, ‘ম্যাচ জেতানোর মতো যথেষ্ট খেলোয়াড় আমাদের রয়েছে। হয়তো নিজেদের মাঠে প্রত্যাশিত সাফল্য পাইনি। সব মিলিয়ে আমরা ভাল অবস্থাতেই আছি। আগামী দুটি ম্যাচ খুবই গুরুত্বপূর্ণ।’ অবশ্য মরার ওপর খাঁড়ার ঘা বাম পায়ের ইনজুরিতে আজ মাঠে নামতে পারছেন না আন্দ্রে রাসেল। দুর্দান্ত অলরাউন্ড নৈপুণ্যে (১৫ উইকেট ও ১৮৮ রান) যিনি নাইটদের প্রাণভোমরা।