১৬ অক্টোবর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

পুঁজিবাজারে ৬১ ভাগ কোম্পানির দর বাড়ল

অর্থনৈতিক রিপোর্টার ॥ টানা তিনদিন ধরে মূল্য সূচকের উত্থানে লেনদেন চলছে পুঁজিবাজারে। একই সঙ্গে লেনদেনও বাড়ছে পুঁজিবাজারে। এর আগের দিন পুঁজিবাজারে সূচকের পতন ঘটেছিল। একই সঙ্গে রবিবারে চলতি বছরের সর্বনিম্ন লেনদেনের ঘটনাও ঘটে। বুধবার দেশের প্রধান পুঁজিবাজার ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জে (ডিএসই) প্রায় ৬১ শতাংশ কোম্পানির দর বেড়েছে।

বাজার সংশ্লিষ্টদের সঙ্গে কথা বলে জানা গেছে, পুঁজিবাজারে গত কিছুদিন ধরেই মন্দাবস্থা চলছিল। ব্যাংকের অতিরিক্ত বিনিয়োগ সীমাসহ বিনিয়োগকারীদের দ্রুত মুনাফা তোলার প্রবণতাই মূলত বাজারকে কিছুটা প্রভাবিত করেছিল। কিন্তু এখন আর ব্যাংকের বিনিয়োগ নিয়ে কোন জটিলতা নেই। উপরন্তু বাজারে বিনিয়োগকারীদের ক্ষতি পোষাতে অল্প সূদে পুনঃঅর্থায়নের অর্থ পেতে আবেদনের সময় বাড়ানোর সিদ্ধান্ত মঙ্গলবারে বাজারে ইতিবাচক প্রভাব ফেলেছে। চলতি বছরের ৩০ জুনের মধ্যেই এই অর্থ পেতে আবেদন করার কথা ছিল। কিন্তু ঋণ পেতে বিনিয়োগকারীদের আগ্রহ কমে যাওয়ার কারণে প্রায় অর্ধেকের বেশি টাকা এখনও অব্যবহৃত থেকে গেছে। আর তাই নতুন করে বিনিয়োগকারীদের আগ্রহী করতে সুদের হার কমানোরও পরিকল্পনা করতে এই ঋণ বিতরণের সঙ্গে সংশ্লিষ্টরা। এতে বাজারে ইতিবাচক প্রভাব ফেলেছে বলে বাজার বিশ্লেষকরা মনে করছেন।

বাজার বিশ্লেষণে দেখা যায়, বুধবার ডিএসইতে ৩৬১ কোটি ২৯ লাখ টাকার শেয়ার লেনদেন হয়েছে; যা আগের দিনের তুলনায় প্রায় ৫৯ কোটি ২৭ লাখ টাকা বা ২০ শতাংশ বেশি। সোমবার এই বাজারে লেনদেন হয়েছিল ৩০২ কোটি ২ লাখ টাকা।

এদিন ডিএসইতে মোট লেনদেনে অংশ নেয় ৩১৯ কোম্পানি ও মিউচুয়াল ফান্ডের শেয়ার। এর মধ্যে দর বেড়েছে ১৯৬টির, কমেছে ৮২টির এবং অপরিবর্তিত রয়েছে ৪১টির শেয়ার দর।

এদিকে ডিএসইএক্স বা প্রধান মূল্যসূচক ৩৭ পয়েন্ট বেড়ে অবস্থান করছে ৪ হাজার ৩৬৪ পয়েন্টে। ডিএসইএস বা শরীয়াহ সূচক ৯ পয়েন্ট বেড়ে দাঁড়িয়েছে এক হাজার ৭১ পয়েন্টে। আর ডিএস৩০ সূচক ১৯ পয়েন্ট বেড়ে অবস্থান করছে এক হাজার ৭০৮ পয়েন্টে।

ডিএসইর লেনদেনের সেরা কোম্পানিগুলো হলোÑ লাফার্জ সুরমা, বিএসআরএম লিমিটেড, আরএকে সিরামিক, ইউনাইটেড পাওয়ার, মবিল যমুনা বিডি, ওরিয়ন ইনফিউশন, ডরিন পাওয়ার, ব্রিটিশ আমেরিকান ট্যোবাকো, ইউনিক হোটেল এ্যান্ড রিসোর্ট লিমিটেড ও কেয়া কসমেটিকস।

দরবৃদ্ধির সেরা কোম্পানিগুলো হলোÑ আরএকে সিরামিক, ওরিয়ন ইনফিউশন, বাংলাদেশ ন্যাশনাল ইন্স্যুরেন্স কোম্পানি, বিচ হ্যাচারী, ইউনাইটেড ইন্স্যুরেন্স, লাফার্জ সুরমা সিমেন্ট, অলটেক্স, মোজাফফর হোসেন স্পিনিং, অলিম্পিক এক্সেসরিজ ও ৭ম আইসিবি।

দর হারানোর সেরা কোম্পানিগুলো হলোÑ ভ্যানগার্ড মিউচুয়াল ফান্ড, আইএসএন, শাহ্জালাল ব্যাংক, প্রাইম ইন্স্যুরেন্স, রিলায়েন্স ইন্স্যুরেন্স, বাটা স্যু, দুলামিয়া কটন, ফনিক্স ইন্স্যুরেন্স, ন্যাশনাল লাইফ ইন্স্যুরেন্স ও শাইনপুকুর সিরামিক।

অন্যদিকে চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জে (সিএসই) ২২ কোটি টাকার শেয়ার লেনদেন হয়েছে। এদিন সিএসই সার্বিক সূচক সিএএসপিআই ১৩১ পয়েন্ট বেড়ে দাঁড়িয়েছে ১৩ হাজার ৪৫ পয়েন্টে। সিএসইতে মোট লেনদেন হয়েছে ২৪০ কোম্পানি ও মিউচুয়াল ফান্ডের শেয়ার। এর মধ্যে দর বেড়েছে ১৬৭টির, কমেছে ৫৪টির এবং অপরিবর্তিত রয়েছে ১৯টির।