১৪ ডিসেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

ঝলক

লঙ্কার রাজাই বটে!

ভাত, মুড়ি, রুটি-তরকারির সঙ্গে স্বাদ বদলের জন্য আপনি হয়ত লঙ্কা (মরিচ) খেয়ে থাকেন। কিন্তু সবসময় যদি লঙ্কা খেয়ে কাটাতে হয় তখন কেমন লাগবে? কি শুনেই ঝাল ঝাল লাগছে? চীনের হেনান প্রদেশে ৪৮ বছর বয়সী লি ইয়াংজি সারাদিনই লঙ্কা খেয়ে কাটান। তাও আবার একটু-আধটু নয়, দিনে প্রায় তিন কেজি। ব্রেকফাস্ট থেকে শুরু করে লাঞ্চ এবং ডিনারেও লিয়ের মুখে লঙ্কা ছাড়া কিছুই রোচে না। লঙ্কাই যেন তার খাদ্যতালিকার মূল রেসিপি। তাই রসিকতা করে সবাই তাকে ‘লঙ্কার রাজা’ বলে অভিহিত করে।

কয়েক বছর আগে একটি ঘটনা তার খাওয়ার এই অভ্যাসকে গড়ে দেয়। ছেলে সড়ক দুর্ঘটনায় জখম হলে লি জমানো সব অর্থ ছেলের চিকিৎসার জন্য খরচ করেন। পরে টাকার অভাবে সামান্য খাবারটুকু কেনার সামর্থ্য ছিল না তার। তখন নিজের বাড়ির বাগানের থেকে লঙ্কা খাওয়া শুরু করেন তিনি। বুঝতে পারেন শুধু লঙ্কা খেয়েই বেঁচে থাকা সম্ভব। পরে আস্তে আস্তে লঙ্কা খাওয়া শুরু করেন তিনি। এখন অন্যান্য খাবারের থেকেও বেশি করে লঙ্কা খান লি। উল্লেখ্য, ২০০৯ সালে হেনান প্রদেশে লঙ্কা খাওয়ার প্রতিযোগিতায় প্রথম পুরস্কার পান লি।

সন্ধ্যায় বিয়ে সকালে বিচ্ছেদ!

বেশ জাঁকজমকপূর্ণ বিয়ের আয়োজন। চারদিকে সাজ সাজ রব, আলোর ঝলকানি। বরযাত্রী এসেছে কনের বাড়িতে। সব আনুষ্ঠানিকতার পর বর-কনের কবুলও বলা শেষ। এবার বরের সঙ্গে কনে যাবেন শ্বশুরবাড়ি। কিন্তু তা আর হলো না। স্ত্রীর মুখ ভাল করে দেখার আগেই বিয়ে বাড়িতে কনেকে তালাক দিয়ে ফিরে গেলেন বর! সম্প্রতি ঘটনাটি ঘটেছে ভারতের উত্তর প্রদেশের বিজনৌর জেলার কারোন্ডা পাচদু গ্রামে।

এই বিয়ের অনুষ্ঠান চলাকালে বিয়ে বাড়ি থেকে কনেপক্ষের অর্থ ও স্বর্ণ চুরি হয়। কনেপক্ষ সন্দেহের তীর বরপক্ষের দিকে। সারারাত বর ও তার বাবাকে বেঁধে রাখা হয়। এতে অপমানিত ও ক্ষুব্ধ হয়ে সকালে তালাক দিয়ে ফিরে যান বর। বর ইমরান বলেন, বিয়ের রাতে এ বিষয়টির জন্য তিনি বেশ অপমানিত বোধ করেন। তাই বাধ্য হয়ে সদ্য বিবাহিত স্ত্রীকে তালাক দিতে হয়েছে।