২৪ সেপ্টেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

উন্নয়ন বাধাগ্রস্ত করতে খালেদা ষড়যন্ত্র শুরু করেছেন

উন্নয়ন বাধাগ্রস্ত করতে খালেদা ষড়যন্ত্র শুরু করেছেন

বিশেষ প্রতিনিধি ॥ এক নেত্রী দেশের উন্নয়ন করছেন আর আরেক নেত্রী গোলযোগ সৃষ্টি করে দেশকে ধ্বংস করার ষড়যন্ত্র করছেন বলে অভিযোগ করেছেন আওয়ামী লীগের প্রবীণ নেতা ও বাণিজ্যমন্ত্রী তোফায়েল আহমেদ। তিনি বলেন, শেখ হাসিনার নেতৃত্বে বাংলাদেশের আজ বিস্ময়কর উত্থান হয়েছে। আর এ উন্নয়নকে বাধাগ্রস্ত করার জন্য খালেদা জিয়া ষড়যন্ত্র শুরু করেছেন। তার এক লোক মোসাদের সঙ্গে বৈঠক করে সরকার উৎখাতের ষড়যন্ত্র করেছে।

বৃহস্পতিবার রাজধানীর সেগুনবাগিচার শিল্পকলা একাডেমির ৬নং গ্যালারিতে যুবলীগ আয়োজিত এক আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখতে গিয়ে তিনি এ অভিযোগ করেন। ‘রাষ্ট্রনায়ক শেখ হাসিনার গণতন্ত্রের জন্য সংগ্রাম ও বিশ্বে আজ ধ্রুবতারা রাষ্ট্রনায়ক শেখ হাসিনা’ গ্রন্থের সপ্তাহব্যাপী সংবাদচিত্র প্রদর্শনীর অংশ হিসেবে এ আলোচনা সভার আয়োজন করা হয়। বাণিজ্যমন্ত্রী বলেন, তিনি (খালেদা) বলেছিলেন, শেখ হাসিনার পতন না হলে ঘরে ফিরে যাবেন না। কিন্তু তিনি আন্দোলনে ব্যর্থ হয়ে নিজেই কোর্টে গিয়ে আত্মসমর্পণ করে ঘরে ফিরে গেছেন। তিনি বলেন, ৫ জানুয়ারি নির্বাচন না হলে বাংলাদেশে গণতন্ত্র থাকত না। শেখ হাসিনা নিজের নেতৃত্বের দৃঢ়তায় ৫ জানুয়ারি নির্বাচন করে দেশে গণতন্ত্র সুপ্রতিষ্ঠিত করেছেন।

তিনি বলেন, শেখ হাসিনা যদি প্রধানমন্ত্রী না হতেন বাংলাদেশে কোন দিন বঙ্গবন্ধু হত্যার বিচার হতো না। শেখ হাসিনা প্রধানমন্ত্রী না হলে কোন দিন যুদ্ধাপরাধী, মানবতাবিরোধীদের বিচার হতো না। আমরা তাই প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার মঙ্গল কামনা করি।

তোফায়েল বলেন, এক-এগারোর সময় আওয়ামী লীগকে ধ্বংস করার চেষ্টা হয়েছিল। ঐক্যবদ্ধ আওয়ামী লীগের মাধ্যমে নির্বাচনী ব্যবস্থা সংস্কারের মাধ্যমে আওয়ামী লীগ দুই-তৃতীয়াংশ সংখ্যাগরিষ্ঠতা অর্জন করে। ২০০৮ সালে নির্বাচনের মধ্য দিয়ে বঙ্গবন্ধুর কন্যা আওয়ামী লীগকে আবার ক্ষমতায় নিয়ে আসেন। তিনি বলেন, খালেদা জিয়া স্বাধীনতাবিরোধী, যুদ্ধাপরাধী, মানবতাবিরোধীদের গাড়িতে জাতীয় পতাকা তুলে দিয়ে আমাদের অপমাণিত করেছিলেন। আমাদের নেত্রী শেখ হাসিনা যুদ্ধাপরাধীদের বিচার করে গোটা জাতিকে কলঙ্কমুক্ত করেছেন।

তিনি বলেন, এবার বাজেট হতে যাচ্ছে ৩ লাখ ৪০ হাজার কোটি টাকার। খাদ্য উদ্বৃত্তের দেশ এখন বাংলাদেশ। এখন আমরা চাল রফতানির জন্য আন্তর্জাতিক বাজারে ক্রেতা খুঁজছি। ইতোমধ্যেই আমাদের সঙ্গে কিছু আন্তর্জাতিক ক্রেতা সাক্ষাত করেছেন। আগামী ২-৩ বছরের মধ্যে মেট্রোরেলও চালু হবে।

সভাপতির বক্তৃতায় যুবলীগের চেয়ারম্যান মোহাম্মদ ওমর ফারুক চৌধুরী বলেন, সামাজিক, রাজনৈতিক ও অর্থনৈতিক ক্ষেত্রে দেশ যখন অপ্রতিরোধ্য গতিতে এগিয়ে যাচ্ছে; তখনই বিএনপি-জামায়াত চক্র জঙ্গীদের ব্যবহার করে দেশে অস্থিতিশীল পরিবেশ তৈরি করতে গুপ্তহত্যায় মেতেছে। আওয়ামী যুবলীগকে বিএনপি-জামায়াতের এই অপচেষ্টা রুখে দাঁড়াতে এবং যে কোন ষড়যন্ত্র প্রতিহত করতে সর্বদা সতর্ক থাকতে হবে। আমি যুবলীগের প্রতিটি জেলা-উপজেলা এবং ইউনিয়ন পাড়া-মহল্লার নেতাকর্মীদের নির্দেশ দিচ্ছিÑ এদের (জঙ্গী) যেখানেই পাবেন সেখানেই গণধোলাই দিয়ে আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর হাতে তুলে দেবেন।

সংগঠনের সাধারণ সম্পাদক হারুনুর রশীদের পরিচালনায় আলোচনা সভায় বক্তব্য রাখেনÑ একাত্তর টেলিভিশনের ব্যবস্থাপনা পরিচালক মোজ্জামেল বাবু, এসএ টিভির যুগ্ম বার্তা সম্পাদক জাহিদুর রহমান, গাজী টেলিভিশনের প্রধান বার্তা সম্পাদক ইকবাল কবির নিশান, এটিএন বাংলার প্রধান প্রতিবেদক মনিউর রহমান, যুবলীগের প্রেসিডিয়াম সদস্য মজিবুর রহমান চৌধুরী, আতাউর রহমান, ফারুক হোসেন, বেলাল হোসেন প্রমুখ।

নির্বাচিত সংবাদ