২০ অক্টোবর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

কর্মক্ষেত্রে নারীদের অবদান তুলে ধরবে ১৩টি ইমোজি

  • পান্থ আফজাল

সার্চ জায়ান্ট গুগল প্রায় সময়ই নিত্যনতুন ইমোজি তৈরি করে অনলাইনে নতুনত্ব আনছে। সম্প্রতি এর ধারা পেশাজীবী নারীদের প্রতিনিধিত্ব করে এমন কয়েকটি ইমোজি আনল গুগল। ইমোজি বিভিন্ন মেসেজিং এ্যাপে ব্যবহার করা হয়। স্টিকার বা স্মাইলির মতোই ইমোজি কাজ করে থাকে। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমের প্রসারের সঙ্গে সঙ্গে চ্যাট ও নানা ধরনের পোস্টে মন্তব্য হিসেবে ইমোজির জনপ্রিয়তা ক্রমে বাড়ছে। ১৩টি নতুন ইমোজি বানিয়েছে সার্চ ইঞ্জিন জায়ান্ট গুগল। এ ইমোজিগুলোর বিশেষত্ব হচ্ছে, এগুলো বানানো হয়েছে পেশাজীবী নারীদের প্রতিনিধিত্ব করার জন্য।

ইমোজিগুলোর মধ্যে রয়েছে স্বাস্থ্যসেবাবিষয়ক নারীকর্মী, মহিলা বিজ্ঞানী, ব্যবসা ক্ষেত্রের নারীরা এবং সংস্কৃতির সঙ্গে যুক্ত নারীরা। ইমোজির নক্সাগুলোকে অনুমোদনের জন্য ‘ইউনিকোড কনসোর্টিয়ামে’ প্রেরণ করা হয়েছে। জাপানী শব্দ ইমোজির ‘ই’ মানে হলো ছবি এবং ‘মোজি’ মানে হলো হরফ বা বর্ণ, যা ২০১৩ সালে অক্সফোর্ড ডিকশনারিতে অন্তর্ভুক্ত হয়। স্মার্টফোন বা ওয়েবে বার্তা চালাচালির সময় ইমোজি ব্যবহার করে খুব সহজেই এমন কিছু বোঝানো যায় যা প্রচলিত ভাষায় লিখে বোঝানো কষ্টকর।

ইমোজি নক্সাকারী দল চার গুগল কর্মী। তাদের কাজের প্রেরণা হিসেবে ছিল ‘নিউইয়র্ক টাইমস’-এর উপসম্পাদকীয়তে প্রকাশ হওয়া ‘ইমোজি ফেমিনিজম’ নামে একটি নিবন্ধ। নক্সাকারী দলটির মতে তাদের কাজ নারীর ক্ষমতায়ন এবং সমগ্র বিশ্বে নারীদের গুরুত্ব তুলে ধরতে সাহায্য করবে। ব্যবহারকারীরা কিছু ডিভাইসে আলাদা আলাদা গায়ের রং বাছাই করতে পারেন। ইমোজির সার্চ ইঞ্জিন ইমোজিপিডিয়া প্রস্তাব করেছেÑ ব্যবহারকারীদের ইমোজির চুল আর লিঙ্গ বাছাইয়েরও সুযোগ দেয়া উচিত। এক গবেষণায় দেখা গিয়েছে, ১৬ থেকে ২৪ বছর বয়সী নারীদের মধ্যে শতকরা ৮২ শতাংশই প্রতিদিন ইমোজি ব্যবহার করেন।