১২ ডিসেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

হাফ ডজন মন্ত্রীসহ হারলেন আরও যে হেভিওয়েটরা

হাফ ডজন মন্ত্রীসহ হারলেন আরও যে হেভিওয়েটরা

অনলাইন ডেস্ক ॥ একজন জিতলে অন্যজনকে হারতেই হবে। তবে হেভিওয়েটদের পতনে স্বাভাবিক ভাবেই ‘শব্দ হয়’ অনেক বেশি। এ বারও তেমন অনেকে হারলেন। কেউ কেউ আবার বিশাল ব্যবধানে। এই তালিকায় আছেন বিদায়ী মন্ত্রিসভার ছয় সদস্যও। যে সব মন্ত্রী ও হেভিওয়েটরা হারলেন তাদের মধ্যে অন্যতম, মদন মিত্র: জেলে বসে জিততে পারলেন না। কামারহাটির মানুষ সিপিএম প্রার্থী মানস মুখোপাধ্যায়কে ৪,১৯৮ ভোটে জিতিয়ে দিলেন। সূর্যকান্ত মিশ্র: জোটের অঘোষিত মুখ ছিলেন। নারায়ণগড় কেন্দ্রে তৃণমূল প্রার্থী প্রদ্যুতকুমার ঘোষের কাছে ১২,৮৭৫ ভোটে হেরে গেলেন। মণীশ গুপ্ত: যাদবপুর কেন্দ্রের তৃণমূল প্রার্থী। সিপিএম প্রার্থী সুজন চক্রবর্তীর কাছে ১৪,৯৪২ ভোটে হারলেন। রাহুল সিনহা: জোড়াসাঁকো কেন্দ্রের বিজেপি প্রার্থী গণনা পর্বে অনেকক্ষণ এগিয়ে ছিলেন। কিন্তু শেষ পর্যন্ত তৃণমূল প্রার্থী স্মিতা বক্সির কাছে হেরে গেলেন ৬,২৯০ ভোটে। সোমেন মিত্র: চৌরঙ্গী কেন্দ্রের কংগ্রেস প্রার্থী। তৃণমূল প্রার্থী নয়না বন্দ্যোপাধ্যায় তাঁকে ১৩,২১৬ ভোটে হারালেন। সাবিত্রী মিত্র: মানিকচকে কংগ্রেসের মোত্তাকিন আলমের কাছে হেরে গিয়েছেন বিদায়ী মন্ত্রী। ব্যবধান ১২, ৬০৩ ভোটে। অসীম দাশগুপ্ত: প্রাক্তন অর্থমন্ত্রীকে ২১,২০০ ভোটে হারিয়ে দিলেন এ রাজ্যের বর্তমান অর্থমন্ত্রী অমিত মিত্র। খড়দহ কেন্দ্রে গত বিধানসভা ভোটেও অসীমকে হারিয়েছিলেন অমিত। চন্দ্রিমা ভট্টাচার্য: দমদম উত্তর কেন্দ্রে হেরে গেলেন মন্ত্রী চন্দ্রিমা ভট্টাচার্য। বামফ্রন্টের তন্ময় ভট্টাচার্যের থেকে ৯,৫৪৯ ভোট কম পেয়েছেন তিনি। কৃষ্ণেন্দুনারায়ণ চৌধুরী: ইংরেজবাজারের কৃষ্ণেন্দুনারায়ণ চৌধুরীর হারের ব্যবধানটা অনেকটাই বেশি।

বাম এবং কংগ্রেস সমর্থিত নির্দল প্রার্থী নিহাররঞ্জন ঘোষ তাঁকে পাক্কা ৩৯,৭২৭ ভোটে হারিয়েছেন। রূপা গঙ্গোপাধ্যায়: ছোটাছুটি কম করেননি তিনি। তবুও তাঁর কেন্দ্র হাওড়া উত্তরে ভোটের নিরিখে তৃতীয় স্থানে রয়েছেন। জয়ী তৃণমূল প্রার্থী লক্ষ্ম প্রার্থীর থেকে ৩০,৫০১ ভোট কম পেয়েছেন তিনি। লকেট চট্টোপাধ্যায়: ময়ূরেশ্বরে হেরে গিয়েছেন এই হেভিওয়েট বিজেপি প্রার্থী। তৃতীয় হয়েছেন তিনি। জয়ী তৃণমূল প্রার্থী অভিজিৎ রায়ের থেকে তাঁর ব্যবধান ৫৩,৮৮১। জ্ঞানসিংহ সোহনপাল: টানা ন’বারের বিধায়ক সবার প্রিয় ‘চাচা’ হেরে গেলেন এ বার। ৯৩ বছর বয়সী কংগ্রেস নেতাকে ৬,৩০৯ ভোটে হারালেন বিজেপি রাজ্য সভাপতি দিলাপ ঘোষ।

সূত্র : আনন্দবাজার পত্রিকা