১৯ ডিসেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

ভোলায় রোয়ানুর সর্তক সংকেত উপেক্ষা করে জেলেরা নদীতে

ভোলায় রোয়ানুর সর্তক সংকেত উপেক্ষা করে জেলেরা নদীতে

নিজস্ব সংবাদদাতা, ভোলা ॥ ঘুর্ণিঝড় রোয়ানুর প্রভাবে উপকূলীয় দ্বীপ জেলা ভোলায় বৃহস্পতিবার রাত থেকে শুক্রবার সারা দিন হালকা ভাড়ি ও গুড়ি গুড়ি বৃষ্টি হয়েছে। আকাশ ছিলো সারা দিন ছিলো মেঘাচ্ছন্ন। দুপুরের পর থেকে ভারি বৃষ্টিপাত ও ঝড়ো বাতাস হয়েছে। এদিকে ঝড়ে বাতাসে মেঘনা ও তেঁতুলিয়া নদী উত্তাল হয়ে উঠে। তবে দুর্যোগপূর্ন আবহাওয়ার মধ্যে নিষেধাজ্ঞা উপেক্ষা করে জেলেরা নদী মাছ ধরতে গিয়েছে। উপকূলীয় মানুষজনকে নিরাপদ আশ্রয় কেন্দ্রে যাওয়ার জন্য প্রশাসনের পক্ষ থেকে মাইকিং করা হলেও শুক্রবার দুপুর পর্যন্ত ইলিশা এলাকার মানুষকে আশ্রয় কেন্দ্রে যেতে দেখা যায়নি। ইলিশা এলাকার স্থানীয়রা জানান, তারা সর্তক সংকেত পায়নি। তাই ওই এলাকারমানুষ আশ্রয় কেন্দ্রে যায়নি। তবে ভোলা সদরের ধনিয়া ইউনিয়নের তুলাতলি এলাকায় রেডক্রিসেন্ট সোসাইটির কর্মীদের সর্তক সংকেত প্রচার করতে দেখা গেছে।

ভোলা সিপিপি উপ-পরিচালক মো: সাহাবুদ্দিন জানান, দুপুর ১টা পর্যন্ত জেলায় ৪ নাম্বার সংকেত বহাল রয়েছে। দুর্যোগ মোকাবেলায় জেলা জুড়ে আমাদের ১০ হাজার ২০০ কর্মী প্রস্তুত রয়েছে। ঝড় মোকাবেলায় আমরা প্রস্তুত রয়েছি।

এদিকে শুক্রবার সকাল থেকে উপকূলীয় এলাকায় ৪ নাম্বার সকর্ত সংকেতের পাতাকা টাঙ্গিয়ে প্রচার-প্রচারনা চালিয়ে যাচ্ছে ভোলা রেডক্রিসেন্ট ও সিপিপি। দুরবর্তী এলাকার মানুষকে ও নৌযান সমূহকে নিরাপদে আশ্রয়ে আসতে বলা হয়েছে। শহরের তুলাতলীসহ বিভিন্ন এলাকায় এ সতর্ক বার্তা পৌছানো হয়েছে।

এই মাত্রা পাওয়া