১৪ ডিসেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

নওগাঁ পৌর শহরের সকল রাস্তার বেহালদশা

  • সংস্কারের নামে চলছে হরিলুট

বিশ্বজিৎ মনি, নওগাঁ ॥ নওগাঁ পৌর শহরের প্রায় প্রতিটি রাস্তার এখন বেহালদশা। গত অর্থবছর থেকে শহরের রাস্তাঘাটের উন্নয়ন তথা সংস্কারের নামে চলছে হরিলুটের খেলা। চলাচলের ক্ষেত্রে নগরবাসীর দুর্ভোগের সীমা নেই। আর এসব দেখার মতো কেউ আছে বলে অবস্থাদৃষ্টে তা মনে হয় না। পৌর কর্তৃপক্ষের এহেন আচরণে শহরবাসী যেন জিম্মি হয়ে পড়েছে।

নওগাঁ পৌর শহরের অবহেলিত ৯নং ওয়ার্ডে উন্নয়নের কোন ছোঁয়া লাগেনি দীর্ঘদিনেও। ৯নং ওয়ার্ড থেকে ১নং ওয়ার্ডের প্রায় প্রতিটি রাস্তার এখন বেহালদশা। গত অর্থবছরে শহরের বিভিন্ন রাস্তাঘাট সংস্কারের কাজ হাতে নিলেও কোন রাস্তারই সংস্কারকাজ আজ পর্যন্ত সম্পন্ন হয়নি। শহরের পার-নওগাঁ আলুপট্টি থেকে সুলতানপুর হয়ে লস্করপুর রাস্তা, স্যান্যালবাড়ি লোকনাথ মন্দির থেকে পার-নওগাঁ মসজিদ হয়ে অবকাশ বোর্ডিংয়ের সামনের রাস্তা, ধোপাপাড়া হয়ে বিজিবি সড়ক, ব্রিজের মুখ থেকে পুরনো হাসপাতাল হয়ে ডিগ্রী কলেজ রাস্তা, রুবির মোড় থেকে হাসপাতাল সড়ক, মাংসহাটির মোড় থেকে কালীতলা হয়ে চকপ্রসাদ সড়ক, চকদেব থেকে দুর্গাপুর সড়ক, উকিলপাড়া সøুইস গেট থেকে সেবাশ্রম সড়কসহ বিভিন্ন সড়ক চলাচলের অযোগ্য হয়ে পড়েছে।

অপরদিকে ৯নং ওয়ার্ডের কাঁঠালতলী থেকে রানীনগর রাস্তার মাদার মোল্লা পর্যন্ত সওজের এটি রাস্তা তো নয়, যেন মরণ ফাঁদ। এছাড়া শহরের কেডির মোড় থেকে মুক্তির মোড় সড়কের ডাকবাংলোর সামনে যেন মরল ফাঁদ হয়ে আছে। ওই ডাকবাংলোতে মাঝেমধ্যেই সরকারের এমপি এবং হুইপসহ বড় বড় কর্তাব্যক্তি অবস্থান করেন। তারপরও যেন রাস্তাগুলো সংস্কারের কোন উদ্যোগ নেয়া হয় না। উল্লিখিত রাস্তাগুলো দিয়ে কোন সুস্থ মানুষ চলাচল করতে গিয়ে অসুস্থ হয়ে পড়েন। যানবাহনের দুর্ঘটনার পাশাপাশি পথচারীরা হোঁচট খেয়ে পায়ে আঘাতপ্রাপ্ত হয়ে তাদের কষ্টের সীমা থাকে না। জরুরী ভিত্তিতে কোন অসুস্থ রোগীকে বা কোন প্রসূতিকে হাসপাতালে নিতে চরম দুর্ভোগ পোহাতে হয়। বিভিন্ন স্কুলের ছাত্রছাত্রীরাও বিপাকে পড়ে এই ভাঙ্গাচোরা রাস্তা দিয়ে চলাচল করতে। বিগত অর্থবছরে নওগাঁ পৌরসভার রাস্তা-ড্রেন উন্নয়নে দুই দফায় প্রায় ২০ কোটি টাকারও বেশি অর্থ বরাদ্দ হয়। সেই অর্থের সিংহভাগই পৌর মেয়র, তৎকালীন কাউন্সিলর এবং চিহ্নিত ঠিকাদাররা মিলে আগেই ভাগ-বাটোয়ারা করে নেয়। কাজও ভাগ করে নেয় আওয়ামী লীগ ও বিএনপির নামধারী ঠিকাদাররা।

পরবর্তীতে অবশিষ্ট টাকার কাজ শুরু করলেও প্রায় দুই বছরেও তা সারা হয়নি। যে দু-একটি রাস্তার কাজ শেষ করা হয়েছে তা বছর না ঘুরতেই নষ্ট হতে শুরু করেছে। পৌরবাসীর মতে, অত্যন্ত নিম্নমানের সামগ্রী ব্যবহার ও দায়সারাভাবে কাজ করার জন্য শহরের রাস্তাগুলোর আজ এমন বেহালদশা। অতিসস্প্রতি শহরের পার-নওগাঁ তাজের মোড় থেকে ধোপাপাড়া রাস্তায় খোয়া ফেলার কাজ শুরু হয়েছে। এলাবাসীর মতে, এসব খোয়াও নিম্নমানের। বিষয়টি দেখার জন্য তারা পৌর কর্তৃপক্ষকে অবহিত করেছে বলেও জানিয়েছে।