১৫ নভেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

পিছিয়ে জাতীয় দলের ক্রিকেটাররা

স্পোর্টস রিপোর্টার ॥ দেশের সবচেয়ে জনপ্রিয় ও বড় ঘরোয়া ক্রিকেট আসর ঢাকা প্রিমিয়ার ডিভিশন ক্রিকেট লীগের (ডিপিএল) প্রাথমিক পর্বের খেলা প্রায় শেষ পর্যায়ে। আর মাত্র চারটি করে ম্যাচ বাকি আছে। এরপর সুপার লীগ রাউন্ড শুরু হয়ে যাবে। ব্যাট-বলের নৈপুণ্যে এখন পর্যন্ত শীর্ষস্থান ধরে রেখেছেন বিদেশী ক্রিকেটাররা। ব্যাটিংয়ে সবার ওপরে কলাবাগান ক্রীড়া চক্রের (কেসি) জিম্বাবুইয়ের অভিজ্ঞ ব্যাটসম্যান হ্যামিল্টন মাসাকাদজা (৪১৯ রান) ও বোলিংয়ে সেরা ভিক্টোরিয়া স্পোর্টিংয়ে খেলা শ্রীলঙ্কার তরুণ অর্থোডক্স স্পিনার চতুরঙ্গ ডি সিলভা (১৯ উইকেট)। ব্যাটিং কিংবা বোলিংয়ে অবশ্য সেরাদের তালিকায় এছাড়া বিদেশীদের ঘাটতি আছে। দেশী ক্রিকেটাররাই বাকি জায়গাগুলো দখল করে আছেন। কিন্তু সেই তালিকায় নেই জাতীয় দলের হয়ে সর্বশেষ ওয়ানডে ও টি২০ খেলা দলের কেউ। ব্যাটিংয়ে সেরা দশে নেই জাতীয় দলের কোন ক্রিকেটার। আর বোলিংয়ে মুখ রক্ষা করেছেন টি২০ খেলা পেসার আল আমিন হোসেন (৫ নম্বরে)।

এবার প্রিমিয়ার ক্রিকেটে জাতীয় দলের দুই অপরিহার্য ক্রিকেটার বিশ্বসেরা অলরাউন্ডার সাকিব আল হাসান এবং পেসার মুস্তাফিজুর রহমান খেলছেন না। দু’জনই ব্যস্ত আছেন ইন্ডিয়ান প্রিমিয়ার লীগ (আইপিএল) নিয়ে। তবে জাতীয় দলের বাকি সদস্যরা ঠিকই খেলেছেন সবগুলো ম্যাচ। কিন্তু ব্যক্তিগত নৈপুণ্যে সেভাবে জ্বলে উঠতে পারেননি কেউ। ব্যাটিংয়ে সবচেয়ে ভাল করছেন মাহমুদুল্লাহ রিয়াদ। শেখ জামাল ধানম-ি ক্লাবের অধিনায়ক ৭ ম্যাচে ৪৯.৩৩ গড়ে করেছেন ২৯৬ রান। আর প্রিমিয়ার ক্রিকেটের আগে দারুণ রানখরায় ভোগা টেস্ট অধিনায়ক মুশফিকুর রহীমও ছন্দে ফিরেছেন কিছুটা। তিনি ৫৫.০০ গড়ে ২৭৫ রান করে আছেন ১৪ নম্বরে। আবাহনীর অধিনায়ক তামিম ইকবাল অবশ্য তেমন পিছিয়ে নেই। তিনি ৩৮.৭১ গড়ে ২৭১ রান করে আছেন ১৮ নম্বরে। এগিয়ে আছেন জাতীয় দলের বাইরে দীর্ঘদিন কাটানো ওপেনার এনামুল হক বিজয়। গাজী গ্রুপ ক্রিকেটার্সের হয়ে দারুণ ধারাবাহিকতা দেখিয়ে তিনি ৩৮৪ রান করেছেন ৬৪.০০ গড়ে। আছেন ৪ নম্বরে। তরুণ সাইফ হাসান, শামসুর রহমান শুভ ও শাহরিয়ার নাফীসও দুর্দান্ত খেলছেন এবার। সাইফ ৩৫০ রান করে ছয়ে, শামসুর ৩৪৫ রান করে সাতে এবং শাহরিয়ার ৩২১ রান করে আটে অবস্থান করছেন। কিন্তু সবাইকে ছাড়িয়ে মাসাকাদজা। কলাবাগান কেসির এ অভিজ্ঞ জিম্বাবুইয়ান ২ সেঞ্চুরি ও ১ হাফ সেঞ্চুরিসহ ৫৯.৮৫ গড়ে করেছেন্ ৪১৯ রান। আর দারুণ নৈপুণ্য দেখিয়েছেন তরুণ ওপেনার ইমতিয়াজ হোসেন।

তিনি প্রাইম দোলেশ্বর স্পোর্টিং ক্লাবের হয়ে ৬৭.৩৩ গড়ে ২টি করে সেঞ্চুরি ও হাফ সেঞ্চুরি হাঁকিয়ে করেছেন ৪০৪ রান। আছেন মাসাকাদজার পরেই। আরেক বিস্ময় তরুণ ব্যাটসম্যান আল আমিন। ৭৪.৮০ গড়ে তিনি ৩৭৪ রান করে পাঁচে অবস্থান করছেন। আপাতত জাতীয় দলের আন্তর্জাতিক ব্যস্ততা নেই। তবে আগস্ট-সেপ্টেম্বরে আছে টেস্ট ক্রিকেট। তার আগে মুশফিক-মাহমুদুল্লাহ-তামিমদের ব্যাটে রানের ফোয়ারা ছোটা অতীব জরুরী। সেদিক থেকে অভিজ্ঞ শাহরিয়ার এবং এনামুল ও শামসুর এগিয়ে আছেন।

বোলিংয়ে জাতীয় দলের ক্রিকেটারদের সম্মান রেখেছেন দোলেশ্বর পেসার আল আমিন। তিনি ১৩ উইকেট শিকার করে আছেন ৫ নম্বরে। যদিও শীর্ষে ভিক্টোরিয়ার লঙ্কান রিক্রুট চতুরঙ্গ। তিনি মাত্র ১৬.৩৬ গড়ে ১৯ উইকেট নিয়ে এককভাবে শীর্ষে। আর দ্বিতীয় স্থানে থাকা লেগস্পিনার জুবায়ের হোসেন এবার মোক্ষম জবাব দিয়েছেন জাতীয় দলে তাকে উপেক্ষার। তিনি ১৯.৩০ গড়ে নিয়েছেন ১৩ উইকেট। ১৩টি করে উইকেট আছে ৫ বোলারের। তবে বোলিং গড়ে এগিয়ে থাকারা ওপর দিকে অবস্থান করছেন তালিকায়। ওয়ানডে ও টি২০ অধিনায়ক মাশরাফি বিন মর্তুজা এবার কলাবাগান কেসির হয়ে দারুণ চ্যালেঞ্জের মুখে আছেন। তবে ব্যক্তিগত নৈপুণ্যে উজ্জ্বল মাশরাফি নিয়েছেন ২৭.০৮ গড়ে ১২ উইকেট, অবস্থান ১২ নম্বরে। ১২ উইকেট করে আছে ৬ ক্রিকেটারের। তবে মাশরাফি টেস্ট খেলেন না এখনও। তাই পরবর্তী মিশনে যাদের জাতীয় দলে প্রয়োজন তাদের কেউ নেই সেরা বিশের মধ্যেও! অভিজ্ঞ স্পিনার আব্দুর রাজ্জাক দীর্ঘদিন জাতীয় দলের বাইরে। তিনি অবশ্য ১২ উইকেট শিকার করেছেন, বোলিং গড়ে অবস্থান ১০ নম্বরে।