১৭ ডিসেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

ঘূর্নিঝড় ‘রোয়ানু’র প্রভাবে উপকূলে দমকা হাওয়া ॥ নিহত-১

নিজস্ব সংবাদদাতা, পটুয়াখালী ॥ পটুয়াখালী অতিক্রম করে গেছে ঘূর্নিঝড় ‘রোয়ানু’। তেমন কোন প্রভাব না পড়লেও শনিবার ভোর রাতে দমকা হাওয়ায় দশমিনার গোপালদি গ্রামে ঘরচাপায় নয়া বিবি (৫৫) নামের একজন নিহত হয়েছে। আহত হয়েছে ৪ জন। আহতরা হচ্ছে শহিদুল ইসলাম (২৮), সেলিম (২৪), কন্যা সুফিযা (৩৫) ও রাজিয়া (৩২)। বর্তমানে উপকূলে হালকা বর্ষনের সাথে থেমে থেমে চলছে দমকা হাওয়া। দশমিনা উপজেলার বিভিন্ন এলাকায় শতাধিত কাঁচা বাড়ী-ঘর বিধ্বস্ত হয়েছে। কলাপাড়া ও দশমিনায় বেড়িবাধ ভেঙ্গে ২৫-৩০ গ্রাম প্লাবিত হয়েছে। মাছের ঘেরে পানি ঢুকে প্লাবিত হয়েছে। অত্যান্তরীন ও দুরপাল্লার রুটে লঞ্চ চলাচল বন্ধ রয়েছে। অপর দিকে কুয়াকাটা সংলগ্ন দক্ষিণ বঙ্গোপসাগর রয়েছে। পায়রা সমুদ্র বন্দরসহ পটুয়াখালী উপকূলে ৭ নম্বর সতর্ক সংকেত বলবৎ রয়েছে। বঙ্গোপসাগর উত্তাল হওয়ায় স্থানীয় নদ-নদী গুলো ক্রমশই পানি বৃদ্ধি হচ্ছে।

লাগাতার ভারী বৃষ্টিপাতের কারনে পটুয়াখালী পৌর শহরসহ উপজেলা গুলো বেশ কিছু এলাকাতে জলাবদ্ধতা দেখা দিয়েছে। জেলার বিভিন্ন উপজেলার নি¤œাঞ্চল ৪-৫ ফুট পানিতে প্লাবিত হয়েছে। ফলে রবিশস্য নিয়ে দুঃচিন্তায় পরেছে কৃষকরা। শত-শত ট্রলার নিরাপদ আশ্রয় নিয়েছে।

কলাপাড়া আবহাওয়া অফিস সূত্র জানাযায়, রাত তিনটা থেকে ঘূর্নিঝড় রোয়ানু উপকূল অতিক্রম করে পটুয়াখালী-বরিশাল হয়ে চিটাগং দিকে অগ্রসর হচ্ছে। শুক্রবার রাত থেকে জেলার অধিকাংশ স্থানে বিদ্যুৎ বন্ধ রয়েছে।

এদিকে পটুয়াখালী জেলা প্রশাসক একে এম শামিমুল হক সিদ্দিকী দূর্যোগ মোকাবেলায় ক্ষতিগ্রস্থদের জন্য প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ নেয়ার নির্দেশ প্রদান করেছেন।

পটুয়াখালী নৌ-বন্দর উপ-পরিচালক আব্দুর রাজ্জাক জানান, পটুয়াখালীর অভ্যন্তরীন নৌপথে ১২টি নৌ রুটে একতলা লঞ্চ (৬৫ ফুটের নীচের লঞ্চ) চলাচল বন্ধ ঘোষণা করা হয়েছে। বন্ধ রয়েছে পটুয়াখালী-ঢাকাগামী যাত্রীবাহি লঞ্চও।

নির্বাচিত সংবাদ