২২ অক্টোবর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

পুঁজিবাজারে সূচক বাড়লেও লেনদেন কমেছে

অর্থনৈতিক রিপোর্টার ॥ গত সপ্তাহে দেশের প্রধান পুঁজিবাজার ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জে (ডিএসই) লেনদেন কমলেও সব ধরনের মূল্যসূচক বেড়েছে। আলোচিত সপ্তাহে ডিএসইতে লেনদেন কমেছে ১৬ দশমিক ৩৯ শতাংশ। আর প্রধান সূচক বেড়েছে ২ দশমিক ১৯ শতাংশ। গত সপ্তাহে প্রথম কার্যদিবস ছাড়া বাকি চারদিনই সূচক বেড়েছে। তবে সেই হারে বিনিয়োগকারীদের অংশগ্রহণ বাড়েনি। দর বাড়তে থাকায় অনেকেই শেয়ার বিক্রিতে কিছুটা ধীরে চলো নীতি অবলম্বন করেছেন। অতি সতর্কতার কারণেই লেনদেন বাড়েনি। তবে লেনদেন বাড়লেও কোম্পানিগুলোর হারানো দর ফিরে পেতে দেখে কিছুটা আশার আলো দেখছেন লোকসানে থাকা বিনিয়োগকারীরা।

বাজার পর্যালোচনায় দেখা গেছে, আগের সপ্তাহের চেয়ে ডিএসইতে লেনদেন কমেছে ৩২০ কোটি ৪১ লাখ টাকার। আলোচিত সপ্তাহে ডিএসইতে লেনদেন হয়েছে ১ হাজার ৬৩৪ কোটি ৭৪ লাখ টাকার। আর আগের সপ্তাহে লেনদেন হয়েছিল ১ হাজার ৯৫৫ কোটি ১৫ লাখ টাকার।

সমাপ্ত সপ্তাহে ‘এ’ ক্যাটাগরির কোম্পানির শেয়ার লেনদেন হয়েছে ৯০ দশমিক ৯৭ শতাংশ। ‘বি’ ক্যাটাগরির কোম্পানির লেনদেন হয়েছে ১ দশমিক ২৮ শতাংশ। ‘এন’ ক্যাটাগরির কোম্পানির শেয়ার লেনদেন হয়েছে ৬ দশমিক ৬৮ শতাংশ। ‘জেড’ ক্যাটাগরির লেনদেন হয়েছে ১ দশমিক ০৭ শতাংশ।

এদিকে, ডিএসইর সার্বিক সূচক বা ডিএসইএক্স সূচক বেড়েছে ২ দশমিক ১৯ শতাংশ বা ৯৪ দশমিক ২৩ পয়েন্ট। সপ্তাহের ব্যবধানে ডিএসই৩০ সূচক বেড়েছে ৩ দশমিক ১২ শতাংশ বা ৫১ দশমিক ৯৭ পয়েন্ট। অপরদিকে, শরীয়াহ বা ডিএসইএস সূচক বেড়েছে ২ দশমিক ০২ শতাংশ বা ২১ দশমিক ৩৮ পয়েন্টে।

সপ্তাহজুড়ে ডিএসইতে তালিকাভুক্ত মোট ৩২৯টি কোম্পানি ও মিউচুয়াল ফান্ডের শেয়ার লেনদেন হয়েছে। এর মধ্যে দর বেড়েছে ২২৫টি কোম্পানির। আর দর কমেছে ৮১টির এবং অপরিবর্তিত রয়েছে ২১ টির। আর লেনদেন হয়নি ২টি কোম্পানির শেয়ার।

সাপ্তাহিক লেনদেনের সেরা কোম্পানিগুলো হলো : ইউনাইটেড পাওয়ার জেনারেশন অ্যান্ড ডিস্ট্রিবিউশন কোম্পানি লিমিটেড, ডরিন পাওয়ার, লাফার্জ সুরমা, বিএসআরএম স্টিল, মবিল যমুনা বিডি, লিন্ডে বাংলাদেশ, বাংলাদেশ বিল্ডিং সিস্টেম, শাহজিবাজার পাওয়ার, স্কয়ার ফার্মা ও বিএসআরএম লিমিটেড।

দরবৃদ্ধির সেরা কোম্পানিগুলো হলো : লাফার্জ সুরমা, খান ব্রাদার্স পিপি ওভেন ব্যাগ, ডরিন পাওয়ার, বাংলাদেশ ন্যাশনাল ইন্স্যুরেন্স কোম্পানি, যমুনা ব্যাংক, কর্ণফুলী ইন্স্যুরেন্স, জনতা ইন্স্যুরেন্স, বিচ হ্যাচারী ও এশিয়া ইন্স্যুরেন্স লিমিটেড।

দর হারানোর সেরা কোম্পানিগুলো হলো : তাল্লু স্পিনিং, বাংলাদেশ শিপিং কর্পোরেশন, আইএসএন, বিডি ফাইনান্স, এ´িম ব্যাংক, লিন্ডে বাংলাদেশ, শাহজালাল ইসলামী ব্যাংক, ইস্টার্ন ক্যাবলস, কে অ্যান্ড কিউ ও বে´িমকো।

অপর বাজার চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জে (সিএসই) লেনদেন হয়েছে ৯৬ লাখ ২৮ টাকা। তবে প্রধান সূচক বেড়েছে ২ দশমিক ৪০ শতাংশ। সপ্তাহজুড়ে সিএসইতে তালিকাভুক্ত মোট ২৭৭টি কোম্পানি ও মিউচুয়াল ফান্ডের শেয়ার লেনদেন হয়েছে। এর মধ্যে দর বেড়েছে ১৯২টি কোম্পানির। আর দর কমেছে ৬৮টির এবং অপরিবর্তিত রয়েছে ১৭ টির।