১৮ অক্টোবর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

রোয়ানুর প্রভাবে বরিশালে বিদ্যুত ব্যবস্থা বিপর্যস্ত

স্টাফ রিপোর্টার, বরিশাল ॥ ঘূর্ণিঝড় রোয়ানুর প্রভাবে গত তিন দিনের অব্যাহত বর্ষণে জেলার অধিকাংশ নিন্মাঞ্চল প্লাবিত হয়েছে। প্রবল বর্ষণে মাঠের ফসল, পানবরজ, বীজতলা, সবজিক্ষেত, পুকুর ও ঘেরের মাছ, গাছপালা, কাঁচাপাকা সড়ক এবং ঘরবাড়িসহ বৈদ্যুতিক লাইনের ব্যাপক ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে।

জেলা প্রশাসক ড. গাজী সাইফুজ্জামান জানান, ঘূর্ণিঝড়ে ক্ষয়ক্ষতি কমিয়ে আনতে ও দুর্যোগকালীন জনগণকে দ্রুত নিরাপদ আশ্রয়কেন্দ্রে স্থানান্তরের জন্য প্রতিটি উপজেলা নির্বাহী অফিসারকে নিয়ে সভা করে ঘূর্ণিঝড় নিয়ন্ত্রণকক্ষ চালু করা হয়েছে।

জেলা কৃষি সম্প্রসারণ অধিদফতর সূত্রে জানা গেছে, বৃহস্পতিবার থেকে শনিবার দুপুর পর্যন্ত অব্যাহত বৃষ্টিতে জমির আউশের বীজতলা সম্পূর্ণ বিনষ্টসহ ঝড়ো বাতাসে জমির পানবরজ মাটির সঙ্গে মিশে গেছে। নিম্নাঞ্চল প্লাবিত হওয়ায় সবজিক্ষেত ও ফসলের ব্যাপক ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে।

জেলা মৎস্য অধিদফতর সূত্রে জানা গেছে, অতিবর্ষণে পানি বৃদ্ধি পাওয়ায় জেলার অধিকাংশ পুকুর ও ঘের তলিয়ে গেছে। পল্লী বিদ্যুত সমিতি-২ সূত্রে জানা গেছে, ঝড়ো বাতাসে গাছের ডালপালা ভেঙ্গে বিদ্যুতের লাইনের ওপর পড়ায় শুক্রবার রাত থেকে জেলার অধিকাংশ এলাকায় বিদ্যুত ব্যবস্থা বিপর্যস্ত হয়ে পড়েছে।

জেলা নিয়ন্ত্রণকক্ষের তথ্য অনুযায়ী, বিভিন্ন স্থানে ছোটবড় গাছপালা উপড়ে, মাছের ঘের তলিয়ে এবং কাঁচা-পাকা সড়ক ও বাড়িঘর বিধ্বস্ত হয়েছে। তবে সার্বিক ক্ষয়ক্ষতির পরিমাণ তাৎক্ষণিক নিরূপণ করা সম্ভব হয়নি।

নদীবন্দর কর্মকর্তা মোস্তাফিজুর রহমান জানান, বরিশাল নদীবন্দরের জন্য শুক্রবার বিকেলে ২ নম্বর সতর্ক সঙ্কেত থাকলেও ঢাকাগামী সকল লঞ্চ চলাচল বন্ধ করে দেয়া হয়। শনিবারও অভ্যন্তরীণ রুটে লঞ্চ চলাচল বন্ধ রয়েছে। সাগর উত্তাল থাকায় সকল ট্রলারকে নিরাপদ আশ্রয়ে যেতে বলা হয়েছে। এদিকে, দমকা বাতাস ও ঝড়ো হওয়া অব্যাহত থাকায় বরিশালের জনজীবনে বিরূপ প্রভাব পড়েছে। শ্রমজীবী মানুষ কাজে নামতে পারেনি। পাশাপাশি মানুষ ঘর থেকে বের হতে পারছে না। নগরী হয়ে পড়েছে জনশূন্য। বৃষ্টিতে নগরীর অধিকাংশ সড়কে পানি জমে গেছে।

জমি দখল, যশোরে আসামি গ্রেফতারে পুরস্কার ঘোষণা

স্টাফ রিপোর্টার, যশোর অফিস ॥ মণিরামপুরে সংখ্যালঘুসহ কৃষকদের ২শ’ বিঘা ফসলি জমিতে জোর করে ঘের নির্মাণের ঘটনায় মামলার প্রধান আসামি সদ্যনির্বাচিত চেয়ারম্যান সামছুল হক মন্টুকে আটকের সহায়তাকারীকে ২৫ হাজার টাকা পুরস্কার দেয়ার ঘোষণা দিলেন যশোরের পুলিশ সুপার আনিসুর রহমান। শনিবার দুপুরে উপজেলার রামনাথপুর গ্রামে নির্যাতিত ও ক্ষতিগ্রস্ত মানুষকে সান্ত¡না দিতে গিয়ে এ ঘোষণা দেন। এ সময় যশোর জেলা প্রশাসক ড. হুমায়ুন কবির, মণিরামপুর উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোঃ কামরুল হাসানসহ সরকারের বিভিন্ন পর্যায়ের কর্মকর্তাগণ উপস্থিত ছিলেন। জনগণের উদ্দেশে জেলা প্রশাসক বলেন, ঘেরের বেড়িবাঁধ আগামী কয়েকদিনের মধ্যে মাটি সমান করে দিয়ে চাষের উপযোগী করে দেয়া হবে। উল্লেখ্য, উপজেলার ঝাঁপা ইউনিয়নের সদ্যনির্বাচিত চেয়ারম্যান সামছুল হক মন্টু ও তার ক্যাডার বাহিনী রামনাথপুর, চ-ীপুর ও মনোহরপুর গ্রামের সংখ্যালঘু হিন্দু পরিবারসহ নিরীহ সাধারণ কৃষকের ২শ’ বিঘা জমি জবরদখল করে মাছের ঘের নির্মাণের চেষ্টা করেন।