১৮ অক্টোবর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

রাজশাহীতে খাল সংস্কারে অনিয়ম ॥ তিন সভাপতির পদত্যাগ

স্টাফ রিপোর্টার, রাজশাহী ॥ দুর্গাপুরের জয়নগর ইউনিয়নের বারনই নদীর আনোলিয়া খাল সংস্কারকাজে অনিয়মের অভিযোগ উঠেছে। ইতোমধ্যে কাজে অনিয়মের কারণে পদত্যাগ করেছেন খাল সংস্কার প্রকল্পের পৃথকভাবে গঠিত কার্যাদেশ বাস্তবায়ন কমিটির তিন সভাপতি। সম্প্রতি ওই প্রকল্পের তিন সভাপতি উপজেলা প্রকৌশলীর কাছে লিখিতভাবে তাদের পদত্যাগপত্র জমা দিয়েছেন।

তারা দাবি করেন, সরকারী অর্থের অপচয় করে অপ্রয়োজনীয় খাল সংস্কার প্রকল্পের কোন প্রয়োজন নেই। যে কারণে এই প্রকল্প স্থগিত করা প্রয়োজন। তবে উপজেলা প্রকৌশলীর দাবি, ইতোমধ্যে প্রকল্পের ৯০ ভাগ কাজ শেষ হয়েছে। সে কারণে কাজ স্থগিতের আর কোন সুযোগ নেই।

জানা গেছে, বারনই নদী-আনোলিয়া খালটি অতি বৃষ্টিপাতসহ নানা কারণে জৌলুস হারিয়েছে। এক সময় যে খাল থেকে পানি নিয়ে চাষাবাদ করেছে এলাকার কৃষকরা, সেই খালটি এখন আর কোন কাজে আসছিল না। প্রেক্ষিতে এশিয়ান ডেভেলপমেন্ট ব্যাংকের (এডিবি) অর্থায়নে বারনই নদী-আনোলিয়া খালটি সংস্কারের উদ্যোগ নেয়া হয়। মাঠপর্যায়ের জরিপ শেষে চার কিলোমিটার খাল সংস্কারের জন্য ২০১১ সালের ২৪ এপ্রিল এ প্রকল্পটি স্থানীয় সরকার মন্ত্রণালয়ে জমা দেয়া হয়। ১৮ লাখ টাকা বরাদ্দ দিয়ে ২০১৪ সালের ১৮ মার্চ ৫০০ মিটার কমিয়ে সাড়ে তিন কিলোমিটার খাল সংস্কারকাজের প্রকল্পটি অনুমোদন করে মন্ত্রণালয়।

চলতি বছরের ১৪ জানুযারি প্রকল্পের কার্যাদেশ দেয়া হলে প্রকল্পের কাজ শুরু হয়। মন্ত্রণালয়ের নির্দেশনা অনুযায়ী প্রকল্পের কাজ দেখভালের জন্য কার্যকরী কমিটি গঠন করা হয়, যার সভাপতি করা হয় ওই এলাকার রবিউল ইসলামকে। এছাড়া কার্যাদেশ বাস্তবায়নের জন্য আরও পাঁচটি কমিটি গঠন করা হয়। এই কমিটি পৃথকভাবে মাটিকাটাসহ অন্যান্য কাজ দেখবে। পরবর্তীতে খাল সংস্কারকাজের কার্যকরী কমিটির সভাপতির বিরুদ্ধে নানা অনিয়ম তুলে ধরে গত ১৬ মে উপজেলা প্রকৌশলীর কাছে পদত্যাগপত্র জমা দেন কার্যাদেশ বাস্তবায়নের জন্য গঠিত কমিটির সভাপতি শহিদুল ইসলাম, তাজিম উদ্দিন ও গোলাম মোস্তফা।

নেত্রকোনায় বক্স কালভার্ট ভেঙ্গে চলাচল বন্ধ

নিজস্ব সংবাদদাতা, নেত্রকোনা, ২১ মে ॥ কলমাকান্দা-দুর্গাপুর সড়কের ভবানীপুর এলাকার বক্স কালভার্ট ভেঙ্গে যাওয়ায় দুর্গাপুরসহ কলমাকান্দা উপজেলার একটি অংশের সঙ্গে জেলা সদরসহ সারাদেশের সড়ক যোগাযোগ বন্ধ হয়ে গেছে। দুই পাশে আটকা পড়েছে বহু যানবাহন।

জানা গেছে, দুর্গাপুর-শ্যামগঞ্জ সড়কটি চলাচলের অনুপযোগী থাকায় দুর্গাপুর উপজেলার বিভিন্ন যানবাহন কিছুদিন যাবত বিকল্প পথে দুর্গাপুর-কলমাকান্দা সড়ক দিয়ে জেলা সদরসহ বিভিন্ন এলাকায় যাতায়াত করছিল। অতিরিক্ত পণ্য বোঝাই যান চলাচলের কারণে শনিবার ভোরে ওই সড়কের ভবানীপুর এলাকার বক্স কালভার্টটি ভেঙ্গে পড়ে। এর ফলে সড়কটিতে যান চলাচল বন্ধ হয়ে যায়। স্থানীয়রা অভিযোগ করেছে, শনিবার ভোরবেলা কালভার্টটি ভাঙ্গলেও দুপুর পর্যন্ত স্থানীয় সরকার প্রকৌশল বিভাগের (এলজিইডি) কোন কর্মকর্তা ঘটনাস্থলে আসেননি। বিকেল সোয়া পাঁচটায় স্থানীয় উপজেলা প্রকৌশলী মোঃ হায়দার আলী মিয়ার সঙ্গে যোগাযোগ করা হলে তিনি জানান, ঘটনাস্থলে লোক পাঠানো হয়েছে। কালভার্টটি দ্রুত মেরামতের ব্যবস্থা নেয়া হচ্ছে।