২১ নভেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

আবার নারী সাংবাদিক-বিতর্কে গেইল

স্পোর্টস রিপোর্টার ॥ নারী সাংবাদিক দেখলে যেন মাথা ঠিক থাকে না ক্রিস গেইলের! নইলে কত সুন্দরীই তো তার পেছনে ঘুর ঘুর করেন, কিন্তু বার বার প্রমীলা সংবাদকর্মীর সামনেই কেন এমন হয়? অস্ট্রেলিয়ার বিগ ব্যাশ ক্রিকেট লীগে এক টেলিভিশন উপস্থাপিকাকে সঙ্গে লাইভ সাক্ষাতকারে অভিসারের প্রস্তাব দিয়ে তোলপাড় ফেলে দিয়েছিলেন। এবারও তেমনি এক বিতর্কিত ঘটনার জন্ম দিলেন ৩৬ বছর বয়সী ক্যারিবিয়ান তারকা ক্রিকেটার। ঘটনা ইন্ডিয়ান প্রিমিয়ার লীগের (আইপিএল)। শনিবার বৃটেনের বহুল প্রচারিত ‘দ্য টাইমস’ পত্রিকায় প্রকাশিত নতুন এই সাক্ষাতকারে নারী সাংবাদিকের প্রতি গেইলের চরম যৌনতা ফুটে উঠেছে! যা নতুন করে আলোচনার জন্ম দেয়। সেখানে গেইল কথা বলেছেন তার পরিবার, মেয়েদের প্রতি মনোভাবসহ আরও অনেক কিছু নিয়ে। ছিল ঘর-সংসার, সন্তান পালন, রান্না করার মতো খুটিনাটি বিষয়ও।

এক পর্যায়ে ভিন্ন ইঙ্গিত করে গেইল বলেন, ‘আমার ব্যাট অনেক, অনেক বড়। আসলে বিশ্বের সবচেয়ে বড়।’ সঙ্গে তিনি এও যোগ করেন, ‘তোমার কি মনে হয় তুমি এটা তুলতে পারবে? তাহলে তোমাকে দু’হাতই ব্যবহার করতে হবে।’ মারকাটারি ওপেনার নিজেকে অনেক বেশি সুদর্শন দাবি করে বলেন, ‘হাজার হাজার মেয়ে আমার ওপর ঝাঁপিয়ে পড়তে তৈরি। চট করেই দ্য টাইমসের নারী সাংবাদিক শার্লট এডওয়ার্ডস জানতে চান, তুমি কাউকে সঙ্গ দিতে চাও? গেইলের উত্তর, ‘তোমার প্রশ্নগুলো কেমন যেন।’ নিজেই উল্টো এডওয়ার্ডসকে জিজ্ঞেস করেন, ‘কখনও কোন কৃষ্ণাঙ্গ পুরষের সঙ্গে যৌন সম্পর্কে জড়িয়েছ কি না? কখনও একইসঙ্গে দু’জনের!’ প্রসঙ্গ পাল্টে নারী অধিকার ও সমতা বিষয়ে প্রশ্ন করা হয় গেইলকে। জ্যামাইকান বাঁহাতি ওপেনার এর উত্তরটা দিয়েছেন এভাবে, ‘নারীদের সম-অধিকার থাকা উচিত এবং তারা সেটি পাচ্ছেনও। নারীরা যা ইচ্ছা তা-ই করার সুযোগ পাচ্ছেন। জ্যামাইকান মেয়েরা তো তাদের অধিকার নিয়ে বেশ সরব।’

একটু পরই আবার বললেন, ‘মেয়েদের আসলে উচিত পুরুষদের সন্তুষ্ট রাখা। যখন একজন পুরুষ ঘরে আসবেন, খাবার যেন টেবিলেই থাকে। এটা গুরুত্বপূর্ণ। মেয়েদের উচিত তাদের স্বামীকে জিজ্ঞেস করা, তারা কি পছন্দ করেন এবং সে অনুযায়ীই রান্না করা।’ সম-অধিকার প্রসঙ্গেই এডওয়ার্ডস জিজ্ঞেস করেছিলেন ঘরের কাজ ভাগাভাগি করে নেয়ার কথা। কদিন আগেই গেইলের বান্ধবী নাতাশা বেরিজের কোলে এসেছে কন্যা সন্তান। গেইল বলেন, ‘কোলে বাচ্চা নিয়ে ওর রান্না করার কোন দরকার নেই। আমরা বাইরে থেকেই খাবার কিনে নিতে পারি। যদি ও কাজে থাকে, তখন আমরা দু’জন মিলে ভাগাভাগি করে নিই। যে আগে বাসায় ফেরে, সেই রান্না করে।’ কিন্তু ঘরের কাজ ভাগাভাগি করে নেয়ায় নিজের ‘সীমানা’ও জানিয়ে দিয়েছেন তিনি। বাচ্চার ডায়াপার বদলাতে রাজি, তবে রান্না? ‘না’। আর থালাবাসন পরিষ্কার করা? ‘প্রশ্নই ওঠে না!’ আইপিএলে গেইল রয়্যাল চ্যালেঞ্জার্স ব্যাঙ্গালুরুর হয়ে খেলছেন। সম্প্রতি ওই সাংবাদিক ব্যাঙ্গালুরুতেই ‘এক্সক্লুসিভ’ এই সাক্ষাতকারটি নেন। শনিবার তার চুম্বকঅংশ প্রকাশিত হয়।