১৮ নভেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

মুস্তাফিজকে সন্তুষ্টচিত্তেই বিশ্রাম দিতে প্রস্তুত সাসেক্স

স্পোর্টস রিপোর্টার॥ বর্তমান সময়ে ক্রিকেট বিশ্বের সবচেয়ে আলোচিত পেসারের নাম মুস্তাফিজুর রহমান। মাত্র এক বছরের আন্তর্জাতিক ক্যারিয়ার। কিন্তু যেভাবে তিনি নিজের আগুনে বোলিংয়ে ব্যাটসম্যানদের ভস্ম করে দিয়েছেন তাতে করে সবাই আগ্রহী তাঁকে পেতে। এ কারণেই এবার ইংলিশ কাউন্টি ক্লাব সাসেক্স তাকে দলে ভিড়িয়েছে। তবে মাত্র ২০ বছর বয়সী এ বাঁহাতি বাংলাদেশী পেসারের ওপর অধিক খেলার চাপ বিরূপ প্রভাব সৃষ্টি করছে বলেও অনেকে মনে করছেন। কিন্তু তাঁর দম ফেলারই ফুরসত নেই। চলমান ইন্ডিয়ান প্রিমিয়ার লীগ (আইপিএল) খেলেই তাকে ইংল্যান্ডে যেতে হবে ইতোমধ্যেই শুরু হয়ে যাওয়া ন্যাটওয়েস্ট ব্লাস্ট টি২০ আসর খেলার জন্য। শেষ পর্যন্ত টানা খেলার ক্লান্তি থেকে মুক্তি পেতে নাও যেতে পারেন মুস্তাফিজ এমন গুঞ্জনও শোনা যাচ্ছে। কিন্তু সাসেক্স যেকোন মূল্যে তাঁকে দলে চায়। সেজন্য প্রয়োজনে যতটা দরকার মুস্তাফিজকে বিশ্রাম দিতেও আপত্তি নেই বলে জানিয়েছেন সাসেক্স অধিনায়ক লুক রাইট। সেক্ষেত্রে ২৯ মে শেষ হওয়া আইপিএলের পর অন্তত ১০ জুন মুস্তাফিজকে পাওয়ার আশা করছে সাসেক্স। ওইদিন হোভে কেন্টের বিরুদ্ধে ম্যাচ সাসেক্সের।

এবার সাসেক্সে মাত্র দুইজন বিদেশী ক্রিকেটারকে দলে ভিড়িয়েছে সাসেক্স। এর মধ্যে অন্যতম মুস্তাফিজ। ন্যাটওয়েস্ট ব্লাস্ট টি২০ আসর শুরু হয়ে যাবে চলমান আইপিএল শেষ হওয়ার আগেই। সেক্ষেত্রে আইপিএল শেষ করেই ইংল্যান্ডে পাড়ি জমাতে হবে এ তরুণকে। ইতোমধ্যে আইপিএলে টানা ১৩ ম্যাচ খেলেছেন এ বাঁহাতি। আইপিএলের আগে টি২০ বিশ্বকাপ, টি২০ এশিয়া কাপ খেলেছেন তিনি। আন্তর্জাতিক ক্যারিয়ার শুরুর পর থেকেই তেমন কোন বিশ্রাম পাননি। টানা খেলার মধ্যেই আছেন। সে কারণে ইনজুরিতেও পড়েছেন দু’দফা। প্রথম দফায় জিম্বাবুইয়ের বিরুদ্ধে চার ম্যাচের টি২০ সিরিজ খেলতে পারেননি চলতি বছরের শুরুতে। এরপর পাকিস্তান ক্রিকেট বোর্ডের (পিসিবি) প্রথমবার আয়োজিত পাকিস্তান সুপার লীগ (পিএসএল) টি২০ কেরতে পারেননি। এশিয়া কাপ টি২০ তে দুই ম্যাচ খেলেই ইনজুরির কারণে বাকি ম্যাচগুলো খেলা হয়নি। টি২০ বিশ্বকাপেও প্রাথমিক রাউন্ডে কোন ম্যাচ খেলতে পারেননি একই কারণে। এ ইনজুরিকে উদীয়মান এ তরুণের ওপর অধিক ম্যাচ খেলার চাপ হিসেবেই দেখছেন ক্রিকেটবোদ্ধারা। কারণ হ্যামস্ট্রিং সংক্রান্ত ইনজুরি সমস্যাতেই পড়েছিলেন মুস্তাফিজ। তাই আইপিএল শেষ করেই আবার কাউন্টি ক্রিকেটে নেমে পড়ার ক্ষেত্রে মুস্তাফিজের নিজেরও কিছুটা সংশয় আছে।

শেষ পর্যন্ত মুস্তাফিজকে এ মৌসুমে নাও পেতে পারে সাসেক্স। কিন্তু মুস্তাফিজকে প্রয়োজনে যথেষ্ট পরিমাণে বিশ্রাম দিতেও প্রস্তুত সাসেক্স। কারণ টি২০ ব্লাস্ট শেষে আবার রয়্যাল লন্ডন ওয়ানডে কাপ আছে। ইতোমধ্যেই শুরু হয়ে গেছে ন্যাটওয়েস্ট ব্লাস্ট। গ্লুস্টারশায়ারের বিরুদ্ধে খেলতে পারেননি মুস্তাফিজ। আরও কয়েকটি ম্যাচও মিস করবেন। কারণ আইপিএলে তার দল রয়্যাল চ্যালেঞ্জার্স ব্যাঙ্গালুরু ফাইনাল খেললে ভারতে মুস্তাফিজকে থাকতে হবে শেষদিন পর্যন্ত। এজন্য মুস্তাফিজকে বিশ্রাম দিয়ে শেষ মুহুর্তে কয়েকটি ম্যাচে পেতেও রাজি সাসেক্স। এ বিষয়ে লুক বলেন,‘আমরা জানতাম তিনি প্রথম দুয়েকটা ম্যাচ খেলতে পারবেন না। এখন তিনি যদি আরও কিছু ম্যাচ না খেলতে চান সেটা তার ব্যাপার। কিন্তু অবশ্যই আমরা চাই তিনি যতটা সম্ভব আমাদের হয়ে ম্যাচ খেলুন। তার মতো বিশেষ মেধাবী কোন ক্রিকেটারের জন্য শেষ ম্যাচ পর্যন্ত অপেক্ষা করা যায়।’