১৭ অক্টোবর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

কুষ্টিয়ায় হোমিও ডাক্তার হত্যার ক্লু উদ্ধার করতে পারেনি পুলিশ

নিজস্ব সংবাদদাতা, কুষ্টিয়া, ২১ মে ॥ কুষ্টিয়ায় হোমিও চিকিৎসক মীর ছানোয়ার হোসেন ওরফে ছানা (৫৭) হত্যাকা-ের ২৪ ঘণ্টা পেরিয়ে গেলেও পুলিশ কোন ক্লু উদ্ধার করতে পারেনি। গ্রেফতারও হয়নি ঘটনার সঙ্গে জড়িত কেউ। এদিকে জঙ্গী সংগঠন ইসলামিক স্টেটের (আইএস) এ হত্যাকা-ের দায় স্বীকারের বিষয়টিও পুলিশের কাছে স্পষ্ট ও বিশ^াসযোগ্য নয়। তবে বিষয়টি খতিয়ে দেখা হচ্ছে বলে জানান পুলিশ কর্মকর্তারা।

হত্যাকা-ের ঘটনায় শনিবার বিকেলে অজ্ঞাতনামা তিন জনকে আসামি করে কুষ্টিয়া মডেল থানায় একটি মামলা দায়ের হয়েছে। আইএসের সহযোগী সংস্থা ‘আমাক’ এর বিবৃতিতে আরবী ভাষায় লেখা- ‘বাংলাদেশের পশ্চিমাঞ্চলের কুষ্টিয়ায় খ্রিষ্টধর্ম প্রচার করেন, এমন এক চিকিৎসককে হত্যা করেছে ইসলামিক স্টেটের যোদ্ধারা’। শনিবার দুপুরে ঘটনাস্থল শিশিরমাঠ এলাকায় সরেজমিন ঘুরে খ্রিষ্টধর্ম প্রচারে ওই চিকিৎসকের সম্পৃক্ততার কোন সত্যতা মেলেনি। এছাড়া পুলিশের কাছেও এ সম্পর্কিত কোন তথ্য নেই। এদিকে শনিবার বিকেলে নিহতের পরিবারবর্গ ও পূর্ব মজমপুর এলাকাবাসী হত্যাকা-ের প্রতিবাদে কুষ্টিয়া সার্কিট হাউসের সামনে মানববন্ধন কর্মসূচী পালন করে। ওই কর্মসূচীতে বক্তারা অবিলম্বে হত্যাকারীদের গ্রেফতার ও দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবি জানান। এর আগে শনিবার সকাল ১০টায় কুষ্টিয়া কালেক্টরেট ঈদগাহ ময়দানে নিহতের জানাজা শেষে পৌর গোরস্তানে দাফন সম্পন্ন হয়। পরে বিকেল সোয়া ৫টার দিকে নিহতের বড়ভাই আনিসুর রহমান বাদী হয়ে অজ্ঞাত তিন জনকে আসামি করে কুষ্টিয়া মডেল থানায় মামলা দায়ের করেন। এছাড়া আইএসের বিবৃতির কোন সত্যতা নেই বলে কুষ্টিয়ার পুলিশ সুপার প্রলয় চিসিম জানান। তদন্তে উল্লেখযোগ্য অগ্রগতি না হলেও হত্যাকা-ের ক্লু উদ্ধার ও জড়িতদের আটক করতে পুলিশ কাজ চালিয়ে যাচ্ছে বলে জানান তিনি। উল্লেখ্য, শুক্রবার সকালে কুষ্টিয়ার বটতৈল শিশিরমাঠ এলাকায় বাগানবাড়িতে প্রতিষ্ঠিত দাতব্য চিকিৎসা কেন্দ্রে যাওয়ার পথে সন্ত্রসীদের উপর্যুপরি চাপাতির কোপে ঘটনাস্থলেই নিহত হন তিনি।