১৮ অক্টোবর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

নারায়ণগঞ্জে ছাত্রীর শ্লীলতাহানির অভিযোগে শিক্ষককে গণপিটুনি, গ্রেফতার

নিজস্ব সংবাদদাতা, নারায়ণগঞ্জ, ২১ মে ॥ নারায়ণগঞ্জে ধর্মীয় অনুভূতিতে আঘাত দেয়ার অভিযোগ এনে প্রধান শিক্ষক শ্যামল কান্তি ভক্তকে গণপিটুনি ও কান ধরে উঠবস করানোর পর এবার শহরের গোগনগর এলাকায় তাজেক প্রধান কিন্ডারগার্টেন ও উচ্চ বিদ্যালয়ের নবম শ্রেণীর এক ছাত্রীকে ক্লাসরুমে শ্লীলতাহানির অভিযোগে ইব্রাহিম মিয়া (৫০) নামে এক শিক্ষককে গণপিটুনি দিয়েছে স্থানীয় জনতা। পরে ওই শিক্ষককে পুলিশের কাছে সোপর্দ করা হয়েছে। এদিকে, ছাত্রীকে শ্লীলতাহানির প্রতিবাদে বিক্ষুদ্ধ লোকজন দুটি সড়ক অবরোধ করে শিক্ষকের শাস্তি দাবি করেছে। এ সময় তারা বিক্ষোভ প্রদর্শন করে। ঘটনাটি ঘটেছে শনিবার দুপুরে। এ ঘটনায় ওই ছাত্রী বাদী হয়ে শনিবার সন্ধ্যায় অভিযুক্ত শিক্ষকের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করেছে।

পুলিশ ও শ্লীলতাহানির শিকার ছাত্রীর পরিবার সূত্রে জানা গেছে, শনিবার সকালে বিজ্ঞান বিভাগের ওই ছাত্রী স্কুলে যায়। এ সময় বৃষ্টির কারণে অন্য কোন শিক্ষার্থী না আসায় বিজ্ঞান বিভাগের শিক্ষক ইব্রাহিম মিয়া দুপুরে ক্লাসরুমে ঢুকে তার শরীরে হাত দিয়ে শ্লীলতাহানি করে। এ সময় ওই ছাত্রীর চিৎকারে অভিভাবকরা এগিয়ে এসে তাকে রক্ষা করে। পরে ওই শিক্ষককে হাতেনাতে ধরে গণপিটুনি দেয়া হয়। খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে আহতাবস্থায় ওই শিক্ষককে উদ্ধার করে এবং নারায়ণগঞ্জ জেনারেল হাসপাতালে নিয়ে চিকিৎসা করানো হয়। পরে পুলিশ ওই শিক্ষককে গ্রেফতার করে থানায় নিয়ে যায়। এ ঘটনায় ওই ছাত্রী বাদী হয়ে শনিবার সন্ধ্যায় নারায়ণগঞ্জ সদর থানায় মামলা দায়ের করেছে। এদিকে, ছাত্রীকে শ্লীলতাহানির ঘটনায় অভিযুক্ত শিক্ষক ইব্রাহিম মিয়ার শাস্তি দাবি করে বিকেলে শহরের চাষাঢ়া গোলচত্বরে ও সিদ্ধিরগঞ্জের চৌধুরীবাড়ি এলাকায় প্রায় আধাঘণ্টা সড়ক অবরোধ করে বিক্ষুদ্ধ জনতা। তারা শিক্ষকের শাস্তি দাবি করে নানা সেøাগান দেয়। শনিবার বিকেল ৪টা ২০ মিনিট হতে ৫টা পর্যন্ত চাষাঢ়া এলাকায় বিভিন্ন পরিবহনের বাস এলোপাতাড়ি করে এ অবরোধের সৃষ্টি করা হয়। এতে রাজধানী ঢাকার সঙ্গে ঢাকা-নারায়ণগঞ্জ লিংক রোড ও ঢাকা-পাগলা-নারায়ণগঞ্জ ও নারায়ণগঞ্জ-ডেমরা সড়কে যান চলাচল বন্ধ থাকে।

অভিযুক্ত শিক্ষক তার বিরুদ্ধে আনীত অভিযোগ অস্বীকার করে সাংবাদিকদের জানান, ওই ছাত্রী তার মেয়ের মতো। পূর্বশত্রুতার জের ধরে এ অভিযোগ এনে তার ওপর হামলা করা হয়েছে।

নারায়ণগঞ্জ সদর মডেল থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) মোঃ শফিকুল ইসলাম জানান, ওই ছাত্রীকে শ্লীলতাহানির অভিযোগে ওই শিক্ষককে গ্রেফতার করা হয়েছে। ওই শিক্ষক ধর্ষণের চেষ্টার কাছাকাছি পৌঁছে গিয়েছিল। নারায়ণগঞ্জ সদর মডেল থানার ওসি আব্দুল মালেক জানান, শিক্ষক ওই ছাত্রীকে জাপটে ধরে শ্লীলতাহানি করেছে। এ অভিযোগে তাকে গ্রেফতার করা হয়েছে। এ ঘটনায় শিক্ষকের বিচার দাবি করে আধাঘণ্টা শহরের রাস্তা অবরোধ করেছে সাধারণ জনতা। তবে আমরা গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনতে সক্ষম হই।