১৯ ডিসেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

সোনারগাঁয়ে দু’টি গ্রুপের মধ্যে দফায় দফায় সংঘর্ষ, বাড়িঘর ভাংচুর

নিজস্ব সংবাদদাতা, নারায়ণগঞ্জ ॥ নারায়ণগঞ্জের সোনারগাঁও উপজেলার নোয়াগাঁও ইউনিয়নের লক্ষিবরদি এলাকায় রবিবার রাতে নির্বাচিত ইউপি চেয়ারম্যান ও সাবেক চেয়ারম্যানের সমর্থকদের মধ্যে দফায় দফায় সংঘর্ষ, বাড়িঘর ভাংচুর ও লুটপাটের ঘটনা ঘটেছে। এতে উভয় পক্ষের নারী ও শিশুসহ কমপক্ষে ২৫ জন আহত হয়েছে। এ ঘটনায় থানায় উভয় পক্ষই থানায় লিখিত অভিযোগ দিয়েছে বলে পুলিশ জানায়।

পুলিশ ও এলাকাবাসী সূত্রে জানা গেছে, উপজেলার নোয়াগাঁও ইউনিয়ন পরিষদের বর্তমান চেয়ারম্যান আওয়ামীলীগে ইউসুফ দেওয়ানের সমর্থক আঃ রশিদ মেম্বার ও সাবেক চেয়ারম্যান ও উপজেলা আওয়ামী লীগের প্রচার সম্পাদক দেওয়ান উদ্দিন চুন্নুর সমর্থক আলী মিয়ার সঙ্গে নির্বাচনের জের ধরে কথা কাটাকাটি হয়। এ নিয়ে উভয় পক্ষের সমর্থকদের মধ্যে সংঘর্ষ শুরু হয়। উভয় পক্ষই দা, ছোড়া, বল্লম, হকিস্টিকসহ দেশীয় অস্ত্রে সজ্জিত হয়ে সংঘর্ষে লিপ্ত হয়। সংঘর্ষে আসকর আলী, চেরাগ আলী, শাহিদা বেগম, গোলাপ হোসেন, রহিমা বেগম, করম আলী, হযরত আলী, বাবুল মিয়া, মাহবুব মিয়া, আফরোজা বেগম, হোসনে আরা, লিয়াকত আলী, সোহরাবউদ্দিন, ছাত্রী আফরোজা আক্তার, সুমি আক্তার, ছাত্রী সুমাইয়া আক্তার ও দেড় বছরের শিশু ইসলাম, সাইফুল ইসলাম, মিতু আক্তার, আমিনুর ইসলাম ও সহিদ মিয়াসহ কমপক্ষে ২৫ আহত হয়। এ সময় আসকর আলী, চেরাগ আলী, তালেব আলী, হযরত আলী, রহম আলী, করম আলী ও সগির আহম্মেদসহ ১০ জনের বাড়িঘরে হামলা ভাংচুর ও লুটপাট চালায়। আহতদের উদ্ধার করে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ও ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

এ ব্যাপারে দেওয়ান উদ্দিন চুন্নু জানান, নির্বাচনের জের ধরেই আমার সমর্থদের উপর হামলা, বাড়িঘর ভাংচুর ও লুটপাট চালাচ্ছে বর্তমান চেয়ারম্যান ইউসূফ দেওয়ানের লোকজন।

এদিকে ইউসূফ দেওয়ান জানান, আমার সমর্থকদের উপর প্রথমে হামলা চালিয়ে আহত করার ঘটনাকে কেন্দ্র করে সংঘর্ঘের ঘটনা ঘটেছে।

সোনারগাঁ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মঞ্জুর কাদের জানান, সংঘর্ষে ঘটনায় দু’পক্ষই থানায় পৃথক দুটি লিখিত অভিযোগ দিয়েছে। ঘটনাটি তদন্ত করতে ঘটনাস্থলে অফিসার পাঠানো হয়েছে। সংঘর্ষের ঘটনায় উভয় পক্ষের ৮-১০ জন আহত হয়েছে।