২৩ সেপ্টেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

সদরঘাটে পল্টুনের রেলিং ভেঙে বহু যাত্রী পানিতে, নিখোঁজ ২

সদরঘাটে পল্টুনের রেলিং ভেঙে বহু যাত্রী পানিতে, নিখোঁজ ২

অনলাইন রিপোর্টার॥ যাত্রীবাহী লঞ্চের ধাক্কায় সদরঘাটে ৯ নম্বর পল্টুনের রেলিং ভেঙে পড়ে গিয়ে বুড়িগঙ্গায় নিখোঁজ রয়েছে দুই শিশু। ধাক্কায় ৪০ থেকে ৫০ জন যাত্রী নদীতে পড়ে গেলেও পরে তারা সাঁতরে উপরে উঠেছে। আজ মঙ্গলবার সকালে সদরঘাট লঞ্চ টার্মিনালে এ দুর্ঘটনা ঘটে। নৌ পুলিশের সদস্য ফজলুল হক বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন। তাদের পিতার নাম সুমন ও মাতার নাম সালমা। তাদের গ্রামের বাড়ি শরিয়তপুরের নীলফামারিতে।

খবর পেয়ে ঘটনার নৌ পুলিশ, ফায়ার সার্ভিস, বিআইডব্লিউটিএর সদস্যরা ঘটনাস্থলে ছুটে যান এবং তাদের উদ্ধারে অভিযান শুরু করেন। সকাল ৯টা ৪০ মিনিটের দিকে সুমাইয়ার মৃতদেহ উদ্ধার করা হয়। নিখোঁজ সাকিবের উদ্ধারে তৎপরতা চলছে। ঈদুল ফিতর উপলক্ষে ছুটিতে বাড়ি ফেরা নিয়ে সদরঘাট লঞ্চ টার্মিনালে আজ মঙ্গলবার ভোর থেকেই ছিল যাত্রীদের প্রচণ্ড ভীড়। সকালে যাত্রী ওঠানোর প্রস্তুতি চলার সময় একটি লঞ্চ ৯ নম্বর পল্টুনে ধাক্কা দেয়। অতিরিক্ত যাত্রী থাকায় লঞ্চের ধাক্কায় ৪০ থেকে ৫০ যাত্রী পল্টুনের রেলিং ভেঙ্গে নদীতে পড়ে যায়।

ওই সময় ৩ বছর ও ৫ বছরের দুই শিশুও পড়ে যায় নদীতে। ফায়ার সার্ভিসের ডুবুরি দল শিশু দুটিকে উদ্ধারে অভিযান চালাচ্ছে। সরকারি লঞ্চ এবং স্টিমারের পাশাপাশি ১৯০টি বেসরকারি স্বল্প ও দূরপাল্লার লঞ্চ নিয়ে এবারের ঈদ সেবায় প্রস্তুত রাখা হয় দেশের প্রধান লঞ্চ টার্মিনাল সদরঘাট। তবে বৃষ্টির মৌসুমে ঈদ হওয়ায় নৌপথে এবার যাত্রী কিছুটা কম থাকবে বলে ধারণা করেছিল লঞ্চ মালিক সমিতি।

ঈদ উপলক্ষে দেশের উপকূল এবং দক্ষিণের মানুষের লঞ্চ যাত্রা শুরু হয় ৩০ জুন রাত থেকে। ঈদের আগে শেষ কর্মদিবস ৪ জুলাই হওয়ায় ওই দিনই সব চেয়ে বেশি ভিড় হবে বলে ধারণা করেছিল মালিক সমিতি। সেই ভীড়ের ধারাবাহিকতায়ই পল্টুন ভাঙ্গার ঘটনা ঘটল বলে মনে করা হচ্ছে।