১৬ ডিসেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

উইম্বলডনে কোর্টেই খেলোয়াড়ের মূত্র বিসর্জনের হুমকি

উইম্বলডনে কোর্টেই খেলোয়াড়ের মূত্র বিসর্জনের হুমকি

অনলাইন ডেস্ক॥ কেউ কখনো যা শোনেনি তাই হলো এবার! টেনিসের সবচেয়ে মর্যাদার আসর উইম্বলডন। আর লন্ডনের এই আসরে খেলা চলাকালে এক খেলোয়াড় কোর্টেই মূত্র বিজর্সনের হুমকি দিলেন! আম্পায়ার তাকে টয়লেট ব্রেক দিতে রাজি না হওয়ায় এই হুমকি দিয়েছিলেন তিনি! এরপর এই খেলোয়াড় ও তার ডাবলস পার্টনার ১৫ মিনিট বসে থেকে প্রতিবাদ জানালেন। এবং শাস্তির শিকারও হলেন। ঘটনাটা সোমবার ঘটেছে। ঘটিয়েছেন স্পেনের মার্সেলো গ্রানোলের্স ও উরুগুয়ের পাবলো কুয়েভাস।

এই ম্যাচ কুয়েভাস ও গ্রানোলের্স হেরেছেন ৬-৩, ৪-৬, ৬-৪, ৩-৬, ১৪-১২তে। হারিয়েছে ব্রিটেনের জোনাথন মারে ও কানাডার আদিল শামসদিন জুটি। দীর্ঘ ম্যাচে আম্পায়ারের সাথে বনিবনা হয়নি খেলোয়াড়দের।

ফ্রেঞ্চ আম্পায়ার অরিলে তুর্তে কঠোর হাতে ম্যাচ পরিচালনা করার চেষ্টা করেছেন। শেষ সেটের শুরুর দিকে কুয়েভাস টয়লেটে যেতে চাইলেন। নারী আম্পায়ার অনুমতি দেননি। কুয়েভাস তখন তোয়ালের আড়াল করে কোর্টেই মূত্র বিসর্জনের হুমকি দিলেন। শৃঙ্খলা ভঙ্গের মুখে পড়লেন তিনি অখেলোয়াড়সূলভ আচরণে।

এরপর দুটি ডাবল ফল্টের কারণে হতাশায় বলকে বাইরে পাঠিয়ে দিয়েছিলেন কুয়েভাস। তাতে এক পয়েন্ট জরিমানা হলো। প্রতিপক্ষ জুটি জয়ের কাছাকাছি চলে গেলো। রাগে-ক্ষোভে এই জুটি র্যা কেট রেখে বসে পড়লেন। আর না খেলার হুমকি দিলেন। কিন্তু আম্পায়ারও কম যান না। তিনি বললেন, প্রতিপক্ষকে জয়ী ঘোষণা করা হবে। এরপর টুর্নামেন্ট পরিচালক এসে ঝামেলা মেটান। জয়ী মারে অবশ্য বললেন, "আমিও দুবার বাথরুমে গিয়েছি। আমার মনে হয় খেলা ৫ সেটের হলে বাড়তি একটা টয়লেট ব্রেক দেওয়া যেতেই পারে।"

নির্বাচিত সংবাদ