১১ ডিসেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

ভার্চুয়াল রিয়েলিটি গ্লাস বাড়িয়ে দিচ্ছে পর্নো আসক্তি

 ভার্চুয়াল রিয়েলিটি গ্লাস বাড়িয়ে দিচ্ছে পর্নো আসক্তি

অনলাইন ডেস্ক॥ অত্যাধুনিক ভিডিয়ো গেম, সোশ্যাল নেটওয়ার্ক, সিনেমা, মিউজিক-- ইন্টারনেটের এই যুগে ভার্চুয়াল দুনিয়ার আকর্ষণ এড়ায় কার সাধ্য! আর এই দুনিয়ার বৃহত্‍‌ অংশ জুড়ে রয়েছে পর্নো ইন্ডাস্ট্রি। ম্যাগাজিনের পাতা উল্টে রগরগে লেখা বা ছবি দেখার দিন ফুরিয়েছে অনেক আগেই। জানেন কি? স্মার্টফোন, ট্যাব, কম্পিউটারে ক্লিক বা স্মার্টফোনে স্পর্শ করে পর্নো ভিডিয়ো দেখার দিনও শেষ হয়ে যাচ্ছে ভার্চুয়াল রিয়েলিটি গ্লাসের সৌজন্যে। চোখে ভিআর গ্লাসে লাগিয়ে পর্নো-প্রেমীরা মুহূর্তে পৌঁছে যাচ্ছেন রঙীন উত্তেজক দুনিয়ায়।

গুগল সার্চ-এর ডেটা বলছে, ২০১৪ সাল থেকে মাত্র দু'বছরে 'ভিআর পর্নো' সার্চ বেড়েছে ৯,৯০০ শতাংশ। ভিআর গ্লাসে চোখ রেখেই ইরোটিক ওয়ার্ল্ডে পৌঁছে যেতে চাইছেন পর্নোপ্রেমীদের বড় অংশ। বিশেষজ্ঞরা বলছেন, অ্যাডাল্ট ভিআর ইন্ডাস্ট্রির বাজার ২০২৫-এর মধ্যে ১০০ কোটি ডলারে পৌঁছে যাবে। স্মার্টফোন প্রস্তুতকারী প্রায় সব সংস্থাই এখন ভিআর গ্লাস উত্‍‌পাদন শুরু করে দিয়েছে। এর বাজার এতই দ্রুত এগোচ্ছে যে, পর্নোহাব-সহ বিভিন্ন অ্যাডাল্ট সাইট এখন জোর দিচ্ছে 'ভিআর পর্নো' সেগমেন্টের দিকে।

ভিআর গ্লাস চোখে লাগিয়ে সিনেমা, ভিডিয়ো গেম খেলার প্রবণতার সঙ্গেই পাল্লা দিয়ে বেড়েছে পর্নো দেখাও। সিনেমা, গেমের পরই তৃতীয় বৃহত্তম ভার্চুয়াল রিয়েলিটি সেক্টর হতে চলেছে ৩৬০ ডিগ্রি অ্যাডাল্ট কনটেন্ট। অর্থাত্‍‌, ভিআর গ্লাস চোখে লাগিয়ে বাস্তব দুনিয়ার সঙ্গে সমস্ত সম্পর্ক ভুলে যেতে চাইছে মানুষ। ভিআর গ্লাস কেনার পরিমাণ লাফিয়ে বাড়ছে প্রতিদিন। টেক-দুনিয়ায় এই নাম দেওয়া হয়েছে ভিআর রেভেলিউশন।

গুগল ট্রেন্ডস স্ট্যাট বলছে, 'ভিআর পর্নো' দেখায় এগিয়ে থাকা দেশগুলি হল, নরওয়ে, সুইডেন, সিঙ্গাপুর, ফিনল্যান্ড, দক্ষিণ কোরিয়া, মালয়েশিয়া।