১৮ অক্টোবর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

ঈদে বাড়িতে আসার পথে ডোমারে বিদ্যুতের তারে জড়িয়ে নারী শ্রমিক নিহত

স্টাফ রিপোর্টার,নীলফামারী ॥ ঈদের ছুটিতে ঢাকা থেকে বাড়ির সন্নিকটে এসে ছিড়েপড়া বিদ্যুদের তারে জড়িয়ে নিহত হলো নারী শ্রমিক বকুল বেগমকে(২৫)। এ ঘটনায় ভাগ্যক্রমে বেঁেচ গেছে স্বামী ও দুই সন্তান। আজ বুধবার সকাল সোয়া ৯টার দিকে এই মর্মান্তিক ঘটনাটি ঘটে নীলফামারীর ডোমার সদর ইউনিয়নের পশ্চিম চিকনমাটি চেয়ারম্যানপাড়া গ্রামে। এ ঘটনায় এলাকাবাসী ডোমার বিদ্যুত অফিসের গাফিলাতি কে দায়ি করেছে।

এলাকাবাসী জানায় ওই গ্রামের একরামুল হক ও তার স্ত্রী বকুল বেগম ঢাকায় তৈরী পোষাকের কারখানায় শ্রমিকের কাজ করে। ঈদের ছুটিতে তারা ঢাকা থেকে রাতের কোচে আজ বুধবার সকাল ৯টায় ডোমার শহরে এসে পৌছে। গাড়ী থেকে নেমে স্বামী স্ত্রী ও আট বছরের ছেলে মুকুল ও ৩ বছরের মেয়ে লামিয়া সহ পায়ে হেটে নিজ বাড়ির দিকে যাচ্ছিল। বাড়ির অদুরে ডোমারের নতুন চিকনমাটি ঈদগাঁ মাঠের সড়কে রাতে একটি গাছ ভেঙ্গে পড়লে বিদ্যুতের তার রাস্তার উপর ছিড়ে পড়ে । সেখানে আসা মাত্র বকুল বেগম বিদ্যুতের তারে জড়িয়ে ঘটনাস্থলে নিহত হয়। আর ধাক্কা খেয়ে বকুল বেগমের স্বামী ও দুই সন্তান ছিটকে পড়লেও তারা ভাগ্যক্রমে প্রাণে বেঁচে যায়।

এলাকাবাসী অভিযোগ করে জানায় একটি গাছ ভেঙ্গে বিদ্যুতের তার রাস্তায় ছিড়ে পড়ে থাকার বিষয়টি ডোমার বিদ্যুত অফিসে তাৎক্ষনিকভাবে জানানো হয়েছিল। কিন্তু বিদ্যুত অফিসের কোন লোক দীর্ঘ ৫ ঘন্টা ধরে বিদ্যুতের লাইন যেমন বন্ধ করেনি তেমনি ছিড়ে পড়া তারটি অপসারনে ঘটনাস্থলে আসেনি।

এ ব্যাপারে ডোমার থানার এস আই খাদেমুল ইসলাম ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে।

এ ঘটনায় ডোমার বিদুূৎ অফিসের আবাসিক প্রকৌশলী আব্দুল মতিনের সাথে কথা বলা হলে তিনি বলেন ঘটনা স্থলে বিদ্যুতের তার ছিড়ে পড়ে ছিল সেটি এলাকাবাসী তাদের অবগত করেনি। ঘটনার কথা জানার পর বিদ্যুত লাইন বন্ধ করে ছিড়েপড়া বিদ্যুতের তার অপসারন ও মেরামত করা হয়।