২৬ সেপ্টেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

নীলফামারীতে পবিত্র ঈদুল ফিতর উদযাপিত

নীলফামারীতে পবিত্র ঈদুল ফিতর উদযাপিত

স্টাফ রিপোর্টার, নীলফামারী ॥ মাসব্যাপী সিয়ামসাধনা শেষে নীলফামারীর ছয় উপজেলা, ৪ পৌরসভা ও ৬০টি ইউনিয়নের গ্রামগঞ্জে যথাযোগ্য ধর্মীয় ভাবগাম্ভীর্যের মধ্য দিয়ে আজ বৃহস্পতিবার পবিত্র ঈদুল ফিতর উদযাপিত হয়েছে। এ উপলক্ষ্যে মাঠে-ময়দানে ও মসজিদে ঈদের নামাজ অনুষ্ঠিত হয় এবং ধনী-গরিব নির্বিশেষে পার¯পরিক কোলাকুলি ও কুশলবিনিময় করে। প্রতিটি ঈদগাঁ মাঠে পুলিশ ও র্যা বের কঠোর নজরকারী রাখা হয়। এ জেলার ওই সব এলাকা সমুহে মোট সাড়ে ৬০০ ঈদের জামাতে মুসল্লিরা নামাজ আদায় করে বলে জানা যায়।

সকাল ৯টায় নীলফামারী কেন্দ্রীয় ঈদগাহ মাঠে ঈদের প্রধান নামাজ অনুষ্ঠিত হয়। হাজার হাজার মুসলি¬ অংশ নেন এই ঈদ জামাতে। নীলফামারী বড় মসজিদের খতিব মওলানা মো. আশরাফুল হক এতে ইমামতি করেন। এর আগে সকাল সাড়ে ৮টায় পুলিশ লাইন্স ঈদগাঁ মাঠে প্রথম জামাত অনুষ্ঠিত হয় এবং সকাল সাড়ে ৯টা ১৫ মিনিটে জোরদরগা ঈদগাঁ ময়দান, কলেজ স্টেশন ঈদগাঁ ময়দান ও কুখাপাড়া ঈদগাঁ ময়দান এবং সার্কিট হাউজ ঈদগাঁ ময়দানের নামাজ অনুষ্ঠিত হয়।

জেলার সবচেয়ে বড় জামাত অনুষ্ঠিত হয় ডোমার উপজেলার ভোগডাবুড়ি ইউনিয়নে সবদিগঞ্জ ঈদগাহ মাঠে। ঈদের মোনাজাতে দেশ ও জাতির উন্নয়ন-অগ্রগতি কামনা করা হয়।

ঈদুল ফিতর উপলক্ষে জেলা কারাগার, হাসপাতাল, এতিমখানা এবং ভবঘুরে প্রতিষ্ঠানগুলোতে উন্নতমানের খাবার পরিবেশন করা হয়।

নীলফামারী কেন্দ্রীয় ঈদগাঁ মাঠে হাজারো মুসল্লিদের সাথে ঈদের নামাজ আদায় করেন জেলা প্রশাসক জাকীর হোসেন, জেলা পরিষদের প্রশাসক মমতাজুল হক, পৌর মেয়র দেওয়ান কামাল আহমেদ। ঈদের জামায়াতের আগে তারা মুসল্লিদের উদ্যোশে শুভেচ্ছা বক্তব্য রাখেন। এ ছাড়া প্রধান জামাতে নামাজ আদায় করেন অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক(সার্বিক) এজেএম এরশাদ আহসান হাবিব, অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক(রাজস্ব) মুজিবুর রহমান, উপজেলা চেয়ারম্যান আবুজার রহমান প্রমুখ।

অপর দিকে পুলিশ লাইন ঈদগাঁ মাঠে ঈদের জামাত আদায় করেন পুলিশ সুপার জাকির হোসেন খান,অতিরিক্ত পুলিশ সুপার আবু মারুফ হোসাইন।

অপর দিকে জেলা ডিমলা উপজেলা প্রধান ঈদগা মাঠে ঈদের নামাজ আদায় করেন এলাকার সংসদ সদস্য আফতাব উদ্দিন সরকার,জলঢাকায় একইভাবে সংসদ সদস্য অধ্যাপক গোলাম মোস্তফা,সৈয়দপুরে সংসদ সদস্য শওকত চৌধুরী।

নির্বাচিত সংবাদ